BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

দু’ঘণ্টায় মিলবে পরীক্ষার ফল, করোনার টেস্ট কিট তৈরি করলেন কেরলের বিজ্ঞানীরা

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: April 18, 2020 5:09 pm|    Updated: April 18, 2020 5:09 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চাই শুধু টেস্ট, টেস্ট আর টেস্ট। করোনা মোকাবিলায় এটাই হাতিয়ার উচিত। আর তাই হয়েছেও কেরলে। ঈশ্বরের আপন দেশে র‌্যাপিড টেস্টের সুফল হাতেনাতে মিলেছে। কেরলে ‘বন্ধু ক্লিনিক’ তৈরি করে করোনা সংক্রমণকে লাগাম দেওয়ার চেষ্টা হয়েছে। কিছুটা সাফল্যও এসেছে। কিন্তু টেস্ট কিটের জন্য চিনের মুখাপেক্ষী হয়ে থাকতে চায় না দক্ষিণের এই রাজ্য। তাই ত্রিবান্দ্রমের একটি সরকারি ইনস্টিটিউট সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে ডায়গনস্টিক টেস্ট কিট আবিষ্কার করে ফেলেছে। এই টেস্ট কিটের বিশেষত্ব হল, মাত্র দু’ঘণ্টায় টেস্টের ফল মিলবে। খরচ পড়বে ১০০০ টাকা। এই টেস্ট কিটই এখন আশার আলো দেখাচ্ছে ভারতকে।

জানা গিয়েছে, ত্রিবান্দ্রমের শ্রী চিত্রা তিরুনাল ইনস্টিটিউট ফর মেডিক্যাল সায়েন্সেস এন্ড টেকনোলজি এই টেস্ট কিটটি তৈরি করেছে। এই কিটের নাম দেওয়া হয়েছে চিত্রা জেনল্যাম্প-এন। এই টেস্ট কিটকে সবুজ সংকেত দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকও। ত্রিবান্দ্রমের ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীরা বলছেন, সার্স-কভ-২-এন-জিন (SARS-CoV-2 N–gene)-এর জন্যই বিশেষভাবে তৈরি এই টেস্ট কিট। আরএনএ ভাইরাসের জিনের দুটো অংশ চিহ্নিত করবে এই টেস্ট কিট। দুঘণ্টার মধ্যেই নির্ভুল রেজাল্ট পাওয়া যাবে। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (ICMR) অনুমোদন দেওয়ায় ইতিমধ্যে এই টেস্ট কিট কেরলের বেশ কয়েকটি হাসপাতাল ব্যবহার করার জন্য সম্মতি দিয়েছে।

[আরও পড়ুন: প্রচণ্ড গরমেও কাবু হবে না করোনা! দাবি ফ্রান্সের গবেষকদের]

এই টেস্ট কিট আবিষ্কারের নেপথ্যে রয়েছেন বিজ্ঞানী অনুপ থেক্কুভিট্টিল এবং তাঁর টিম। এই চিত্রা জেনল্যাম্প-এন টেস্টের যন্ত্রটি তৈরির জন্য খরচ পড়েছে ২.৫ লক্ষ। আর টেস্ট কিটের মূল্য প্রায় ১০০০ টাকা। তুলনায় আরটি পিসিআর (যেগুলি বিদেশ থেকে আমদানি করা হচ্ছে) যন্ত্রের দাম ১৫ থএকে ৪০ লক্ষ টাকা। আর পিসিআর কিটের দাম ২-২৫০০ টাকা। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই টেস্ট কিটটি একটি যন্ত্রের মতো। রোগীর গলার সোয়াব (লালারস) এই যন্ত্রে রাখলে দু’ঘণ্টার মধ্যে নির্ভুল রেজাল্ট পাওয়া যাবে। একসঙ্গে ৩০টি নমুনা পরীক্ষা করতে পারে এই যন্ত্র। থেক্কভিট্টিল জানিয়েছেন, তাঁর টিম মাত্র তিন সপ্তাহের মধ্যে এই টেস্ট কিট তৈরি করেছেন।

[আরও পড়ুনছ করোনাকে জব্দ করতে শুরু প্রতিষেধকের ট্রায়াল, বিশ্বকে আশার আলো দেখাচ্ছে চিন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement