BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

উমেশ-অশ্বিনদের সামনে ধরাশায়ী স্মিথরা, একা কুম্ভ স্টার্ক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 23, 2017 1:35 pm|    Updated: February 23, 2017 1:38 pm

Australian batting line up crumples under Indian onslaught

অস্ট্রেলিয়া-  ৯৪ ওভারে ২৫৬/৯ (ম্যাথিউ  রেনশ ৬৮, মিচেল স্টার্ক ৫৭*, উমেশ যাদব ৩২/৪ )

প্রথম দিনের খেলা শেষ

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আশঙ্কাই সত্যি হল। পুণের এমসিএ স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিন থেকেই লাট্টুর মতো ঘুরতে শুরু করেছে বল। আর তাতেই ধরাশায়ী স্টিভ স্মিথের অস্ট্রেলিয়া। গোটা দিন ৯৪ ওভার ব্যাট করে অজিদের সংগ্রহ মাত্র ২৫৬ রান। কিন্তু ড্রেসিংরুমে ফিরে গিয়েছেন ন’জন অস্ট্রেলিয় ব্যাটসম্যান। একা কুম্ভ হয়ে লড়ছেন মিচেল স্টার্ক (৫৭)। সঙ্গে রয়েছেন হ্যাজেলউড (১)।

অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ ফুটবলের ম্যাচ আয়োজনের সুযোগ হারাতে পারে দিল্লি

বৃহস্পতিবার টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। পিচের কথা মাথায় রেখে দ্বিতীয় ওভারেই অশ্বিনকে নিয়ে আসেন বিরাট কোহলি। তবে দুই অজি ওপেনার ম্যাথুউ রেনশ। ওপেনিং জুটিতে দুই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান তোলেন ৮২ রান। স্পিন সহায়ক উইকেট হলেও অজি শিবিরে প্রথম ধাক্কা দেন উমেশ যাদব। ৩৮ রানে ওয়ার্নারকে আউট করেন তিনি। যদিও এর আগে জয়ন্ত যাদবের বলে বোল্ড হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু নো-বল হওয়ায় বেঁচে যান। ওয়ার্নার আউট হওয়ার পর আরও একটি আশ্চর্যজনক ঘটনা ঘটে। পেট খারাপ হওয়ায় প্যাভিলিয়নে ফিরে যান অপর ওপেনার রেনশও। তখন তাঁর ব্যক্তিগত রান ছিল ৩৬।

Untitled-6

এরপরে ওয়ার্নারের জায়গায় ক্রিজে আসেন অধিনায়ক স্মিথ এবং রেনশের জায়গায় ব্যাট করতে নামেন শন মার্শ। দুই অজি ব্যাটসম্যানই ভারতীয় বোলারদের উইকেট নেওয়ার সুযোগ না দিয়ে ব্যাট করতে থাকেন। তবে ব্যক্তিগত ১৬ রানের মাথায় শন মার্শকে আউট করে দেন জয়ন্ত যাদব। তখন অস্ট্রেলিয়ার রান ছিল দু’উইকেটে ১১৯। স্মিথ ও পিটার হ্যান্ডসকম্বের সঙ্গে জুটি বেঁধে ৩০ রান যোগ করেন। কিন্তু ৫৯.২ ওভারে জাদেজার বলে আউট হন হ্যান্ডসকম্ব (২২)। পরের ওভারেই অশ্বিনের বলে কোহলিকে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন স্মিথ (২৭)।

এরপর হঠাৎই ধস নামে অজি ব্যাটিং লাইনআপে। ভারতীয় বোলারদের দাপটে একে একে ফিরে যান মিচেল মার্শ (৪), ম্যাথিউ ওয়েড (৮), স্টিভ ওকিফি (০), নাথান লিঁয় (০)-রা। হ্যান্ডসকম্ব আউট হওয়ার পর ফের ক্রিজে আসেন রেনশ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত অশ্বিনের বলে ৬৮ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান তিনি। অজিদের হয়ে সর্বোচ্চ রান তাঁরই। সবাই যখন ভাবছে অস্ট্রেলিয়া হয়ত ২৫০ রানের গন্ডিও পেরোতে পারবে না, তখন আসরে নামেন মিচেল স্টার্ক। হ্যাজেলউডকে সঙ্গে নিয়ে শেষ উইকেটে দিনের খেলা শেষ হওয়া পর্যন্ত ৫১ রান যোগ করেন তাঁরা। এর মধ্যে হ্যাজেলউডের সংগ্রহ মাত্র ১ রান। আর স্টার্ক করেছেন ৫৭ রান। দিনের খেলা শেষে এই দুই ব্যাটসম্যানই অপরাজিত রয়েছেন।

Untitled-7

স্পিন সহায়ক উইকেট হলেও ভারতীয় বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল উমেশ যাদব। ১২ ওভার বল করে ৩২ রান দিয়ে চার উইকেট নিয়েছেন তিনি। প্রথমে ওয়ার্নার ও অজি ইনিংসের শেষ দিকে ওয়েড, ওকিফি এবং লিঁয়-র উইকেট পেয়েছেন তিনি। এরমধ্যে শেষ দু’টি উইকেট পরপর দু’বলে তুলে নিয়েছিলেন। যদিও শেষপর্যন্ত হ্যাটট্রিক করতে পারেননি। অপর বোলারদের মধ্যে অশ্বিন ও জাদেজা দু’টি করে এবং জয়ন্ত যাদব একটি উইকেট পেয়েছেন। যদিও আরেক বোলার ইশান্ত শর্মা কোনও উইকেট পাননি।

Untitled-4

বিশেষজ্ঞদের মতে, শুক্রবার সকালেই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব অস্ট্রেলিয়ার শেষ উইকেটটি তুলতে হবে ভারতকে। না হলে এই পিচে পরের দিকে ব্যাট করতে হলে কিছুটা হলেও সমস্যায় পড়তে হবে বিরাটদের। কারণ প্রথম দিন থেকেই একহাত করে ঘুরতে শুরু করেছে বল। যা দেখে অজি স্পিনাররাও হয়ত মনে মনে খুশি হতেই পারেন।

একই বলে ড্রেসিংরুমে ফিরলেন ওয়ার্নার ও রেনশ, কিন্তু কেন?

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে