BREAKING NEWS

১৪ কার্তিক  ১৪২৭  শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

OMG! ‌স্রেফ বিয়ার খাওয়ার জন্য ৭৯ বছরের বৃদ্ধের জরিমানা হল ৪‌ লক্ষ ৭৪ হাজার টাকা!

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 4, 2020 5:57 pm|    Updated: October 4, 2020 5:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুরাপ্রেমীদের অনেকের পছন্দের পানীয়ের মধ্যে প্রথমেই থাকে বিয়ার। বিশেষ করে ইউরোপের (Europe) দেশগুলিতে মূলত বিয়ার পানেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন বাসিন্দারা। কিন্তু সেই পছন্দের পানীয় খেতে গিয়েই যদি পুলিশের হাতে আটক হয়ে জরিমানা দিতে হয়! তাহলে? হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও এমনই অভিজ্ঞতা হয়েছে ব্রিটেনের (United Kingdom) এক ব্যক্তির। তাও আবার হেনরি ম্যাকার্থি নামে ওই ব্যক্তির বয়স ৭৯ বছর। ৫০০০ হাজার পাউন্ড অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় ৪.‌৭৪ লক্ষ টাকা জরিমানা দিতে হবে তাঁকে। যদিও এক্ষেত্রে ঘটনায় পুরোপুরি দোষীও তিনিই। একেবারে দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো কাজ করার জন্যই ওই টাকা জরিমানা করা হয়েছে তাঁকে। 

[আরও পড়ুন:‌ ১০ বছরেও ডেটিং অ্যাপে মেলেনি বান্ধবী, নিজেকেই ‘‌বিক্রি’র বিজ্ঞাপন দিলেন দুঃখে কাতর ব্যক্তি]

করোনা (Covid-19) সংক্রমণে বিশ্বের ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম ব্রিটেন। বর্তমানে ধীরে ধীরে সবকিছু স্বাভাবিক হওয়ার পথে এগোচ্ছে। তবে সংক্রমণ যাতে না ছড়ায়, সেজন্য জারি রয়েছে একাধিক বিধিনিষেধ। জানা গিয়েছে, হেনরি নিজেও আক্রান্ত ছিলেন করোনায়। নিয়মমাফিক তাঁর সেলফ আইসোলেশনে থাকার কথা ছিল। কিন্তু বিয়ার খাওয়ার ‘‌লোভ’ সামলাতে না পেরে বেরিয়ে পড়েন বাড়ি থেকে। একেবারে ক্র্যাবি জ্যাক নামে একটি পাবে গিয়ে বিয়ার কিনে তা খেতেও শুরু করেন হেনরি। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত ধরা পড়ে যান। এরপর নিজের দোষ স্বীকার করলেও আদালত তাঁকে ওই টাকা জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

[আরও পড়ুন:‌ জলের নিচেই নাচের আসর, বলিউড গানে জমিয়ে নেচে নেটিজেনদের মুগ্ধ করলেন ভারতীয় যুবক]

এই প্রসঙ্গে পুলিশ জানিয়েছে, হেনরির সেলফ আইসোলেশনে থাকার কথা ছিল। তিনি নিয়ম মানছেন কি না দেখতে হঠাৎই তাঁর বাড়ি গিয়েছিল পুলিশ। কিন্তু সেখানে ওই ব্যক্তির গাড়ি দেখতে না পেয়ে সন্দেহ হয় আধিকারিকদের। এরপরই খোঁজ শুরু হয়। দেখা যায়, একটি বিয়ারের পাবের সামনে সেটি রয়েছে। এরপরই হাতেনাতে পাব থেকে ওই ব্যক্তিকে পাকড়াও করেন আধিকারিকরা। তারপরই তাঁকে এই সাজা শোনানো হল। একটি বিয়ারের জন্য প্রায় পাঁচ লক্ষ টাকা জরিমানা!‌‌

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement