৭  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভারতীয়দের জন্য রামায়ণের স্মৃতিবিজড়িত স্থানে তৈরি হবে পর্যটন কেন্দ্র, ঘোষণা শ্রীলঙ্কার

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: August 9, 2022 5:04 pm|    Updated: August 9, 2022 5:04 pm

Sri Lanka to promote Ramayana trails as tourist attraction, says Sanath Jayasuriya | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শ্রীলঙ্কায় (Sri Lanka) রামায়ণের স্মৃতিবিজড়িত স্থানগুলিতে পর্যটন বাড়াতে উদ্যোগ নেওয়া হবে, এমনটাই জানানো হয়েছে। সেদেশের পর্যটন বিভাগের সদ্য নিযুক্ত ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর এবং প্রাক্তন ক্রিকেটার সনৎ জয়সূর্য এই কথা ঘোষণা করেছেন। আর্থিক সংকটে বেহাল দশা ভারতের প্রতিবেশী দেশটির। এহেন পরিস্থিতিতে পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করতেই রামায়ণের স্মৃতিবিজড়িত জায়গাগুলিকে সেদেশের অন্যতম আকর্ষণ হিসাবে তুলে ধরার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সোমবার ভারতীয় হাই কমিশনার গোপাল বাগালের সঙ্গে একটি বৈঠকের পরে এই কথা জানিয়েছেন জয়সূর্য।

বৈঠকের পরে ভারতীয় হাই কমিশনের তরফে একটি টুইট করা হয়। সেখানেই জয়সূর্যের এই সিদ্ধান্তের কথা তুলে ধরা হয়েছে। সেই টুইটের উত্তরে ভারতীয় হাই কমিশনারকে ধন্যবাদ জানিয়ে টুইট করেছেন জয়সূর্যও। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক টুইটে বলেছেন, “ভারতীয় পর্যটকদের প্রতি শ্রীলঙ্কার আকর্ষণ বৃদ্ধি করতে রামায়ণের (Ramayana) স্মৃতিবিজড়িত স্থানগুলি আরও উন্নত করে তোলা হবে।”

[আরও পড়ুন: শিক্ষা এবং স্বাস্থ্যের উন্নতি ‘খয়রাতি’ নয়, সুপ্রিম কোর্টে কেন্দ্রকে পালটা আপের]

২০০৮ সালে ভারত এবং শ্রীলঙ্কা একটি উদ্যোগ নিয়েছিল, রামায়ণের ঐতিহ্যকে বাঁচিয়ে রাখতে একসঙ্গে কাজ করবে দুই দেশ। প্রসঙ্গত, শ্রীলঙ্কায় ৫২টি জায়গার সঙ্গে রামায়ণের নানা ঘটনা জড়িয়ে রয়েছে। ভারতের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সাহিত্যের মধ্যে অন্যতম হল রামায়ণ। ফলে ভারত থেকে বহু পর্যটকই শ্রীলঙ্কায় গিয়ে রামায়ণের স্মৃতিবিজড়িত স্থানগুলি পরিদর্শন করতে চান। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, শ্রীলঙ্কার বিদেশি পর্যটকদের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে ভারতীয়রা।

এই নিয়ে দ্বিতিয়বার ভারতীয় হাই কমিশনারের সঙ্গে বৈঠক করলেন জয়সূর্য (Sanath Jayasuriya)। চলতি বছরের এপ্রিল মাসেই বাগালের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন তিনি। আর্থিক বিপর্যয়ের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ করার অনুরোধ জানিয়ে বৈঠকে বসেছিলেন জয়সূর্য। বিপুল পরিমাণে বিদেশি ঋণ নেওয়ার ফলে ভেঙে পড়েছে দ্বীপরাষ্ট্রের অর্থনীতি। প্রতিবেশী দেশের এহেন দুর্দিনে প্রায় চারশো কোটি ডলারের আর্থিক সহায়তা পাঠানো হয়েছে ভারতের তরফে।

[আরও পড়ুন: রক্ষাকারীদের জন্য ‘রক্ষাবন্ধন’! সীমান্তে জওয়ানদের জন্য ৫০০০ রাখি পাঠালেন বীরভূমের ‘বোন’রা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে