BREAKING NEWS

১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  শনিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ধীরে ধীরে সবুজ ফিরছে থর মরুভূমিতে, বাস্তুতন্ত্রের জন্য ভাল লক্ষণ নয়! চিন্তায় পরিবেশবিদরা

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: August 23, 2020 7:49 pm|    Updated: August 23, 2020 7:49 pm

India’s Thar desert is turning green. That isn’t a good thing

‌সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ ধীরে ধীরে সবুজায়ন হচ্ছে থর মরুভূমির!‌ আর সেকারণে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশের ভারসাম্য। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই কিন্তু সত্যি। আসলে অবৈজ্ঞানিক উপায়ে চাষবাস, অনিয়ন্ত্রিত নির্মাণশিল্প–প্রভৃতির কারণেই ভারতের একমাত্র মরুভূমিতে প্রাকৃতিক উপায়ে জন্ম নেওয়া সবুজ এলাকাগুলো ধীরে ধীরে ধ্বংস হচ্ছে। যার প্রভাব পড়ছে বাস্তুতন্ত্রেও। সম্প্রতি সামনে এসেছে এমনই তথ্য।

[আরও পড়ুন: কোভিড জয়ের একমাসের মধ্যেই ৭৫ শতাংশের শরীরে ফের দেখা দিচ্ছে করোনার উপসর্গ, বলছে গবেষণা]

এমনিতেই রাজস্থানের (Rajasthan) অধিকাংশ এলাকাতেই বৃষ্টিপাত কম। আর এই ‘‌নকল সবুজায়নের’‌ জেরে আরও কমে গিয়েছে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ। অবস্থা এতটাই খারাপ যে, মরুভূমি সংলগ্ন ওই এলাকাগুলোতে আগে গৃহপালিত পশুদের চড়ানো গেলেও সবুজ ঘাসের অভাবে এখন তাও সম্ভব নয়। ফলে স্থানীয় বাসিন্দাদের পশুদের জন্য খাবার কিনতে হয় চড়ামূল্যে। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, ইংরেজ আমল থেকেই থর মরুভূমিতে এই রীতি চলে আসছে। সেসময় কাঠের চাহিদা বেশি থাকায় কাষ্ঠল গাছই বেশি লাগানো হত। গত কয়েক দশকেও যে নিয়ম চলে আসছে। এছাড়া নতুন করে সেখানে কৃষিকাজের জন্য ফার্ম খোলা হয়েছে।

আর এই সবের কারণেই প্রাকৃতিকভাবে জন্মানো গাছপালা কিংবা এই পরিবেশে জন্ম নেওয়া সবুজ ঘাসে ঢাকা এলাকার পরিমাণও ধীরে ধীরে কমে আসছে। বদলে চাষ করা হচ্ছে এমন এমন সবজির যা কি না এই অঞ্চলের বাস্তুতন্ত্রের ক্ষতি করছে। আর তারই ফল এই কম বৃষ্টিপাত। যা স্থানীয় চাষিদের কাছে আরও চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা বিকানের সংলগ্ন এলাকায়। তবে আশার আলো একটাই, গত কয়েক বছরে এই এলাকায় অবৈধ নির্মাণশিল্প বন্ধে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এছাড়া স্থানীয় গাছের চারাও রোপন করা হচ্ছে প্রশাসনের তরফে। বাসিন্দাদের আশা, খুব দ্রুতই নকল এই সবুজায়নকে দূরে সরিয়ে পুরনো ছবিতেই ধরা দেবে থর মরুভূমি। ফলে নষ্ট হবে না বাস্তুতন্ত্রও।

[আরও পড়ুন: দীর্ঘ অপেক্ষায় সাফল্য, ১২০০০ কিলোমিটার দূরে দক্ষিণ মেরুর শব্দতরঙ্গ শুনলেন বারাসতের শ্রোতা]

এদিকে, আফ্রিকার সাহারা মরুভূমি নিয়ে সামনে এসেছে একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকের মতে, মাত্র ৪ হাজার বছর আগে এরকম ছিল না সাহারা। রাশি রাশি বালির জায়গায় পুরোটাই ছিল সবুজ। তবে সভ্যতার অগ্রগতির জন্য নয়, ভয়াবহ খরার কারণেই ধীরে ধীরে মরুভূমিতে পরিণত হয়েছে সাহারা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে