১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

একসঙ্গে হলেই খালি নোংরা কথা, ‘সুশিক্ষা’ দিতে আইসোলেশনে পাঠানো হল ৫ টিয়াকে

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 30, 2020 5:49 pm|    Updated: September 30, 2020 5:55 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লঘু-গুরু জ্ঞান নেই। সকলের সামনে গালিগালাজ। নোংরা কথা। পাঁচ বন্ধুকে নিয়ে নাজেহাল দশা অভিভাবকদের। অগত্যা তাঁদের প্রকৃত শিক্ষা দিতে ফের গুরুগৃহে পাঠালেন অভিভাবকরা। না কোনও ছেলে বা মেয়েকে নিয়ে এমন বিড়ম্বনায় পড়তে হয়নি তাঁদের অভিভাবকদের। বরং চিড়িয়াখানার পাঁচ টিয়াপাখির কার্যকলাপে অতিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ।

ভারতে নয়, এমনই অবাক করা ঘটনা ঘটেছে ইংল্যান্ডের এক চিড়িয়াখানায়। অভিযাগ, পাঁচটি টিয়া পাখি নাকি কোনও লোকজন মানে না। দর্শকদের সামনেও অশ্রাব্য ভাষায় কথা বলে। সব সময়ে নোংরা কথা তাদের মুখে। তাই তাদের শোধরাতে পাঠানো হল নতুন জায়গায়। খারাপ কথা সম্পূর্ণ ভুলে যেতে হবে তাদের। বদলে ভাল কথা শিখতে হবে, যতদিন না এটা হচ্ছে ততদিন তাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। পাঁচ টিয়া আলাদা আলাদা থেকে কুকথা ভুলে ভদ্র, সভ্য করা হবে বলে খবর।

[আরও পড়ুন : রাখে হরি তো মারে কে? সমুদ্রে ঝাঁপ দেওয়ার ২ বছর পর জীবিত অবস্থায় উদ্ধার মহিলা]

লিঙ্কনশায়ার ওয়াইল্ডলাইফ পার্কের পক্ষে জানানো হয়েছে, পাঁচটি আফ্রিকান টিয়াকে আপাতত চিড়িয়াখানার দর্শকদের সামনে থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পাঁচ টিয়াকে আলাদা আলাদা পাঁচ জনের কাছে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে নিজেদের সংশোধন করে ফেরার পরে ফের তাদের দর্শকদের মুখোমুখি হতে দেওয়া হবে। পাঁচ টিয়ার নাম এরিক, জেড, এলসি, টাইসন আর বিল্লি।

চিড়িয়াখানার তরফে জানানো হয়েছে, পাঁচটি টিয়া একসঙ্গে হলেই খারাপ ভাষায় কথা বলতে শুরু করে। এদিকে শিশুদের সামনে এসব বললে খারাপ প্রভাব পড়তে পারে। তাই তাদের সরিয়ে দেওযার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। চিড়িয়াখানার কর্তা স্টিভ নিকোলাস জানিয়েছেন, “শিশুদের সামনে ওদের কথাবার্তা নিয়ে আমরা চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম।”

[আরও পড়ুন : OMG! সামাজিক দূরত্ব মেনেই কনের গায়ে হলুদ, পরিবারের বুদ্ধির প্রশংসায় নেটিজেনরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement