BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৭  সোমবার ১৮ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রমাণ! থাইল্যান্ডে মিলল ৫ হাজার বছরের পুরনো তিমির কঙ্কাল

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 28, 2020 5:37 pm|    Updated: November 28, 2020 5:40 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উষ্ণায়নের বিষয়ে বিগত কয়েক বছর ধরেই সাবধান করছেন বিজ্ঞানী ও পরিবেশবিদরা। গত কয়েক মাসে করোনা মহামারীর কারণে বিশ্বের বেশিরভাগ জায়গায় লকডাউন থাকার ফলে পরিবেশে কিছুটা ভারসাম্য এসেছে। যদিও তাতে পরিস্থিতির খুব একটা যে বদল হয়নি সম্প্রতি তার প্রমাণ পেলেন থাইল্যান্ডের প্রত্নতত্ত্ববিদরা ও গবেষকরা। রাজধানী ব্যাংককের খুব কাছের একটি সমুদ্র উপকূল থেকে খুঁজে পাওয়া গেল প্রায় ৫ হাজার বছরের পুরনো বিরল প্রজাতির তিমি (whale)’র কঙ্কাল। যে দেখে হতবাক বিজ্ঞানীরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি উষ্ণ আবহাওয়া ও ক্রান্তীয় এলাকায় দেখা মেলা বিরল প্রজাতির ওই ব্রাইড’স প্রজাতির তিমির কঙ্কাল (skeleton) -এর ছবি পোস্ট করেন থাইল্যান্ডের পরিবেশ মন্ত্রী ভারায়ুত শিল্পা আর্চা। ব্যাংককের ১২ কিলোমিটার পশ্চিমে অবস্থিত সামুত সাখন (Samut Sakhon) উপকূল থেকে উদ্ধার হওয়া বিরল প্রজাতির ওই তিমিটির বয়স ৩ থেকে পাঁচ হাজার বছর পুরনো বলে উল্লেখ করেন। আরও জানান যে এখন পর্যন্ত কঙ্কালটির ৮০ শতাংশের বেশি উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। এর মধ্যে মেরুদণ্ড, পাঁজর, পাখনা ও সামনের দিকের একটি অংশের হাড় উদ্ধার হয়েছে। ১২ মিটার অর্থাৎ ৩৯ ফুটের ওই তিমিটির কঙ্কালের মাথার দৈর্ঘ্যই ৩ মিটারের মতো। সব অংশগুলোই অক্ষত রয়েছে। তবে সেটি ফসিলে পরিণত হচ্ছিল।

[আরও পড়ুন: মঙ্গল অভিযানে আমেরিকা, চিনের পর নাম লেখাচ্ছে ব্রিটেনও, দু’বছরের মধ্যে পাড়ি দেবে রোভার ]

পরিবেশে মন্ত্রীর এই পোস্টের পরেই এই বিষয়টি নিয়ে শোরগোল পড়ে যায় থাইল্যান্ডের বিজ্ঞানীদের মধ্যে। বিরল প্রজাতির ওই তিমির কঙ্কালের সন্ধান সমুদ্রস্তরে পরিবর্তন ও জীববৈচিত্র্যের বিষয়ে নতুন দরজা খুলে দেবে বলেই অভিমত পোষণ করেন তাঁরা। এপ্রসঙ্গে সিঙ্গাপুর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববিজ্ঞানী মার্কাস চুয়া জানান, এশিয়ার বিভিন্ন জায়গায় এই ধরনের বিরল তিমির কঙ্কাল বা ফসিলের হদিস মেলে। তবে এই ফসিলটির অবস্থা অন্যদের থেকে ভাল রয়েছে। এটা খুবই বিরল একটা আবিষ্কার। এর ফলে প্রমাণ হয় ব্যাংকক শহর আজকে যেখানে রয়েছে সেখানে আগে সমুদ্র ছিল। উষ্ণায়ন ও জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আজ তা ১২ কিলোমিটার দূরে সরে গিয়েছে। বর্তমান ব্রাইড’স প্রজাতির তিমির সঙ্গে ওই তিমির কী কী তফাত আছে তাও পরিবেশ বদলের বিষয়ে শিক্ষা দেবে।

[আরও পড়ুন: ইসরোর শুক্র অভিযানে অংশ নিতে উৎসাহী সুইডেন, অত্যাধুনিক যন্ত্র দিয়ে সাহায্যের প্রস্তাব]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement