BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

পাত্র অপছন্দের, বিয়ে ভাঙতে বাবা চেঁচিয়ে বললেন, ‘মেয়ে করোনা পজিটিভ’

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 25, 2020 1:04 pm|    Updated: July 25, 2020 1:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিজের পছন্দে বিয়ে করতে চেয়েছিল মেয়ে। তা একেবারে নাপসন্দ বাবার। কিন্তু মেয়ে তো সাবালিকা, বিয়ে আটকাবেন কী করে? তাই মেয়ের রেজেস্ট্রি আটকাতে অদ্ভুত এক ফন্দি আঁটলেন বাবা। ১০০ শতাংশ কাজও করল তাঁর সেই ফন্দি। শেষপর্যন্ত করোনার (Corona Virus) দোহাই দিয়ে মেয়ের বিয়ে সাময়িকভাবে রুখে দিলেন মধ্যপ্রদেশের ওই ব্যক্তি। 

মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) ধান্ডওয়া প্রদেশের ঘটনা। গত সোমবার এক ১৯ বছরের যুবতী তাঁদের প্রেমিক ও বান্ধবীদের নিয়ে জেলা আদালতে হাজির হয়েছিলেন। ম্যারেজ রেজিস্ট্রার বীরেন্দ্র ভার্মার কাছে প্রয়োজনীয় নথি জমা করছিলেন। সেই সময় আদালত চত্বরে হাজির হন মেয়েটির বাবা। তিনি ম্যারেজ রেজিস্ট্ররকে জানান, ওই মেয়েটচি করোনা আক্রান্ত। ব্যস আর যায় কোথায়! সঙ্গে সঙ্গে মেয়েটিকে বাড়ি পাঠিয়ে দেন ওই বীরেন্দ্র ভার্মা। মজার বিষয় হল মেয়েটির করোনা পরীক্ষা হলেও তার রিপোর্ট এখনও আসেনি। আগামী ১৪ দিন তাঁকে হোম আইসোলেশনে রাখা রয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় স্বাস্থ্য দপ্তর। 

[আরও পড়ুন : মানবিকতার দৃষ্টান্ত, পাখির বাসা বাঁচাতে টানা ৩৫ দিন অন্ধকারে তামিলনাড়ুর গোটা গ্রাম]

ঘটনা প্রসঙ্গে বীরেন্দ্র ভার্মা জানান, “দুজনেই সাবালক-সাবালিকা। তাঁরা বিয়ে করবে বলে আমার কাছে এসেছিলেন। কিন্তু মেয়েটির পরিবারকে দেখে মনে হল তাঁরা বিয়েটিকে সমর্থন করে না। তাই হয়তো মেয়েটিকে করোনা আক্রান্ত প্রমাণিত করে বিয়েটা কিছুদিনের জন্য পিছিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন।” তিনি আরও বলেন, “মেয়েটি করোনা আক্রান্ত শোনার পর আমাদের আর কিছু করার ছিল না। তাঁকে বাড়ি ফিরে যেতে বলি। আদালতের কর্মীরাও বাড়ি ফিরে যান।” এই ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই মেয়েটির বাবাক বুদ্ধির প্রশংসা করছেন নেটজনতা। 

[আরও পড়ুন : OMG! সাংবাদিকের লাইভ চ্যাটের মধ্যেই হেঁটে চলে গেলেন নগ্ন স্ত্রী! ভিডিও ভাইরাল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement