১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পুজোর অনুদানের অর্থ মানব কল্যাণে, ৫০ হাজার টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান হাওড়ার ক্লাবের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: October 25, 2020 8:23 pm|    Updated: October 25, 2020 8:23 pm

Howrah Club donates money to CM's relief fund | Sangbad Pratidin

অরিজিৎ গুপ্ত, হাওড়া: করোনা কালে (Coronavirus) দুর্গাপুজোর জন্য সরকারের থেকে পাওয়া অনুদানের অর্থ মুখ্যমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে তুলে দিল হাওড়ার (Howrah) বাজেশিবপুরের একটি ক্লাব। কর্তৃপক্ষের কথায়, এবার পুজোয় আড়ম্বর না করে ওই টাকা অসহায় মানুষদের কাজে লাগলেই খুশি হবেন তাঁরা। হাওড়ার মিতালী সংঘ ক্লাবের এই উদ্যোগে খুশি স্থানীয়রা।

করোনার কারণে চলতি বছরে কম-বেশি সকলেই অর্থ সংকটে। সেই কারণে ১০ বছরের পুরনো ক্লাবগুলিকে পঞ্চাশ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হয়েছে সরকারের তরফে। বলা হয়েছে, মূলত মাস্ক-স্যানিটাইজারের জন্যই এই অর্থ প্রদান। পুজোর (Durga Puja 2020) আগে টাকা পাওয়ায় সমস্ত ক্লাবগুলিই যে খুশি হয়েছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এই অনুদানের অর্থ পেয়েছিল হাওড়ার বাজেশিবপুরের মিতালী সংঘও। কিন্তু পুজোর কাজে সে অর্থ ব্যবহার করেনি তারা। বরং মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের মাধ্যমে অসহায় মানুষদের মধ্যে তা বিলিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। জানা গিয়েছে, টাকা অ্যাকাউন্টে পাওয়া মাত্রই ক্লাবের সদস্যরা ঠিক করেন যে, এই টাকা সাধারণ মানুষের কাজে লাগাবেন। পরেরদিনই টাকা ত্রাণ তহবিলে দেন।

[আরও পড়ুন: আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করেই পুজো উপলক্ষে চটুল নাচের আসর, পুলিশের জালে ২ উদ্যোক্তা]

এবিষয়ে ক্লাবের এক সদস্য বলেন, “করোনা কালে বহু মানুষ চরম সমস্যায় দিন কাটাচ্ছেন। এই দুর্যোগের সময় আমরা কোনও অনুদান নেব না বলেই স্থির করি। সেই সেই মতো টাকা তহবিলে দিই।” অপর সদস্য জানিয়েছেন, তাঁদের ক্লাবের তরফে সদস্য ছাড়া কারও অনুদানই নেওয়া হয় না। অর্থ ফিরিয়ে দেওয়ার নেপথ্যে সেটাও একটা কারণ। উল্লেখ্য, চলতি বছরে রাজ্যেক প্রায় ৩৭ হাজার পুজো কমিটিকে পঞ্চাশ হাজার টাকা অনুদান দিয়েছে সরকার।

[আরও পড়ুন: নভেম্বরের শুরুতেই বদলাচ্ছে রান্নার গ্যাস বুকিংয়ের নম্বর, ডেলিভারির সময় লাগবে OTP]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে