BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কিছুতেই স্নান করতে চান না স্ত্রী, ডিভোর্স চাইলেন যুবক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 15, 2018 1:38 pm|    Updated: September 18, 2019 11:18 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রেম এক জিনিস। আর বিয়ে আরেক। এ কথা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন তাইওয়ানের এক যুবক। স্ত্রীর শত গুণ থাকতেও যিনি বিচ্ছেদ চাইতে বাধ্য হয়েছেন। তাও কেবলমাত্র একটি বদভ্যাসের জন্য। কিছুতেই স্নান করতে চান না স্ত্রী। আর এ কারণেই স্ত্রীর সঙ্গে এক ছাদের তলায় থাকতে চান না ওই যুবক।

[আরও স্পষ্ট হচ্ছে মহাকাশ থেকে আসা রহস্যময় রেডিও সংকেত, পাঠাচ্ছে কে?]

অদ্ভুত এই ঘটনা উঠে এসেছে তাইপেই টাইমস নামক এক সংবাদমাধ্যমে। যেখানে যুবক জানিয়েছেন, প্রেম করেই বিয়ে করেছিলেন তিনি। তখন প্রেমিকার স্বভাব এতটা খারাপ ছিল না। সপ্তাহে একবার স্নান তিনি করেই নিতেন। বিয়ের প্রথম প্রথমও সব ঠিক ছিল। কিন্তু সময় গড়াতেই বিষয়টি খুবই অস্বস্তিকর পর্যায় যেতে থাকে। স্ত্রী নাকি এখন বছরে একবার স্নান করেন। মাথায় জল পর্যন্ত দেন না। আর রোজ দাঁত পর্যন্ত মাজেন না। এমন স্ত্রীর কাছে যেতেই গা গুলিয়ে ওঠে ওই যুবকের। তাহলে শারীরিক সম্পর্ক কেমন করে তিনি স্থাপন করবেন?

[ইউটিউবে বিতর্কিত ভিডিও আপলোড করে মুখ পুড়ল এই তারকার]

আরও অভিযোগ রয়েছে ওই যুবকের। বিয়ের পরই নাকি তাঁকে শ্বশুরবাড়িতে থাকতে বাধ্য করা হয়েছে। এমনকী মহিলা তাঁকে কোনও কাজও করতে দিতেন না। অগত্যা শাশুড়ির দেওয়া হাতখরচ নিয়েই জীবন চালাত হত তাঁকে। ২০১৫ সালে অনেক কষ্টে নিজের জন্য একটি কাজ জোগাড় করেন ওই যুবক। স্ত্রীকে লুকিয়ে বেশ কিছুদিন কাজটি করতে থাকেন তিনি। কিন্তু স্ত্রী খবর পেয়েই যান। আর স্বামীকে কাজ ছাড়ার জন্য চাপ দিতে থাকেন। কিন্তু যুবক কাজ ছাড়তে রাজি নন। বরং এমন স্ত্রীর কাছ থেকে মুক্তি চান তিনি। সে কারণেই বিচ্ছেদের মামলা করেছেন। এদিকে যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন যুবকের স্ত্রী। তাঁর দাবি, স্বামীকে নিজের ছেলের মতোই দেখতেন তাঁর বাবা-মা।

[রাষ্ট্রসংঘে ভারতীয় প্রতিনিধির টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক, পোস্ট করা হল পাক পতাকা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement