৮ ফাল্গুন  ১৪২৬  শুক্রবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রচুর টাকা ঋণ হয়ে গিয়েছিল কেরলের কান্নুরের পুরুনান রাজনের। ভেবে কূল পাচ্ছিলেন না কীভাবে ওই ঋণ শোধ করবেন তিনি। তাই বাধ্য হয়ে ব্যাংক থেকে লোন নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। লোন নিতে যাওয়ার পথেই কাটেন লটারি। তাতেই মিলল দিশা। ওই লটারির সৌজন্যে এখন ১২ কোটি টাকার মালিক পুরুনান। আর্থিক সমস্যা মেটায় বেজায় খুশি ওই ব্যক্তি।

একেই বলে ভাগ‌্য। লটারির টিকিট কেনার অভ‌্যাস ছিলই। আগেও বহুবার টিকিট কেটেছিলেন। সামান‌্য টাকাও পেয়েছিলেন। কিন্তু সেই লটারির টিকিট যে আবার ভাগ‌্য এতটা বদলে দেবে, তা হয়তো কল্পনাও করেননি কেরলের কান্নুরের পুরুনান রাজন। একধারে তিনি ছিলেন ঋণভারে জর্জরিত। সেই টাকা মেটানোর জন‌্য কিছুদিন আগেই ব‌্যাংক থেকে ঋণ নিতে যাচ্ছিলেন। যাওয়ার পথেই লটারির টিকিট কেটে ফেলেছিলেন তিনি। কখনও ভাবেননি সেই টিকিট তাঁর কাছে এত ‘বড়’ পুরস্কার এনে দেবে।

[আরও পড়ুন: শক্তি যুগিয়েছে নারকেল আর বৃষ্টির জল, উত্তাল মাঝসমুদ্র থেকে ফিরলেন ৪ পর্যটক]

সোমবার সেই লটারির রেজাল্ট বেরোতেই চমকে যান পুরুনান। প্রথম পুরস্কার ‌১২ কোটি টাকা পেয়েছেন তিনি। আর তা জানার পরই আনন্দে উদ্বেলিত। লটারি জেতার পর তিনি জানিয়েছেন যে, এবার সমস্ত ঋণ শোধ করা যাবে। একই সঙ্গে সন্তানের শিক্ষার খরচের ব‌্যাপারে অনেকটা নিশ্চিত হলেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। পুরুনান জানিয়েছেন, পুরস্কার অর্থের পুরোটা নয়, মোটামুটি প্রায় সাত কোটি টাকার মতো পাবেন। যা দিয়ে ঋণ শোধের পর বাড়ির নানা কাজও দিব্যি করতে পারবেন। এবার থেকে আরও বেশি করে টিকিট কাটবেন বলেও জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং