৫ আশ্বিন  ১৪২৫  শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  |  পুজোর বাকি আর ২৪ দিন

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও পুজো ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৫ আশ্বিন  ১৪২৫  শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 

BREAKING NEWS

শর্মিষ্ঠা ঘোষ চক্রবর্তী: ভরা গ্রীষ্মের ছুটি উপভোগ করতে তুষার পর্বত বা সমুদ্রকে ডেস্টিনেশন না করে একটু চিরহরিৎ-এর মাঝে  যেতেই পারেন। যেখানে আকাশ গিয়ে মিশেছে, তেমন একটা পাহাড়ের শান্ত নির্জন কোলে কয়েকটা দিন সফর করলে মন্দ তো হয়ই না। বরং বেশ অন্যরকম রোমাঞ্চে স্মৃতির ঝাঁপি পরিপূর্ণ হয়। পাহাড়, জঙ্গল, হ্রদ, চা-বাগান, কফি বাগানে ঘেরা মনোরম প্রকৃতির নিবিড় আলিঙ্গনে উপভোগ করতে কেরল সেরা জায়গা। কেরলের এমন একটা বাসভূমি ওয়ানাড জেলার কালপেট্টা শহর। গভীর জঙ্গল, চা-বাগান, কফি-বাগান আর পর্বত দিয়ে ঘেরা এই কালপেট্টা। এটি খুব জনপ্রিয় ট্যুরিস্ট স্পট। পশ্চিমঘাট পর্বতমালার কোলে এ এক অভিনব সফর।

  •  ১৯৮০-তে স্থাপিত ওয়ানাড হল কেরলের পার্বত্য জেলা।  কোঝিকোড় আর কান্নুড় জেলা দিয়ে ঘেরা ওয়ানাডের হেড কোয়ার্টার কালপেট্টা। যাকে ছোট্ট শৈলশহরও বলা চলে।
  • বেঙ্গালুরুর একদম কাছেই কালপেট্টা। তাই ওখান থেকে দু’ দিনের ছোট একটা ট্রিপ সেরে ফেলা যায়।
  • বানাসুর সাগর ড্যাম, এড্ডাকাল কেভস, সুচিপাড়া ওয়াটারফলস বেশ জনপ্রিয় দ্রষ্টব্য স্থান কালপেট্টা। এই জেলা
  • মরিচ, দারচিনি, চা, কফি ও অন্যান্য মশলার বৃহত্তম উৎপাদন স্থল।
  • সারা বছরই খুব মনোরম আবহাওয়া থাকে এখানে। পশ্চিমঘাটের পাহাড়ি রাস্তা, জনবসতি, অরণ্য মিলেমিশে একাকার।
  • এখানকার পুকোড়ে লেক অন্যতম ট্যুরিস্ট স্পট। জুন থেকে আগস্ট পর্যন্ত বর্ষা, সেই সময় বাদ দিলে বাকি সারা বছর এখানে স্বস্তির নিশ্বাস। এই লেক-এ প্যাডেল বোট, রো-বোটের ব্যবস্থা রয়েছে। ছোটদের আলাদা একটা খেলার জায়গা, অ্যাকোয়ারিয়াম সবমিলিয়ে পারিবারিক মুহূর্ত কাটানোর সেরা স্থান।
  • বানসুরা সাগর ড্যাম এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম আর্থ ড্যাম। এটি পাডিন জারাথারার কাছে অবস্থিত। দারুণ সুন্দর পরিবেশ। স্পিড বোটের ব্যবস্থা আছে এখানে। গাছপালার ফাঁকে বেঞ্চে বসে বানাসুরের রূপ খুব উপভোগ্য।
  • চেম্ব্রা পিক ট্রেক করতে যেতেই হবে ওয়ানাড-এ বেড়াতে এলে। ২,১০০ মিটার উঁচু। গোটা দিন লাগে ট্রেক সম্পূর্ণ করতে। কালপেট্টা থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত চেম্ব্রা পিক ওয়ানাড-এর সর্বোচ্চ স্থান। চেম্ব্রা পিক ট্রেক করতে হলে মেজপ্পির ফরেস্ট বিভাগের থেকে অনুমতি নিতে হয় ।
  • এডাক্কাল কেভস আরও একটা জনপ্রিয় দ্রষ্টব্য স্থান। ঐতিহাসিক পেন্টিং, পাথর খোদাইয়ের নিদর্শন রয়েছে গুহায়, কালপেট্টা থেকে ২৪ কিলোমিটার দূরে রয়েছে এই কেভ।
  • সুচিপাড়া ওয়াটারফল্‌স, যা কেরলের অন্যতম সুদৃশ্য ওয়াটার ফল্‌স। প্রকৃতিপ্রেমীদের জন্য প্রাণভরে নিশ্বাস নেওয়ার পাশাপাশি মুগ্ধ হওয়ার আদর্শ স্থান।
  • এমন বহু সাইটসিয়িং আপনাকে অপূর্ব উপলব্ধি দেবে। প্রকৃতির সঙ্গে নিবিড় করবে সম্পর্ক। গাড়িতে করে কালপেট্টার আশপাশের এইসব দ্রষ্টব্য স্থান ঘুরে আসতে পারেন।kalpetta

কীভাবে যাবেন

দমদম থেকে বিমানে বেঙ্গালুরু বা ট্রেনে বেঙ্গালুরু। তারপর সেখান থেকে বাসে পৌঁছে যেতে পারেন কালপেট্টা। রাতের দিকে এসি ভলভো, সেমি স্লিপার বাস পাবেন। এছাড়া মহীশূর থেকে কালপেট্টার বাস ধরে ঘুরে আসতে পারেন মহীশূর থেকে ওয়ানাড। ফিরে আসা গাড়িতেই।

কোথায় থাকবেন

কেরল ট্যুরিজমের হোটেল রয়েছে। এছাড়া প্রাইভেট হোটেল রয়েছে। কালপেট্টা, ওয়ানাড ভাই মিরি সর্বত্র পাবেন ভাল হোটেল ও থাকার সুব্যবস্থা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং