BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ফুটবলের সঙ্গে নিয়মিত চলুক স্বমেহন, পর্তুগিজ গোলকিপারকে পরামর্শ বান্ধবীর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 9, 2018 12:52 pm|    Updated: June 9, 2018 12:52 pm

Allow flashing, Portugal football player’s girlfriend urges FPF

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বকাপ মানে সব ম্যাচ বড় ম্যাচ, আর বড় ম্যাচ মানেই টেনশন। এই মানসিক চাকা কাটানোর মোক্ষম দাওয়াই নাকি স্বমেহন। আর কেউ নন, বলছেন পর্তুগালের তারকা গোলকিপার রুই প্যাট্রিসিও-র বান্ধবী ভেরা রিবেইরো।

[দাড়ির আবার বিমা, তাও নাকি করাচ্ছেন বিরাট কোহলি! ব্যপারটা কী?]

পর্তুগাল মানে রোনাল্ডো। আর রোনাল্ডো মানে শুধু ফুটবল নয়, আরও অনেক কিছু। তার বাইরেও তো কেউ থাকেন, যাকে নিয়ে দেশ নাচানাচি করে। এমনই এক চরিত্র রুই প্যাট্রিসিও। তিনি পর্তুগালের হিরো এবং একনম্বর গোলকিপার। গত ইউরোতে পর্তুগালের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পিছনে প্যাট্রিসিও-র ভূমিকার প্রশংসা এখনও শোনা যায় পর্তুগিজ সমর্থকদের মুখে। তাঁর ব্যক্তিগত জীবনের নায়িকাও কিন্তু কম যান না। সেক্স থেরাপিস্ট হিসাবে প্যাট্রিসিও-র বান্ধবী ভেরা অনেক আগেই প্রতিষ্ঠিত। তিনি কথা বললেই শিরোনামে আসে। এবারও তাই হল।

[জাতীয় দলে অর্জুনের সুযোগ পাওয়ার কথা জানতেনই না গুরু!]

ভেরা শিরোনামে আসেন ‘ম্যানুয়েল অফ সিডাকশন’ নামের যৌনতা সম্পর্কিত বিখ্যাত বইটি লিখে। তিনি সম্প্রতি জানিয়েছেন, ‘ধারাবাহিক স্বমেহন দুশ্চিন্তা ছেঁটে ফেলে।’ রিবেইরোর বক্তব্য, তাই প্রাক-বিশ্বকাপ মুহূর্তে আদ্যিকালের ধ্যানধারণা ভেঙে দিয়েছে। পর্তুগিজ টিভিতে রিবেইরো জানিয়েছেন, ‘খেলার আগে ফুটবল প্লেয়াররা যৌনমিলন করতে পারবে না, এরকম বিধিনিষেধ অনুচিত।’ প্রেমিক রুই প্যাট্রিসিওকেও একই পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। বলেছেন, ‘প্র্যাকটিস করো। কিন্তু নিয়মিত যৌনতাকে ভুলো না।’

[নেটদুনিয়ায় কটাক্ষের শিকার রশিদ, হর্ষ ভোগলেকে কী এমন বললেন আফগান স্পিনার?]

বিশ্বকাপে ১১ জনের ময়দানযুদ্ধে দেশের সংখ্যা ৩২। এ কথা সকলেই মেনে নেবেন, আসলে ফুটবল নিজেকে অতিক্রম করে যাওয়ার খেলা। প্রাথমিক লড়াইটুকু নিজের সঙ্গে। নিজের স্কিল, ফিটনেসের সঙ্গে জরুরি মানসিক শক্তিও। স্রেফ টেনশন করে কতজন ‘চোকার্স’ বনেছেন। সেই টেনশন রুখতেই নাকি প্রয়োজন স্বমেহন। যার ফলে আসবে নাকি  বিশ্বকাপ। একজন পেশাদার সাইকোলজিস্ট বলেই তাই ভেরার উক্তি উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

[বিশ্বকাপেও ফিক্সিংয়ের কালো ছায়া! প্রকাশ্যে ‘ঘুষ’ নিতে দেখা গেল রেফারিকে]

এবারের বিশ্বকাপে অবশ্য অনেকেই ভেরার এই মতের উলটো পথে হেঁটেছেন। গতবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানির কোচ জোয়াকিম লো যেমন ফুটবলারদের যৌনতায় একেবারে নিষেধাজ্ঞা জারি করে ফেলেছেন। নাইজিরিয়ার ফুটবলারদের রাশিয়ার মেয়েদের সঙ্গে মেলামেশা একদম বন্ধ। যৌন কেলেঙ্কারি সামনে আসার পর সতর্ক হয়ে গিয়েছে মেক্সিকোও। ভেরা কিন্তু এসবের ধার না ধেরে পর্তুগিজ ফেডারেশনকে পরামর্শ দিচ্ছেন ফুটবলারদের নিয়মিত স্বমেহনে অনুমতি দিতে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে