BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বছরখানেকের মধ্যেই ইতিহাস হয়ে যাবে রেলের পিচবোর্ডের টিকিট

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 7, 2019 5:10 pm|    Updated: June 7, 2019 5:19 pm

Railways to withdraw paper tickets in the coming year

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আর মাত্র টেনেটুনে একটা বছর। তারপর ট্রেনের হলুদ পিচবোর্ডের টিকিট দেখা যাবে না দেশের কোথাও। কারণ ভারতীয় রেলের তরফেই জানানো হয়েছে আগামী বছরের মার্চ মাসের মধ্যেই বাজার থেকে উঠে যাবে হলুদ পিচবোর্ডের টিকিট।

এযুগের ছেলেমেয়েদের কাছে হলুদ পিচবোর্ডের টিকিট অনেকটাই অপরিচিত। কেউ কেউ ছোটবেলায় দেখে থাকলেও থাকতে পারে। কিন্তু কয়েক দশক আগে লোকাল ট্রেনে যেতে হলে জন্য এই টিকিট কাটতে হত যাত্রীদের। দীর্ঘ দেড়শো বছরের উপর সময় ধরে এই হলুদ পিচবোর্ডের টিকিট পেয়েছে যাত্রীরা। ইউটিএস পদ্ধতি আসার পর বদলাতে শুরু করে ছবি। এখন তো এই টিকিট প্রায় দেখাই যায় না। গোটা দেশ খুঁজলে হয়তো হাতে গোনা কয়েকটি স্টেশনে এর হদিশ মিলবে। কিন্তু আগামী বছর মার্চের পর থেকে কোথাওই এর খোঁজ পাওয়া যাবে না। সেখানেও কম্পিউটারের মাধ্যমেই টিকিট দেওয়া হবে বলে খবর।

[ আরও পড়ুন: ‘মেয়েদের সঙ্গে অশ্লীলতা করতে ভালবাসতেন আকবর’, বিজেপি নেতার মন্তব্যে তুঙ্গে বিতর্ক ]

কী এই টিকিটের ইতিহাস?
হলুদ পিচবোর্ডের টিকিটের আসল নাম এডমন্ডসন টিকিট। দৈর্ঘ্য ২.২৫ ইঞ্চি, প্রস্থ ১.২২ ইঞ্চি। এই টিকিটের সূত্রপাত ইংল্যান্ডে। ১৮৪০ সাল নাগাদ এটি চালু হয়। এরপর যখন ভারতে ট্রেন চালু হয়, তখন ইংল্যান্ডের অনুকরণে এখানেও শুরু হয় এডমন্ডসন টিকিট। প্রথম দিকে ইংল্যান্ডে ছাপা হত ভারতীয় টিকিটও। ‘এডমন্ডসন ক্যাবিনেট’ নামে একটি বাক্সে থাকত বিভিন্ন জায়গার টিকিট। যে যেখানে যাবে, সেই অনুযায়ী বাক্স থেকে টিকিট বের করে দেওয়া হত। শুধু দিনটা একটি মেশিনের সাহায্যে টিকিটে খোদাই করে দেওয়া হত।

রেল সূত্রে খবর, দেশের সব স্টেশনে ইউটিএস টিকিট প্রবর্তন করার ব্যবস্থা চালু হয়ে গিয়েছে। পুরনো এই টিকিট আগামী মার্চেই বন্ধ হয়ে যাবে। তখন রেলের জাদুঘরে স্মৃতিচিহ্ন হিসেবে রাখা থাকবে এডমন্ডসন টিকিট।

[ আরও পড়ুন: ‘নির্বাচনে জিততে আরএসএসর মতো প্রচার করুন’, কর্মীদের বার্তা শরদ পাওয়ারের ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে