২৪  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

গ্রহাণুর সঙ্গে সংঘর্ষেই ধ্বংস হবে মানব সভ্যতা! এবার দাবি নাসারই

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 20, 2017 3:27 pm|    Updated: September 23, 2019 1:43 pm

NASA has revealed that Earth may actually face massive destruction

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ১৯ নভেম্বর, ২০১৭ তারিখেই ধ্বংস হয়ে যাবে পৃথিবী! কারণ আমাদের গ্রহের উপর আছড়ে পড়বে ‘নিবিড়ু’ বা ‘প্ল্যানেট এক্স’ নামে একটি গ্রহাণু। ধ্বংস হয়ে যাবে পুরো মানব সভ্যতা। গত বেশ কয়েকদিন ধরেই এই খবরটি শিরোনামে ছিল। আলোড়ন ফেলেছিল গোটা বিশ্বে। তবে অধিকাংশই জানিয়েছিলেন, না এটা স্রেফ গুজব। ফুৎকারে উড়িয়ে দিয়েছিলেন সেই ভবিষ্যদ্বাণী। যা শেষপর্যন্ত প্রমাণিতও হল। কিন্তু জানেন কি, পৃথিবীর শেষের দিন খুব তাড়াতাড়িই আসতে চলেছে? না কোনও গুজব বা ভবিষ্যতৎ বক্তা একথা বলছেন না। জানাচ্ছে স্বয়ং মার্কিন স্পেস রিসার্চ এজেন্সি নাসা। সম্প্রতি একটি মার্কিন সংবাদপত্র নাসাকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে ২০৩৬ সালে পৃথিবীর সঙ্গে সংঘর্ষ হতে চলেছে একটি গ্রহাণুর। তাতেই চিরতরে ধ্বংস হয়ে যেতে পারে মানব সভ্যতা।

[শুরু হয়ে গিয়েছে প্রাণিজগতের ষষ্ঠ ধ্বংসলীলা, সতর্ক করলেন বিজ্ঞানীরা]

নাসার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ওই গ্রহাণুটির নাম অ্যাপোফিস। ২০০৪ সালেই প্রথম নজরে পড়েছিল গ্রহাণুটি। এরপর গত ১৭ বছর ধরেই গ্রহাণুটির দিকে নজর রাখছিলেন নাসার বিজ্ঞানীরা। আর শেষপর্যন্ত তাঁরা জানালেন ২০৩৬ সালে পৃথিবীর সঙ্গে সংঘর্ষ হবে গ্রহাণুটির। এই খবরের সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছেন ডুয়েন ব্রাউন নামে ওয়াশিংটনের হেডকোয়ার্টারের এক আধিকারিক। স্টিভ চেসলি নামে নাসার এক বিজ্ঞানী এবং পল খোদাস ২০০৯ সাল থেকে গ্রহাণুটির উপর পর্যবেক্ষণ চালাচ্ছিলেন। তারপরেই তারা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন যে, ২০৩৬ সালের ১৩ এপ্রিল পৃথিবীতে আঘাত হানবে অ্যাপোফিস। ডেভ থোলেন নামে এক বিজ্ঞানী এবং তাঁর সহকারীরাও একই দাবি করেছেন। ওই সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, নাসা তার ওয়েবসাইটেও এই সংঘর্ষের কথা জানিয়েছে।

[তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধেই ধ্বংস হবে পৃথিবী, বিস্ফোরক দাবি চিনা ধনকুবেরের]

তবে শুধু ২০৩৬ নয়, ২০২৯ এবং ২০৬৮ সালেও পৃথিবীর খুব কাছ থেকে উড়ে যাবে অ্যাপোফিস। যা থেকেও রয়েছে প্রবল ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা। এর আগে গুজব ছড়িয়েছিল, ১৯ নভেম্বর ২০১৭ সালেই পৃথিবীতে মানবজাতির শেষদিন। ওই দিনই ‘নিবিড়ু’ বা ‘প্ল্যানেট এক্স’ নামে একটি গ্রহাণুর সঙ্গে সংঘর্ষ হবে পৃথিবীর। কিন্তু বাকি সব কিছুর মতো এটিও মিথ্যে প্রমাণিত হয়েছে। এদিকে, ডেভিড মিয়াডে নামে এক ভবিষ্যৎবক্তার মতে, চলতি বছরের ১৫ অক্টোবরই পৃথিবীর শেষের দিনের শুরু হয়ে গিয়েছে। আগামী সাত বছরে ভূমিকম্প, সুনামি, অগ্নুৎপাত-সহ একাধিক প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের কারণে পৃথিবীর বুক থেকে মুছে যাবে মানবসভ্যতা। এছাড়া তাঁর আরও দাবি ‘নিবিড়ু’ বা ‘প্ল্যানেট এক্স’ ইতিমধ্যে পৃথিবীর কক্ষপথে প্রবেশ করে ফেলেছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে