৪ মাঘ  ১৪২৫  শনিবার ১৯ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

তিতাস রায় বর্মন: এতদিনে চলে আসার কথা, কিন্তু এল না৷ উত্তরে চলে এসেছে, কিন্তু দক্ষিণে এখনও এল না৷ নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে গেলেও কলকাতাবাসী আর তেমন ভাবে বৃষ্টিতে ভেজার সুযোগ পেল কই?  বৃষ্টিতে ভেজার সুযোগ যবে পাবেন, তবে পাবেন৷ কিন্তু, ইচ্ছে মতো বেরিয়ে পড়ার সুযোগ তো হামেশাই আছে৷ কারণ ইচ্ছে থাকলেই উপায় হয়৷

আর উপায় হলে বাঙালির সবচেয়ে পছন্দের স্থান উত্তরবঙ্গ৷ যেখানে ছাদের ধারের রেলিংয়ের নস্টালজিয়ায় সেখানে রয়েছে সাধের শ্রীখোলা৷ দার্জিলিঙের এই ছোট্ট গ্রামে সচরাচর পর্যটকরা যান না৷ তবে ট্রেকিং করতে যারা যান শ্রীখোলার সৌন্দর্যে ক্ষণিকের জন্য হলেও থমকে যান৷

8550429-Srikhola-0

কী দেখবেন-

  • অতিথিদের স্বাগত জানায় শান্ত সুন্দর শ্রীখোলা নদী৷
  • যার উপরে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে দু’শো বছরের ঝুলন্ত ব্রিজ৷
  • সবুজে ঘেরা এই গ্রামে ক্ষণিকের বিশ্রাম নতন অক্সিজেন জোগায় যাযাবর মনে৷

কীভাবে যাবেন –

  • এনজেপি, শিলিগুড়ি, বাগডোগরা বা দার্জিলিং থেকে গাড়ি ভাড়া নিয়ে যাওয়া যায়৷
  • শিলিগুড়ি বা দার্জিলিং মোড় থেকে শেয়ারে জিপও পাওয়া যায়৷ তবে তা রিমবিক পর্যন্তই যায়৷ একটু বেশি পয়সা দিলে তবেই শ্রীখোলায় ছেড়ে দেয়৷

কোথায় থাকবেন –

শ্রীখোলা নদীর উপরে জিটিএ লজ রয়েছে৷ আগে থেকে সেখানে ঘর বা ডর্মিটোরি বুক করে যেতে পারেন৷ এছাড়াও রয়েছে হোটের শোভরাজ ও গোপর্মা লজ৷ থাকার জায়গা তো সেখানে পাবেনই, আপনার ট্রেকিংয়েরও ব্যবস্থা করে দেবে তাঁরা৷

কী খাবেন –

খাবারের ভ্যারাইটি পাওয়া এখানে মুশকিল৷ খানিক খরচসাপেক্ষও বটে৷ মূলত নিরামিষ খাবার পাওয়া যায়৷ তবে ইয়াক-এর মাংস পাওয়া যায় কখনও কখনও৷ আর হ্যাঁ, মিলবে রডোডেনড্রন ওয়াইন৷

মনে রাখবেন –

এখানে ফোনের টাওয়ার পাওয়া দুষ্কর৷ নেপালের সীমান্ত এলাকা বলে, যে কোনও সময় ইন্টারন্যাশনাল সিগনাল ধরে নেয়৷ গোটা রুটেই ইলেকট্রিকের সমস্যা৷ সোলারে চলে বলে ফোন চার্জ বা ক্যামেরা চার্জ দেওয়া যায় না৷ রাতেও ঘরে থাকবে সামান্য পাওয়ারের আলো৷ সঙ্গে পরিচয়পত্র রাখা অবশ্য কর্তব্য৷

bridgw-at-srikhola

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং