BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সকাল থেকেই প্রতিষ্ঠা দিবসের উৎসব শুরু লাল-হলুদে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 1, 2016 4:05 pm|    Updated: August 1, 2016 4:44 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: সকাল থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে ইস্টবেঙ্গলের প্রতিষ্ঠা দিবস পালনের প্রস্তুতি৷ কিন্তু তার ফাঁকেই আলোচনা চলছে, এই মরশুমে কলকাতা লিগে ইস্টবেঙ্গলের সম্ভাবনা প্রসঙ্গে৷

জুনিয়র ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রাম নিয়ে ইস্টবেঙ্গল যখন ভাবনাচিন্তা শুরু করেছে, তখন কলকাতা লিগের জন্য এরকম আই লিগের দল নিয়েই ঝাঁপাচ্ছে কেন ইস্টবেঙ্গল? ইস্টবেঙ্গল কর্তা দেবব্রত সরকার বললেন, “ইস্টবেঙ্গল যেখানেই খেলতে নামুক, জেতার জন্য নামে৷ আমাদের জিততেই হবে৷ তাই যেখানেই, যে প্রতিযোগিতাতেই খেলি, সেরা দল নামানোর চেষ্টা করি৷ আর কলকাতা লিগ আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷”

যেখানে বছরের পর বছর ঘরে আই লিগ আসছে না, সেখানে হঠাত্‍ কলকাতা লিগ নিয়ে এতটা সিরিয়াস কেন ইস্টবেঙ্গল? আসলে টানা ছ’বার কলকাতা লিগ জেতার ইতিহাস এর আগেও একবার ছিল ইস্টবেঙ্গলের ঘরে৷ তাই টানা ছ’বার ঘরোয়া লিগ জেতার ইতিহাস ভেঙে এবার টানা ৭ বার জিতে নতুন রেকর্ড গড়তে চাইছে ইস্টবেঙ্গল৷ আর সেই লক্ষ্যেই এবার আই লিগের পুরো দলটাকেই কলকাতা লিগের জন্য ধরে রাখা হয়েছে৷

আই লিগের পুরো দলটাকে ধরে রাখা হলেও, মরগ্যান চিন্তিত হয়ে পড়েছেন স্ট্রাইকার নিয়ে৷ বিশেষ করে ডংয়ের পারফরম্যান্স৷ এই মরশুমে দল গড়তে বসে মরগ্যান কিন্তু তাঁর তালিকায় ডংকে রাখেননি৷ পরে অনেকে কাঠখড় পুড়িয়ে লাল-হলুদে সই হয় ডংয়ের৷ অনুশীলন ম্যাচে গোল হয়তো করছেন৷ কিন্তু সেরকম পারফরম্যান্স কোথায়? কলকাতা লিগে ইস্টবেঙ্গল প্রথম ম্যাচ খেলবে বৃহস্পতিবার ভবানীপুরের বিরুদ্ধে৷ কিন্তু তাঁর আগে ডংয়ের পারফরম্যান্স নিয়ে রীতিমতো চিন্তিত ইস্টবেঙ্গল কোচ৷ যে কারণে নিয়েছেন আদেলেজাকে৷ কিন্তু নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকারের পারফরম্যান্সেও তো খুশি নয় ইস্টবেঙ্গল৷ যে দুটো অনুশীলন ম্যাচ খেলেছেন, তার কোনওটাতেই দলকে খুশি করতে পারেননি আদেলেজা৷ তবুও লিগের ম্যাচ খেলতে নামার আগে তাঁর পাশে দাঁড়াচ্ছেন কোচ মরগ্যান৷ বললেন, “আমি অনুশীলন দেখেই আদেলেজাকে দলে নিয়েছি৷ ওর উপর ভরসা রয়েছে আমাদের৷”

এদিকে, এদিন সকাল থেকেই লাল-হলুদ তাঁবুতে সাজসাজ রব৷ অনুশীলন না থাকায় কোচ-সহ সব ফুটবলারই ক্লাবে এসেছিলেন৷ প্রাক্তন ফুটবলার ভাস্কর গঙ্গোপাধ্যায় প্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন৷ এরপর পতাকা উত্তোলন করেন কোচ মরগ্যান, অধিনায়ক রবার্ট, প্রাক্তন ফুটবলার ভাস্কর গঙ্গোপাধ্যায় এবং ক্লাব সচিব কল্যাণ মজুমদার৷ ছিলেন দলের বাকি ফুটবলাররাও৷

মূল অনুষ্ঠান শুরু হবে আরেকটু পরেই৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধান অতিথির আসন গ্রহণ করার পরেই মূল অনুষ্ঠান শুরু হবে৷ পুরস্কৃত করা হবে মিলখা সিং সহ প্রাক্তন ফুটবলার শ্যাম থাপা, শ্যামল ঘোষদের৷ পুরস্কৃত করা হবে সাংবাদিকদেরও৷ তবে ভারত গৌরব সম্মান পেলেও অসুস্থতার জন্য শহরে আসতে পারছেন না মিলখা সিং৷ হঠাত্‍ অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাঁর শহরে আসা বাতিল করা হয়েছে৷ বিকেলে মূল অনুষ্ঠানটি হবে ক্ষুদিরাম অনুশীলন কেন্দ্রে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement