৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বর্তমানে অতিরিক্ত ফাস্ট ফুড খাওয়ার চক্করে বাড়ে ওজন। আর সেই ওজন কমাতে শুরু হয়ে যায় ডায়েটিং। অনেকেই শুধু খাওয়ার পরিমাণ কমিয়েই ওজন কমানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু জেনে রাখুন, এমন অনেক ডায়েট ফুড রয়েছে, যা আখেরে আপনার শরীরের ক্ষতি করে। এমনকী ডায়েট চার্টে সে সব খাবার থাকলে মহিলাদের সন্তান জন্ম দেওয়ার ক্ষমতাও কমে। গবেষণা বলছে, এমন কিছু খাবার খেলে হয়তো সত্যিই ওজন কমে, কিন্তু সেই সঙ্গে শরীরে নানা ধরনের রোগও জন্ম নেয়। তাই শর্টকাটে রোগা হওয়ার এমন প্রক্রিয়া থেকে বিরত থাকাই শ্রেয়। বিশেষ করে মহিলাদের ক্ষেত্রে। জেনে নিন কী ধরনের ডায়েট করলে সন্তান প্রসবে সমস্যা হতে পারে।

মিক্সড জ্যুস: বিভিন্ন ধরনের ফলের অথবা সবজির মিক্সড জ্যুস অনেকেই ডায়েট চার্টে রাখেন। এতে শরীর যেমন সুস্থ থাকে তেমনই ত্বকের জেল্লা বাড়ে। সঙ্গে অবশ্যই ওজন কমে। এই ধারণা থেকেই মিক্সড জ্যুস পান করেন অনেকে। কিন্তু গবেষক ম্যাকলোন বলছেন, এই বিষয়গুলি যেমন ঠিক, তেমনই এর কিছু খারাপ দিকও রয়েছে। অনেকেই জানেন না, এই ধরনের জ্যুস পান করলে তা শরীরের বিপাক ক্রিয়ায় প্রভাব ফেলে এবং বিএমআইকে এমন একটি স্তরে নিয়ে যায় যে, তা মহিলাদের গর্ভধারণে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে।

[শীতে ব্রঙ্কাইটিসের হাত থেকে বাঁচুন এই সহজ উপায়ে]

কাঁচা সবজি: অনেকে দ্রুত মেদ ঝরাতে বিভিন্ন ধরনের সবজি ছোট ছোট করে কেটে ধুয়ে কাঁচাই খেয়ে ফেলেন। কিন্তু এতে অজান্তেই শরীরের ক্ষতি করে ফেলেন তাঁরা। কারণ কাঁচা সবজি খেলে শরীর প্রয়োজনীয় নিউট্রিশন থেকে বঞ্চিত হয়। আয়রন, ভিটামিন বি-এর অভাব ঘটে শরীরে। আর এভাবেই নিউট্রিশনের অভাব শরীরকে দুর্বল করে ও গর্ভধারণে সমস্যা দেখা দেয়।

ভারী খাবারের পরিবর্তে শুধু তরল খাবার: ওজন কমাতে এ অভ্যেস অনেকেরই রয়েছে। দুপুর ও রাতের খাবারে ভারী কোনও খাবার না খেয়ে বিভিন্ন ধরনের খাবারের শেক খেয়েই দিন কাটান। কিন্তু এতে হিতে বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি থাকে। বিশেষ করে কোনও মহিলা যদি গর্ভধারণের সময় এমনটা করেন, তাহলে তা আরও বিপদজনক। কারণ শেক পান করলে শর্করাই শরীরে বেশি যায়, আর প্রোটিন কম।

[এই বিউটি প্রোডাক্টের ব্যবহারে কমতে পারে সন্তানধারণের ক্ষমতা!]

কেটোজেনিক ডায়েট: এই ধরনের ডায়েটে অনেকে খিদে চাপা দেওয়ার জন্য কোনও এক সময় প্রোটিন রয়েছে এমন খাবার বেশি পরিমাণে খেয়ে ফেলেন। তাঁদের ধারণা এতে শরীর সুস্থ ও চাঙ্গা থাকে। দ্রুত ওজনও কমে। তবে এমন ধারণা এক্কেবারে ভুল। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া এ ধরনের ডায়েট না করাই ভাল।

ডায়েট ট্যাবলেট ও ড্রিঙ্কস: শরীর সুস্থ রাখতে চাইলে নিজের হাতে এ সর্বনাশ করবেন না। ডায়েট ট্যাবলেট এবং ড্রিঙ্কসে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফিন থাকে যা দ্রুত ওজন কমাতে সাহায্য করে। কিন্তু ঠিক ততটাই দ্রুত গর্ভধারণের ক্ষমতাও কমিয়ে দিতে সক্ষম এগুলি। জীবন একটাই। তাই বিচার-বিবেচনা ও চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে এগনোই শ্রেয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং