৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী। অভিনন্দনকে অভিনন্দন জানাচ্ছে গোটা দেশ। কেউ সোশ্যাল মিডিয়ায় সাহসী বায়ুসেনা পাইলটের ছবি এঁকে পোস্ট করছেন, তো কোথাও সদ্যোজাতর নাম রাখা হচ্ছে তাঁর নামে। এমন আবহে অভিনন্দন ঢুকে পড়লেন মহিলাদের অন্দরমহলেও। কারণ এবার শাড়িতে ফুটিয়ে তোলা হল তাঁর বীরগাথা।

[ভারতের মিরাজ না পাকিস্তানের F-16, আকাশ যুদ্ধে কে বেশী শক্তিধর?]

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় প্রাণ গিয়েছিল চল্লিশেরও বেশি ভারতীয় সিআরপিএফ জওয়ানের। সেই ঘটনার ঠিক ১২ দিনের মাথায় পাক অধিকৃত কাশ্মীরে এয়ারস্ট্রাইক করে ভারতীয় বায়ুসেনা। ১২টি মিরাজ ২০০০ ফাইটার জেটের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে ধ্বংস হয় একাধিক জঙ্গিঘাঁটি। এরপর পাকিস্তানকে পালটা আক্রমণের সময় পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ভেঙে পড়েছিল অভিনন্দনের যুদ্ধবিমান। তখনই তাঁকে আটক করে পাকসেনা। তারপর টানা ৫৮ ঘণ্টার টানাপোড়েন শেষে শুক্রবার বুক চিতিয়ে দেশে ফেরেন অভিনন্দন বর্তমান। ভারতে পা রাখার পর থেকেই তাঁকে ঘিরে উৎসবে মেতেছে গোটা দেশ। আর সময় ও পরিস্থিতির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অভিনব ব্যবসায়িক ফন্দি এঁটেছেন সুরাটের একশ্রেণির ব্যবসায়ী। বায়ুসেনার পাইলটকে অনন্য সম্মান দিতে এবং তাঁর বীরগাথা চিরস্মরণীয় করে রাখতে তাঁরা বাজারে এনেছেন অভিনন্দন শাড়ি। না, শুধুই সাহসী পাইলটের মুখ নয়, সেখানে ভারতীয় বায়ুসেনার এয়ার স্ট্রাইক থেকে অভিনন্দনের সাহসী অভিযানের নানা মুহূর্ত ধরা পড়েছে। তবে নেহাত ব্যবসার স্বার্থে নয়, অন্নপূর্ণা মিলের ব্যবসায়ীরা জানাচ্ছেন, দেশের বীর সন্তানকে সম্মান জানাতেই এই প্রয়াস। তাঁদের এমন উদ্যোগ প্রশংসিত হচ্ছে দেশজুড়ে।

[সাইবার ক্রাইম রোধে প্রচারের হাতিয়ার ভারতের বীরপুত্র, কীভাবে জানেন?]

এই প্রথমবার অবশ্য নয়। এর আগে পুলওয়ামায় সন্ত্রাস হামলার পরও সুরাটের ব্যবসায়ীরা শাড়ি তৈরির ক্ষেত্রে থিম হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন ভারতীয় জওয়ানদের। সেসব শাড়ি বিক্রির অর্থ তুলে দেওয়া হয়েছিল শহিদ পরিবারের হাতে। এবারও তাঁদের প্রয়াসকে কুর্নিশ জানাচ্ছেন ক্রেতারা। 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং