১ শ্রাবণ  ১৪২৬  বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শান্ত জলে যখন বৃষ্টির প্রথম ফোঁটা পড়ে, প্রকৃতি নেচে ওঠে প্রথম বর্ষার ছন্দে৷ মানুষ তৈরি করেছিল বর্ধমানে নাচন বাঁধ৷ তবে প্রকৃতি তা সাজিয়ে তুলেছে নিজের মনের মতো৷ কলকাতা থেকে মাত্র ১৮৮ কিলোমিটার দূরে বৃষ্টির মাদকতা নিয়ে আপনার জন্যই অপেক্ষা করছে সুন্দরী নাচন৷

12804632_854135491362034_3887691296288349877_n

কী দেখবেন :

  • অলস সকালে হাতছানি দিয়ে ডাকবে লেকের বিশাল জলাধার৷ লেকের জলেই ঘুরে বেড়ায় মাছ-মাছরাঙাদের দল৷
  • ফেরার কোনও তাড়া না থাকলে হারিয়ে যেতেই পারেন পাশের শাল-পিয়ালের ভিড়ে৷
  • বেলা বাড়লে কাছের গ্রামগুলিতে ঘুরে আসতে পারেন৷ চাইলে হতে পারেন ক্ষণিকের অতিথি৷
  • পাশেই ধর্ম ও ইতিহাসের মেলবন্ধনের সাক্ষী হয়ে রয়েছে বিখ্যাত গড় জঙ্গল৷
  • হাতে সময় থাকলে কেন্দুলি গ্রামে কবি জয়দেবের জন্মস্থানও দর্শন করে আসতে পারেন৷

734915_1155689181131246_5752724858105485807_n

কী করে যাবেন :

  • ট্রেনে করে গেলে নামতে হবে দূর্গাপুর স্টেশনে৷ সেখান থেকে নাচন যাওয়ার জন্য ট্যাক্সি ভাড়া পাওয়া যায়৷
  • কলকাতা থেকে অনেক বাসও যায় দূর্গাপুরে৷
  • নিজস্ব গাড়ি নিয়ে গেলে ১৯ নম্বর জাতীয় সড়ক হয়ে আগে দূর্গাপুর পৌঁছতে হবে৷ তারপর সেখান থেকে নাচনের দিকে গাড়ি ঘুরিয়ে নিতে হবে৷

81_big

কোথায় থাকবেন :

দুঃসাহসিক অভিযান যাদের পছন্দ, তাঁদের কাছে থাকার আদর্শ স্থান নাচন নেচার বাংলো৷ একেবারে ফরেস্ট বাংলোতে থাকার মতোই৷ রান্নার সরঞ্জাম অতিথিদেরই নিয়ে যেতে হবে৷ সব বাংলোর রাঁধুনীকে দিয়ে দিতে হবে৷ তিনিই রান্না করে দেবেন৷

তবে, বাকি সব ব্যবস্থা যে কোনও ফোর স্টার হোটেলের মতোই৷ সবচেয়ে আকর্ষণীয় নাচন নেচার বাংলোর এক চিলতে বারান্দা৷ যেখান থেকে উপভোগ্য গোটা নাচনের সৌন্দর্য৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং