১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ডোপ কেলেঙ্কারিতে নাম জড়ালো সোনা জয়ী ভারতীয় অ্যাথলিটের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 19, 2017 9:50 am|    Updated: July 19, 2017 9:50 am

Asian champion shot-putter Manpreet Kaur fails dope test

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ডোপিং কেলেঙ্কারি থেকে সবে মুক্ত হয়েছেন ভারতীয় ‘স্পাইডারম্যান’ সুব্রত পাল৷ মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে না দাঁড়াতেই ফের মুখ পুড়ল দেশের ক্রীড়া দুনিয়ার৷ এবার ডোপিংয়ের অভিযোগ উঠল জাতীয় স্তরের অ্যাথলিট মনপ্রীত কৌরের বিরুদ্ধে৷

চলতি মাসেই ওড়িশায় আয়োজিত এশিয়ান অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জিতেছেন শটপাটার মনপ্রীত৷ আর তারপরই উঠল অভিযোগ৷ জানা গিয়েছে, গত মাসে পাটিয়ালায় ফেডারেশন কাপ জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপের আগে অ্যাথলিটদের ডোপ টেস্ট করেছিল নাডা (জাতীয় ডোপবিরোধী সংস্থা)৷ আর তখনই তাঁর শরীর থেকে নিষিদ্ধ ডাইমিথাইলবিউটিলামাইন পাওয়া যায়৷ যদিও তাঁর নির্বাসন নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি৷ তবে তাঁর মূত্রের বি নমুনাও যদি ডোপ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে না পারে, সেক্ষেত্রে ভুবনেশ্বরে জেতা সোনার পদক ফিরিয়ে নেওয়া হবে মনপ্রীতের থেকে৷ যা নিঃসন্দেহে গোটা দেশের কাছে লজ্জাজনক৷

[ঝুলন, মিতালিদের তাতাতে এবার আসরে শচীন]

ফেড কাপ ও সদ্য সমাপ্ত আন্তঃরাজ্য চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা ঝুলিতে ভরে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন মনপ্রীত৷ চিনের জিংহুয়ায় এশিয়ান গ্রাঁ প্রি মিটের মঞ্চে ১৮.৮৬ মিটার থ্রো করে জাতীয় রেকর্ড গড়েন৷ সোনা জয়ের পাশাপাশি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে খেলার যোগ্যতাও অর্জন করে নিয়েছিলেন৷ কিন্তু তারপরই ডোপ কলঙ্কে নাম জড়ালো তাঁর৷ জাতীয় অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের তরফে জানানো হয়েছে, জুন মাসে ফেডারেশন কাপের সময় যে ডোপ পরীক্ষা হয়েছিল, তাতে মনপ্রীত ফেল করেন৷ মঙ্গলবার নাডার তরফে এই খবর জানানো হয়৷ মনপ্রীতের স্বামী তথা কোচ করমজিত গোটা ঘটনায় বেশ অবাক৷ তিনি বলেন, “এখনও এ বিষয়ে আমাদের সরকারিভাবে কিছু জানানো হয়নি৷” আগামী মাসেই লন্ডনে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেওয়ার কথা মনপ্রীতের৷ কিন্তু তার আগে এমন রিপোর্ট বেশ অস্বস্তিতে ফেলে দিল ফেডারেশনকে৷ বিশ্ব মঞ্চে দেশের ভাবমূর্তি নিয়ে বেশ চিন্তায় তারা৷

[উপদেষ্টাদের উপেক্ষা করেই দলে শাস্ত্রীর পছন্দের বোলিং কোচ, কী মন্তব্য সৌরভের?]

সূত্রের খবর, এই প্রথম কোনও অ্যাথলিটের শরীরে ডাইমিথাইলবিউটিলামাইন পাওয়া গেল৷ যার প্রতিক্রিয়া অনেকটা মিথাইলহেক্সানামাইনের মতো৷ ২০১০ দিল্লি কমনওয়েলথ গেমসে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে ওই নিষিদ্ধ দ্রব্য সেবনের অভিযোগ উঠেছিল৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে