BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভাড়ায় পাওয়া যায় কনস্টেবল থেকে ইন্সপেক্টর, ৩৩ হাজার টাকা দিলে মিলবে আস্ত থানাও!

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: August 13, 2022 8:06 pm|    Updated: August 13, 2022 8:51 pm

A Row over the law that puts police on rent in Kerala | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কনস্টেবল থেকে ইন্সপেক্টর, সব ভাড়া পাওয়া যায়। এমনকী চাইলে ভাড়া নিতে পারেন আস্ত থানাও। নকল পুলিশের কথা হচ্ছে না। একেবারে খাঁটি জিনিস। কেরলে (Kerala) যে পুলিশ ভাড়া পাওয়া তা রাজ্যের কিছু মানুষের জানা থাকলেও সম্প্রতি গোটা দেশে সে খবর ছড়িয়ে পড়েছে। বিষয়টি জেনে চমকে গিয়েছেন অনেকেই। শুরু হয়েছে বিতর্ক। কেমন সেই দরদস্তুর?

৭০০ টাকায় পাওয়া যায় কনস্টেবল, এএসআই পাবেন ১৮৭০ টাকায়। ৩৩ হাজার টাকা খরচ করলে পুরো থানা আপনার বাড়িতে হাজির হতে পারে। তবে দিন আর রাতের ভাড়ার মধ্যে কিন্তু পার্থক্য রয়েছে। যেমন একজন কনস্টেবলের রাতের ভাড়া কিন্তু ১,০৪০ টাকা। এএসআই-এর রাতের দর ২,২১০ টাকা।

[আরও পড়ুন: বিজেপি বিরোধী জোটে তৃণমূলকে চায় সিপিআই(এমএল)লিবারেশন, বার্তা দীপঙ্কর ভট্টাচার্যর]

কেউ কেউ ভাবতে পারেন বিষয়টা কেবলমাত্র নিচের তলার কর্মীদের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। না, উচ্চপদস্থ আধিকারিকদেরও ভাড়ায় পাওয়া যায়। তবে স্বাভাবিকভাবেই সেক্ষেত্রে বেশি টাকা গুনতে হবে আপনাকে। কেরল পুলিশ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন সূত্রে জানা গিয়েছে, একজন ইন্সপেক্টরের দিন প্রতি দর ২,৫৬০ টাকা। রাত হলে সেই ভাড়া ৪,৩৬০ টাকা। সার্কল অফিসারের দিনের ভাড়া ৩,৭৯৫ টাকা এবং রাতের ভাড়া ৪,৭৫০ টাকা।

এছাড়াও ৬,৯৫০ টাকার বিনিময়ে ভাড়ায় পাওয়া যায় পুলিশ বিভাগের স্নিফার ডগ পর্যন্ত। একটি ওয়্যারলেস সেটের ভাড়া ২,৩১৫ টাকা। এমনকী কারও যদি ফিঙ্গারপ্রিন্ট বিশেষজ্ঞের প্রয়োজন হয় তবে ৬,০৭০ টাকার বিনিময়ে তাও পেতে পারেন আপনি।

[আরও পড়ুন: ‘ভিটামিন বিহারে’ চাঙ্গা কংগ্রেস, পালের হাওয়া গোটা দেশে ছড়িয়ে দিতে শুরু পরিকল্পনা]

কেরল পুলিশ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের বক্তব্য, পুলিশ ভাড়া দেওয়ার বিষয়টি নতুন নয়। ছবির শ্যুটিং, বিয়ে, জন্মদিনের অনুষ্ঠানে নিরাপত্তার জন্য পুলিশ ভাড়া নেওয়ার রেওয়াজ রয়েছে কেরলে। এবং এসব ক্ষেত্রে পদমর্যাদা অনুযায়ী দর ঠিক হয়। তবে সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে পুলিশের অন্দরে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। অনেকেই পুলিশ ভাড়া দেওয়া নিয়ে আপত্তি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, কেরল পুলিশ আইনে স্পষ্ট করে বলা রয়েছে, কোনও ব্যক্তি পয়সা দিয়ে অথবা বিনামূল্যে পুলিশ ভাড়া নিতে পারেন না। তাঁর পুলিশি সুরক্ষার প্রয়োজন হলে প্রশাসন তা বরাদ্দ করবে নির্দিষ্ট প্রশাসনিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে। সব মিলিয়ে পুলিশ ভাড়া দেওয়া নিয়ে দক্ষিণের এই রাজ্যে বিতর্ক চরমে উঠেছে।   

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে