১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাস চালানোর সময় হেলমেট না পরায় চালকের নামে জরিমানার চালান কাটার অভিযোগ উঠল। বিষয়টি জানতে পেরে অবাক হয়ে গিয়েছেন ওই বাসটির মালিক। হতবাক করা এই ঘটনাটি ঘটেছে নয়ডায়।

[আরও পড়ুন: প্রবল বৃষ্টি ও বন্যার জেরে বিপর্যস্ত মধ্যপ্রদেশ, মৃত ২২৫]

এপ্রসঙ্গে ওই বাসটির মালিক নিরঙ্কর সিং জানান, তাঁদের ট্রান্সপোর্টের ব্যবসায় মোট ৪০ থেকে ৫০টি বাস আছে। তাঁর ছেলে সেই ব্যবসা দেখাশোনা করেন। মূলত নয়ডা ও গ্রেটার নয়ডা এলাকায় থাকা স্কুল ও কলেজগুলিতে ব্যবহার হয় ওই বাসগুলি। গত ১১ সেপ্টেম্বর অনলাইনে জরিমানার ওই চালানটি এসেছিল। তবে শুক্রবার তা চোখে পড়ে তাঁর অফিসের এক কর্মচারীর। আর তারপরই বিষয়টি জানাজানি হয়। মনে হয় ভুল করে এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন পরিবহণ দপ্তরের কর্মচারীরা। এখন আদালত যদি মনে করে তাহলে জরিমানা দিতে কোনও অসুবিধা নেই। তবে এই ঘটনা একটি গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরের ব্যর্থতাই প্রমাণ করে। ওখানে প্রতিদিন হাজার হাজার চালান ইস্যু হয়। কিন্তু, এই ঘটনার পর সেগুলির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

তিনি আরও বলেন, ‘এই বিষয়টি নিয়ে আমি পরিবহণ দপ্তরের আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলব। আর প্রয়োজন পড়লে আদালতেরও দ্বারস্থ হব।’

[আরও পড়ুন: এই গ্রামে একসঙ্গে বাস করে সাপ ও মানুষ! কোথায় জানেন?]

এপ্রসঙ্গে নয়ডা ট্রাফিক পুলিশের এক কর্তা জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যদি কোনও ভুল থাকে সেটি সংশোধন করা হবে। তবে জরিমানার ওই চালানটি নয়ডা ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে পাঠানো হয়নি। পরিবহণ দপ্তরের এক আধিকারিক ইস্যু করেছিলেন। তবে ওই বাসটিকে আগেও মোট চারবার সিট বেল্ট সংক্রান্ত আইন ভাঙার জন্য জরিমানা করা হয়েছে।

তবেই এই কথা শুনে চটে উঠেছেন বাস মালিক নিরঙ্কর সিং। তাঁর কথায়, এটা যদি সিট বেল্ট সংক্রান্ত নিয়ম ভাঙার জন্য পাঠানো হয় তাহলে তো সেটা উল্লেখ করা থাকবে। কিন্তু, জরিমানার অনলাইন চালানে সিট বেল্ট নয় বরং হেলমেট না পরার কথা লেখা ছিল। যদিও আমাদের তরফে কোনও ভুল থাকে তাহলে আমরা জরিমানা দেব। কিন্তু, তা সত্যি হতে হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং