২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শনিবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শনিবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

নব্যেন্দু হাজরা: বাসে খুব ভিড়। দাঁড়ানোর জায়গা নেই। অথচ যাত্রী তুলতে বাস তো স্টপেজে দাঁড়াবেই। তাতে বাসের ভেতরে থাকা যাত্রীদের সমস্যা আরও বাড়বে। কিন্তু এবার সেই যাত্রীদেরই আগে থেকে সতর্ক করে দিতে পারবেন আপনি। আজ, বুধবার থেকেই নতুনভাবে আসছে পথদিশা অ্যাপ। যার মাধ্যমে যাত্রীরা আগে থেকে জেনে যেতে পারবেন, বাসের পরিস্থিতি। বাসে থাকা যাত্রীরাও তা জানিয়ে ভিড় এড়াতে পারবেন। কীভাবে?

পথদিশা অ্যাপে নতুন একাধিক ফিচার আসছে। বাসের ভিড়ের ক্ষেত্রে থাকছে একটি অপশন। সেখানে তিনটি বোতাম থাকছে। লাল, সবুজ, হলুদ। বাসে বসে থাকা যাত্রী লাল বোতামে ক্লিক করলে পরবর্তী স্টপেজের যাত্রীরা জেনে যাবেন, ওই বাসে ভিড় আছে। সবুজে ক্লিক করলে বসার জায়গা আছে বোঝা যাবে। আর হলুদে করলে বাসের ভিতরে দাঁড়ানোর জায়গা আছে, সেটা জানা যাবে।

[ আরও পড়ুন: মরা মাছ-কচ্ছপ নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে, রবীন্দ্র সরোবরে দূষণ নিয়ে সাফাই মেয়রের ]

আজ থেকে সমস্ত সরকারি বাসে এই পরিষেবা চালু হয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি পথদিশা অ্যাপের আওতায় চলে আসছে ই-বাসও। এই বাসের আলাদা কালার কোড থাকবে। যার ফলে যাত্রীরা খুব সহজেই অন্য বাসের থেকে এই বাসকে আলাদা করতে পারবেন। নতুনভাবে আসছে ফেরি পরিষেবাও। ফেরিতে রুট দেখিয়ে লঞ্চের সময় এবং অবস্থান দেখা যাবে। টালা ব্রিজ ভাঙার কারণে বরানগর কুঠিঘাট থেকে ফেয়ারলি পর্যন্ত প্রচুর‌ সংখ্যক ভেসেল চালু হয়েছে। বহু যাত্রী যাতায়াত করেন এখন নদীপথে। ফলে তাঁরাও উপকৃত হবেন। তাছাড়া এই অ্যাপ মানুষের ব্যবহারের উপযোগী করে আরও সহজ করা হচ্ছে।

কোন বাস কোথায় আছে! কতক্ষণে তা স্টপেজে আসবে এসব দেখতেই যাত্রী সুবিধায় চালু হয়েছিল পথদিশা অ্যাপ। এমনকী, কোন রুটে কী কী বাস যায়, তাও দেখা যায় এই অ্যাপে। গোটা দেশে যা প্রশংসিত হয়েছে। কিন্তু এই অ্যাপে প্রথম দিকে দেখা যেত না পুরনো বাস। পরে সেই বাসকেও এই আওতায় আনা হয়। পুরনো সব সরকারি বাসেই বসানো হয়েছে ‘ভেহিক্যালস লোকেশন ট্র‌্যাকিং ডিভাইস।’

সরকারি নিগমে এখনও প্রায় ৪০০ পুরনো বাস আছে। এই বাসগুলিকেও অ্যাপের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। দপ্তরের আধিকারিকরা জানাচ্ছেন, এই যন্ত্র বসলে একদিকে যেমন যাত্রীদের সুবিধা হবে, তেমনই বাস ট্র‌্যাক করতে সুবিধা হবে নিগমেরও। অনেক সময়ই চালকরা বাস রুটে না নিয়ে শর্ট কাটে চালান। তাতে যাত্রী সংখ্যা কমে যায়। ক্ষতি হয় নিগমের। এক্ষেত্রে এই বাস ট্র‌্যাকিং সিস্টেম লাগালে ধরা পড়ার আশঙ্কায় চালকরা শর্ট রুটে চালানো বন্ধ করতে বাধ্য হবেন। আর পথদিশা নতুন ফিচার নিয়ে হাজির হলে যাত্রীদেরও অনেক সুবিধা হবে।

[ আরও পড়ুন: আগামী বছর সরস্বতী পুজো, দোল ও ছটে টানা ৪ দিন ছুটি রাজ্যের কর্মীদের ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং