১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শেষবার ক্ষুদ্রতম চাঁদের দেখা মিলেছিল ২০০৬ সালে। মাঝে দীর্ঘ ১৩ বছরের বিরতি। আগামিকাল, শুক্রবার ফের দেখা যাবে ক্ষুদ্রতম চাঁদ বা মাইক্রো মুন। সাধারণ আকারের তুলনায় এই সময় ১৪ থেকে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছোট দেখায় চাঁদ। শুক্রবার পূর্ণিমা হওয়ায় চাঁদ আরও স্পষ্টভাবে দেখা হবে।  

এমন ঘটনার কারণ কী?

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, চাঁদের পথ উপবৃত্তাকার। ফলে পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব সবসময় সমান হয় না। সাধারণভাবে পৃথিবী ও তার উপগ্রহের মধ্যে দূরত্ব ২ লক্ষ ৩৮ হাজার ৯০০ মাইল ধরা হয়। কিন্তু উপবৃত্তাকার কক্ষপথের জন্য এই দূরত্ব সবসময় একই থাকে না। চাঁদ কখনও পৃথিবীর কাছে থাকে, কখনও অনেক দূরে। কাছে থাকলে চাঁদ ও পৃথিবীর মধ্যে দূরত্ব থাকে ২ হাজার ৩৯ মাইল বা তার থেকেও কম। তখনই হয় সুপার মুন। আর দূরে থাকলে দূরত্ব হয় ২ লক্ষ ৫১ হাজার ৬৫৫ মাইল। কিন্তু শুক্রবার আরও দূরে অবস্থান করবে চাঁদ। ২ লক্ষ ৫১ হাজার ৬৫৫ মাইলের থেকে আরও ৮১৬ মাইল দূরে থাকবে উপগ্রহ। ফলে আরও ছোট দেখাবে তাকে।

[ আরও পড়ুন: ২.১ কিমি নয়, চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ঢিলছোঁড়া দূরত্ব পর্যন্ত ইসরোর নিয়ন্ত্রণে ছিল বিক্রম! ]

১৩ বছর পর এমন অবস্থানে এসেছে চাঁদ। এর আগে ২০০৬ সালে মাইক্রো মুন দেখা গিয়েছিল। কলকাতায় পজিশনাল অ্যাস্ট্রনমি সেন্টারের ডিরেক্টর সঞ্জীব সেন জানিয়েছেন, ১৩ সেপ্টেম্বর সকাল ৭টা ৩৬ মিনিটে শুরু হচ্ছে পূর্ণিমা। ছাড়বে ১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা ৩ মিনিটে। ফলে হাতে পাওয়া যাবে গোটা রাত। ফলে যে কোনও সময়ে মাইক্রো মুন দেখতে পাবে রাজ্যবাসী। 

তবে তীরে এসে তরী ডোবার সম্ভাবনা রয়েছে ষোলোআনা। কারণ আবহাওয়া দপ্তর ইতিমধ্যেই পূর্বাভাস দিয়েছে আগামী ৪৮ ঘণ্টা বৃষ্টিপাত হতে পারে। ফলে আকাশ মেঘমুক্ত হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। তার উপর বৃষ্টি হলে তো আরও সমস্যা। তাই আবহাওয়ার উপরই এখন নির্ভর করছে সবকিছু। আবহাওয়া এই রকম থাকলে মাইক্রো মুন দেখার সম্ভাবনা বেশ কম। সেক্ষেত্রে পরের বারের জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া গতি নেই। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এরপর ২০৩৩ সালের মে মাসে ফের দেখা মিলবে মাইক্রো মুনের।

[ আরও পড়ুন: ল্যান্ডার বিক্রমের আয়ু মাত্র ১৪ দিন, কেন জানেন? ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং