BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

আচমকা স্তব্ধ হোয়াটসঅ্যাপ, বিশ্বজুড়ে হয়রানি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 3, 2017 9:21 am|    Updated: November 3, 2017 9:43 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় এক ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর অবশেষে ফের চালু হল হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা। শুক্রবার দুপুরে গোটা বিশ্বে আচমকাই থমকে যায় এই জনপ্রিয় মেসেজিং পরিষেবা। বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে অনেকেই টুইট করে কিংবা ফেসবুকে পোস্ট করে হোয়াটস অ্যাপ না চলার কথা জানাতে থাকেন। কোথাও কাজ করছিল না এই হোয়াটস অ্যাপ পরিষেবা। পাঠানো যাচ্ছিল না ছবি বা মেসেজ। জমা পড়তে থাকে এরকম একের পর এক অভিযোগ।

[পাণ্ডবদের জতুগৃহ খননে অনুমতি এএসআইয়ের]

বিশ্বে ১০০ কোটিরও বেশি মানুষ হোয়াটসঅ্যাপের গ্রাহক। ১৮০টি দেশে ব্যবহৃত হয় জনপ্রিয় এই সোশ্যাল সাইটটি। ছবি, মেসেজ কিংবা ভিডিও চ্যাট। সবই করা যায় এখানে। এছাড়াও গ্রাহকরা পেয়ে থাকেন ভয়েস এবং ভিডিও কলের সুবিধা। দীর্ঘদিন ধরেই ফেসবুক, টুইটারের মতো সোশ্যাল সাইটের পাশাপাশি জনপ্রিয় এই হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবাও। কিন্তু এদিন সেটি আচমকা কাজ বন্ধ করে দেওয়ায় কোটি কোটি অনুরাগী ক্ষোভে ফেটে পড়েন। ছবি কিংবা মেসেজ না পাঠাতে পেরে অনেকেই অভিযোগ করতে থাকেন। ক্ষোভ প্রকাশের জন্য তাঁরা বেছে নেন টুইটারকে। সেখানে অনেকে লিখেছেন, সম্ভবত কোনও যান্ত্রিক কারণে হোয়াটসঅ্যাপ কাজ করছে না। ভারত ছাড়া, ব্রিটেন, আমেরিকা, জার্মানি, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া থেকেও ইউজাররা টুইট করে অভিযোগ জানাতে থাকেন। কেউ কেউ তো সাইবার হামলার শিকার হয়েছেন কি না, সেটাও জানতে চেয়েছেন। টুইটারে #WhatsappDown লিখে অনেকেই নিজের অভিযোগ জানাতে থাকেন। যদিও এক ঘণ্টা পরেই ফের চালু হয় পরিষেবা। কিন্তু এভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেক ব্যবহারকারীই রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

[কাশ্মীরে বিজেপির যুব নেতাকে গলা কেটে খুন করল জঙ্গিরা]

যদিও ঠিক কী কারণে বন্ধ হয়েছে পরিষেবা, সেটা জানায়নি হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। তবে মনে করা হচ্ছে সার্ভারে কোনও সমস্যা হওয়ার কারণেই বিশ্বজুড়ে ক্র্যাশ করেছিল হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা। প্রসঙ্গত, বর্তমানে জনপ্রিয় এই সোশ্যাল সাইটটি ফেসবুকের অন্তর্গত। বছরখানেক আগেই মার্ক জুকারবার্গের সংস্থা কিনে নেয় জনপ্রিয় এই ম্যাসেজিং পরিষেবাকে। তবে হোয়াটসঅ্যাপ এভাবে হোঁচট খেওয়ায় নেটিজেনদের একাংশ বেজায় বিরক্ত।

 

তবে অনেকেই আবার মজা করতে শুরু করেন। কেউ বলেন, আমরা আবার আদিম যুগে ফিরে গিয়েছি। কেউ টুইট করেন আধার কার্ড নিয়ে। ‘অনেকেই এখন হোয়াটসঅ্যাপের সঙ্গে আধার কার্ড লিঙ্ক করানোর অপশন খুঁজছেন সেটিংসে গিয়ে।’ এমনকী মজার টুইট করেন চেতন ভগতও। দেখে নিন সেই মজার টুইটগুলিও:

 

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement