৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অতূল্য ভারতকে আবিষ্কারের লক্ষ্যে ব্যাগ গুছিয়ে কেউ রওনা দেন তুষারাবৃত লাদাখে, কেউ আবার করবেটের গভীর জঙ্গলের দিকে এগিয়ে যান৷ সাধারণত টিভি ও খবরের কাগজে যেসব পর্যটন কেন্দ্রগুলির নাম বেশি করে চোখে পড়ে, সেখানেই যাওয়ার প্ল্যান তৈরি করেন ভ্রমণপ্রেমীরা৷ এবার অতূল্য ভারতের খোঁজ করতে হোক না আপনার গন্তব্য আর পাঁচজনের থেকে আলাদা৷ অনবদ্য কিছু ল্যান্ডস্কেপ আর ইতিহাসে পরিপূর্ণ হোক না আপনার ভ্রমণ ভান্ডার৷ এই প্রতিবেদনে ভারতের এমনই কিছু জায়গা তুলে ধরা হল, যা পর্যটক কেন্দ্র হিসেবে খুব একটা জনপ্রিয় নয়৷ অথচ যার সৌন্দর্য আপনার মন ছুঁয়ে যাবে৷

hasan
১. রোসারি গীর্জা – প্রায় ২০০ বছর আগে হাসানের কাছে হেমাবতী নদীর তীরে তৈরি হয়েছিল গীর্জাটি৷ যদিও সেই সৌন্দর্যের ছিটে ফোঁটাও এখন নেই৷ ফরাসি মিশনারিদের তৈরি স্থাপত্য যেটুকু চোখে পড়বে তা থেকে খানিকটা আন্দাজ করতে পারবেন, গীর্জাটি কত সুন্দর দেখতে ছিল৷ তবে নদীর ধারে অবস্থিত হওয়ায় বর্ষার সময় নদী গর্ভে চলে যায় এই স্থাপত্য৷ জল নামলে আবার দেখা দেয় এটি৷ যত দিন যাচ্ছে, রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে এর অবস্থা ততই করুণ হচ্ছে৷

m_52
২. খিমসার ডুনস গ্রাম – রাজস্থানের মরুভূমি মানেই তো গন্তব্য জয়সলমের৷ কিন্তু এই গ্রামের নাম কি শুনেছেন? আর শুনে থাকলেও গ্রামটিতে পা নিশ্চয়ই পড়েনি৷ এখানে মরুভূমি যেন এক অন্য সংজ্ঞা পেয়েছে৷ খিমসার দূর্গ থেকে ১৫ মিনিটের রাস্তা৷ গাছ আর মরুভূমির অদ্ভূত কম্বিনেশন তাক লাগিয়ে দেবে৷ ভাগ্যে থাকলে সারি সারি বালির মাঝে চোখে পড়তে পারে নীল জলের ঝিলও৷ তবে সাবধান! কাছে গিয়ে হয়তো বুঝলেন, সেটা মরীচিকা৷

m_2218255428_3e382dfce4_b
৩. মুজহাপ্পিলাঙ্গাদ সমুদ্র সৈকত – জানেন গাড়িচালকদের সবচেয়ে প্রিয় সমুদ্রসৈকত কোনটি? কান্নুরের এই সমুদ্রসৈকত৷ কারণ এটি এশিয়ার দীর্ঘতম ড্রাইভিং সমুদ্রসৈকত৷ মনোরম আবহাওয়ায় সমুদ্রের ধার দিয়ে গাড়ি চালানোর মজাই আলাদা৷ বালির বুক চিরে প্রায় ৪ কিলোমিটার সোজা গাড়ি নিয়ে এগিয়ে যাওয়া যায়৷ ধোঁয়া-ধুলোয় গাড়ি চালাতে অভ্যস্ত মানুষদের জন্য এর চেয়ে আরামদায়ক আর কী-ই হতে পারে৷ সমুদ্রের নীল ঢেউ যখন কালো পাথরে এসে ধাক্কা খায়, অস্তমিত সূর্যের দিকে তাকালে মন ভাল যায়৷

m_2721189002_fe0e55fc4f_o
৪. ফুকতাল বৌদ্ধমঠ – জম্মু ও কাশ্মীরের জানস্কার উপত্যকায় অবস্থিত এই বৌদ্ধমঠ যেমন গায়ে কাঁটা দেয়, তেমনই এর সৌন্দর্য অবাক করে পর্যটকদের৷ ১২০০ শতাব্দীতে তৈরি এই বৌদ্ধমঠে ৭০ জন সন্ন্যাসীর থাকার ঘর রয়েছে৷ পাহাড়ের গায়ে শোভা পাওয়া এই বৌদ্ধমঠের একটি গুহা থেকে অনবরত জল বেরতে থাকে৷ যার জলস্রোত সারা বছরই একইরকম থাকে৷ অনেকের বিশ্বাস, এই জলে মনের পাপ কেটে যায়৷

m_6309463151_012f80e25b_b
৫. ওরছা টাউন – মধ্যপ্রদেশের তিকামগড় জেলার ওরছা শহরের কথা অনেকেরই অজানা৷ এখানে বেতোয়া নদীর তীরে ইতিহাস জমাট বেঁধে রয়েছে৷ যাদের মধ্যে অন্যতম হল জাহাঙ্গিরমহল৷ এছাড়াও প্রাচীন যুগের রাম রাজা মন্দির, চতুর্ভূজ মন্দিরের মতো স্থাপত্যগুলি এখনও মাথা তুলে অপেক্ষা করে রয়েছে আপনার জন্য৷
যাবেন তো?

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং