BREAKING NEWS

১৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৯ মে ২০২০ 

Advertisement

প্রেমিকার সঙ্গে উধাও বিড়াল, খুঁজে দিতে পুরস্কার ঘোষণা এডিএমের মেয়ের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 1, 2019 2:53 pm|    Updated: November 1, 2019 2:53 pm

An Images

সম্যক খান, মেদিনীপুর: মালিক-মালকিনের কাছে আদরের অন্ত ছিল না। রোজ দু’বেলা দারুণ খাওয়াদাওয়া, সামান্যতম অসুবিধা হলেই সকলে রে রে করে ঝাঁপিয়ে পড়তেন। বিশেষত বাড়ির মেয়ের অত্যন্ত প্রিয় ছিল ‘পুচু’। ধবধবে সাদার উপর হালকা খয়েরি ছোপওয়ালা বিড়ালের অবাধ বিচরণ ছিল সারা বাড়িতে। কিন্তু গৃহসুখই কি আর সর্বসুখ? মনের আরামও তো চাই। একজন সঙ্গী, একটু রোমান্টিসিজম… সে উপায় তো নেই। পুচু যে মেদিনীপুরের অতিরিক্ত জেলাশাসকের বাংলোর বাসিন্দা। নিরাপত্তার ঘেরাটোপে তার আর বাইরে বেরনোই হয় না। দিন কাটতে থাকে এভাবেই।

সেই চিরাচরিত মার্জারজীবনে হঠাৎই বদল। আচমকা দেখা গেল, মেদিনীপুরের অতিরিক্ত জেলাশাসকের বাংলোর ত্রিসীমানায় নেই পোষ্য পুচু। খোঁজ খোঁজ রব। এমনকী পুচুকে খুঁজতে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়ে ফেললেন এডিএম উত্তম অধিকারীর মেয়ে অরুণিতা। প্রিয় ‘পুচু’র খোঁজ দিলেই ২০০০ টাকা পুরস্কার। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই পোস্ট দেখে অনেকেরই চোখ কপালে উঠেছিল। পোস্ট দেখে পোষ্যর প্রতি স্নেহ নিয়েও বিস্তর আলোচনা চলে।

[ আরও পড়ুন: সবজির খোসার সঙ্গে সোনার গয়না খেল ষাঁড়! গোবরের অপেক্ষায় গৃহস্থ]

অতিরিক্ত জেলাশাসক তথা জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার আধিকারিক উত্তম অধিকারী বলেন, প্রায় দেড় বছর ধরে তাঁদের সঙ্গী আছে ওই বিড়ালটি। আদর করে তার নাম রেখেছেন ‘পুচু’। পুরুলিয়ায় এডিএম থাকাকালীনই তিনি পুচুকে কাছছাড়া করেননি। এরপর মেদিনীপুরে বদলি হয়ে যান তিনি। তাঁর কথায়, ‘মাস চারেক আগে একবার বাড়ি ছেড়েছিল পোষা বিড়াল। তবে ঘন্টা সাতেক পরেই ফিরে আসে সে। কিন্তু এবার কালীপুজোর দিন বাংলোর মধ্যে একটি মেয়ে বিড়াল ঢুকে পড়েছিল। তারই পিছু নিয়ে সেই যে বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে, আজ পর্যন্ত আর ফেরেনি।’ এতেই স্পষ্ট, প্রেম পড়েই ঘর ছেড়েছে পুচু।

midnapur-cat-missing1
এদিকে, প্রিয় পোষ্যকে এভাবে হারিয়ে নাওয়াখাওয়া চলে গিয়েছে উত্তমবাবুর মেয়ে অরুনিতা অধিকারীর। বেথুন কলেজের ছাত্রী হওয়ায় তিনি কলকাতায় থাকেন। কিন্তু পুচুকে হারানোর খবর পাওয়ার পরই তিনি চলে এসেছেন মেদিনীপুরে। তার আদরের পুচুকে খুঁজে পেতে হন্যে হয়ে এদিক-ওদিক, রাস্তায়, পার্কে ঘুরে বেড়িয়েছেন। কোথাও পাননি। শেষমেশ ফেসবুকে বিড়াল হারিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়ে খুঁজে দিলে ২ হাজার টাকা পুরস্কারও দেওয়ার কথা জানিয়েছে সে।

[ আরও পড়ুন: মৃত বাবাকে নিয়মিত মেসেজ, ৪ বছর পর এল উত্তর!]

এতেও থেমে থাকছেন না তাঁরা। উত্তমবাবু জানিয়েছেন, সন্ধান চাই বলে বেশ কিছু পোস্টার ছাপিয়ে তা বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দেবেন বলে ভাবছেন। কিন্তু বাংলোর জীবন পেরিয়ে পুচু যে প্রেমজীবনের সন্ধান পেয়েছে, তা ছেড়ে সে কি ফিরবে?এই প্রশ্নের উত্তর কিন্তু এখনও মিলছে না।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement