২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এয়ারটেল এবং ভোডাফোন-আইডিয়া ইতিমধ্যেই নিজেদের সমস্ত ট্যারিফের দাম ১৫ থেকে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়িয়েছে। আগামী ৬ ডিসেম্বর থেকে দাম বাড়িয়ে দেবে মুকেশ আম্বানির সংস্থাও। ইতিমধ্যেই জিও-র তরফে গ্রাহকদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, তাদের সমস্ত ‘অল-ইন-ওয়ান প্যাক’-এর দাম ৪০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানো হবে। তবে, তাঁর আগে গ্রাহকদের কথা ভেবে একটি দীর্ঘমেয়াদি অল-ইন-ওয়ান প্যাক আনল জিও। সংস্থার তরফে গ্রাহকদের দীর্ঘমেয়াদি এই প্যাকের সুবিধা নিতে অনুরোধ করা হচ্ছে।


কী সেই নতুন প্যাক? জিও-র তরফে জানানো হয়েছে, দাম বাড়ার আগেই যাতে গ্রাহকরা দীর্ঘমেয়াদি রিচার্জ সস্তায় করে নিতে পারেন সেকথা ভেবেই এই প্যাকটি আনা হয়েছে। প্যাকটির ভ্যালিডিটি মোট ৩৩৬ দিন। এতে অন নেট অর্থাৎ জিও থেকে জিও আনলিমিটেড ফ্রি কলিংয়ের সুবিধা থাকছে। সেই সঙ্গে অন্য নেটওয়ার্কে কল করার জন্য থাকছে ৪ হাজার মিনিট টকটাইম। প্রতিদিন আপনি পাবেন ২ জিবি করে ডেটা এবং ১০০ টি করে এসএমএস। প্যাকটির মোট মূল্য ১ হাজার ৭৭৬ টাকা। চারটি ৪৪৪ টাকার প্যাকেজের মিলিত ভ্যালিডিটি যোগ করে এই প্যাকটি আনা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ফ্রি কল অতীত, জিওর পর ভোডাফোন-এয়ারটেলেও বন্ধ আনলিমিটেড পরিষেবা]


জিও আগেই জানিয়ে দিয়েছে, তাঁদের সমস্ত প্যাকের দাম অনেকটা বাড়ছে। তবে, দাম বাড়লেও সমস্ত পরিষেবার সুবিধা ৩ গুণ করা হবে। তবে বাজার বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দাম বাড়ালেও জিও-র ট্যারিফ ভোডাফোন এবং এয়ারটেলের তুলনায় অন্তত ১৫-২০ শতাংশ কম হবে। সব সংস্থা একই হারে দাম বাড়ালেও জিও-র প্যাকেজগুলি যেহেতু আগে থেকেই ভোডাফোন এবং এয়ারটেলের তুলনায় কম খরচের, তাই পরেও কম হবে। সেক্ষেত্রে দাম বাড়ার পরও অন্য দুই সংস্থার তুলনায় বেশি গ্রাহক টানতে পারবে জিও-ই। আবার গ্রাহক সংখ্যা বেশি হওয়ায় লাভও বেশি হবে জিও-র। দাবি করা হচ্ছে মাশুল বৃদ্ধির ফলে এয়ারটেল, ভোডাফোন যেখানে যথাক্রমে ২৪০০ কোটি ও ২১০০ কোটি টাকা অতিরিক্ত ঘরে তুলবে, সেখানে জিয়ো একাই ৩৯০০ কোটি টাকা বেশি লাভ করতে পারে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং