১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‌ফের চমক হোয়াটসঅ্যাপের, আসছে একাধিক আকর্ষণীয় ফিচার

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: November 16, 2020 10:36 pm|    Updated: November 16, 2020 10:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp) ইউজারদের জন্য সুখবর। ফের নয়া ফিচার নিয়ে আসতে চলেছে ফেসবুকের মালিকানাধীন এই সংস্থা। সাত দিন আগের মেসেজ মুছে যাওয়া, হোয়াটসঅ্যাপ পে, শপিং ফিচারের পর এবার নয়া ইমোজি, অ্যাডভান্সড ওয়ালপেপার নিয়ে আসতে চলেছে এই মেসেজিং অ্যাপে। এছাড়াও আসবে ‘‌রিড লেটার’ (Read Later) নামে একটি ফিচার। এমনটাই জানানো হয়েছে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে।

প্রথমেই কথা বলা যাক ‌অ্যাডভান্সড ওয়ালপেপার ফিচার নিয়ে। এই ফিচারে ইউজাররা সহজেই প্রত্যেকটি চ্যাটের জন্য আলাদা আলাদা ওয়ালপেপার সেট করতে পারবেন। ইতিমধ্যে কিছু বেটা ভার্সনে এই ফিচারের দেখাও মিলেছে। অনেকদিন ধরেই এই ফিচারটি নিয়ে কাজ করছিল হোয়াটসঅ্যাপ। এছাড়া ইউজাররা ৩২ টি ব্রাইট ওয়ালপেপার এবং ২৯টি ডার্ক ওয়ালপেপারও পেয়ে যাবেন নয়া ফিচারে। এছাড়া ইচ্ছেমতো ওয়ালপেপার তৈরি করারও ব্যবস্থা থাকছে।

[আরও পড়ুন: ‘সাইবার বুলিং’-এর বিরুদ্ধে লড়াইকে কুর্ণিশ, আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার পেল বাংলাদেশের কিশোর]

এছাড়া রিড লেটার ফিচারটি আনা হচ্ছে ভ্যাকেশন মোড ফিচারের জায়গায়। এই ফিচারটিতে ইউজাররা A‌rchived chat–এ নতুন মেসেজ এলেও তার নোটিফিকেশন দেখাবে না। তবে এখানেই শেষ নয়, একাধিক নতুন ইমোজিও আনতে চলেছে হোয়াটসঅ্যাপ।

এদিকে, সম্প্রতি বহু প্রতীক্ষার পর ভারতে চালু হয়েছে ‘‌হোয়াটসঅ্যাপ পে’‌ (WhatsApp Pay)। অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে ন্যাশনাল পেমেন্ট কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়ার (NPCI) তরফে হোয়াটসঅ্যাপ সবুজ সংকেত পাওয়ার পরই ফেসবুক সিইও মার্ক জুকারবার্গ (Mark Zuckerberg) নিজেই ইউজারদের এই সংক্রান্ত যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর দেন। তিনি জানান, এই ফিচারের সাহায্যে মাধ্যমে টাকা পাঠাতে কোনও অতিরিক্ত অর্থ লাগবে না। জুকারবার্গ এও জানান, ইউজারদের সুবিধার্থে ১৪০টিরও বেশি ব্যাংকের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছে হোয়াটসঅ্যাপ। যে কোনও ব্যাংকের একটি ডেবিট কার্ড হলেই চলবে। যা UPI (Unified Payments Interface) সাপোর্ট করে। আর ভারতীয় ইউজাররা মোট দশটি ভাষায় টাকা লেনদেনের সুযোগ পাবেন।

[আরও পড়ুন: ফেসবুক নিয়ে ‘বিস্ফোরক’ সংস্থার প্রাক্তন কর্মী, অভিযোগ রাজনৈতিক প্রভাব নিয়েও]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement