BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ডার্বি উত্তাপ মাথায় নিয়েই শিলিগুড়ি উড়ে গেল দু’দল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 10, 2017 11:37 am|    Updated: February 10, 2017 11:37 am

Clash of Titans: Mohunbagan, East Bengal Fly to Siliguri

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সামনেই আই লিগের বড় ম্যাচ। মোহন-ইস্ট দুই শিবিরই এখন ডার্বি উত্তেজনায় ফুটছে। শুক্রবারই ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান দু’দলই শিলিগুড়ির উদ্দেশ্য রওনা হল। তবে তার আগে সকালের অনুশীলনটা কলকাতাতেই সেরে ফেলল দুই প্রধান। বাগান কোচ সঞ্জয় সেন যেখানে দলের রক্ষণের ওপর জোর দিলেন, সেখানে লাল হলুদ কোচ মর্গ্যানের বাড়তি নজর ছিল দলের আক্রমণভাগের দিকে।

ব্র্যাডম্যান ও দ্রাবিড়কে টপকে নজির বিরাটের

শিলিগুড়ি উড়ে যাওয়ার আগে কলকাতায় শেষ প্র্যাকটিসে এদিন রক্ষণের ওপরেই জোর দিলেন সবুজ-মেরুন কোচ সঞ্জয় সেন। এডু সবে চোট সারিয়ে ফিরেছেন। বড়ম্যাচে খেললেও তাঁর সঙ্গী কে হবে সেই নিয়ে কিছুটা হলেও চিন্তায় বাগান কোচ। রাজু গায়কোয়াড়-কিংশুক দেবনাথ হয়ত খেলবেন না, তাই এডুর পাশে আনাসের খেলার সম্ভাবনাই বেশি। তবে এদিন শরীর ম্যাজম্যাজ করায় তাঁকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। আনাস বাদে সঞ্জয়ের হাতে আর রয়েছেন বিক্রমজিৎ সিং (জুনিয়র)। তাই প্রয়োজনে প্রীতম কোটাল বা শৌভিক চক্রবর্তীকেও ডিপ-ডিফেন্সে খেলাতে পারেন তিনি।

চির-প্রতিদ্বন্দ্বীর তুলনায় এক ম্যাচ কম খেলে তিন পয়েন্টে পিছিয়ে রয়েছে মোহনবাগান। তাই এই ম্যাচটি জিততে মরিয়া বাগান খেলোয়াড়রা। এই ম্যাচটি আর বাকি ম্যাচের তুলনায় আলাদা। তাছাড়া অতীতে দেখা গেছে, বড়ম্যাচে যাঁরাই পিছিয়ে শুরু করেছে, তাঁরাই অধিকাংশ ম্যাচে জয় পেয়েছে। এভাবেই দলের খেলোয়াড়দের তাতাচ্ছেন চেতলার বাসিন্দা। পাশাপাশি, বিপক্ষের কোনও একজন নয়, পুরো লাল-হলুদ দলকেই সমীহ করছেন তিনি। তবে বলেন, সমীহ করলেও ইস্টবেঙ্গলের মোকাবিলা করতে প্রস্তুত তাঁর দল। জয় ছাড়া আর কিছুই ভাবছেন না জেজে-কাটসুমি-সোনিরাও।

মুশফিকরের আজব রিভিউ কল দেখে হেসে গড়াগড়ি কোহলি

সঞ্জয় সেন যখন দলের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের নিয়ে ব্যস্ত, ইস্টবেঙ্গল কোচ মর্গ্যান  সেখানে শিলিগুড়ি উড়ে যাওয়ার আগে দেখে নিলেন নিজের দলের ফরোয়ার্ড লাইনকে। সোনি নর্ডির দেশের খেলোয়াড় ওয়েডসন ও ত্রিনিদাদের উইলিস প্লাজার ওপর ভর করেই ডার্বি বৈতরণি পার করতে চাইছেন অস্ট্রেলিয়ান কোচ। তাই এদিন অনুশীলনে প্লাজা, ওয়েডসন, হাওকিপ, রবিন সিং এবং জ্যাকিচাঁদের সঙ্গে আলাদা কথাও বললেন তিনি। শরীরী ভাষায় আত্মবিশ্বাসের ছাপ ফুটে উঠলেও মুখে মোহনবাগানের জন্য ছিল সমীহের সুর। বলেন, এই ম্যাচের ভবিষ্যদ্বানী করা সম্ভব নয়। খেলা মাঠেই হবে। মোহনবাগান খুব বড় দল। শুধু সোনি নয়, গোটা দলটাই বিপজ্জনক। জেজে-কাটসুমিরাও সবাই ফর্মে রয়েছে।

এদিন সেন্ট্রাল পার্কের মাঠ থেকে সরাসরি বিমানবন্দরের উদ্দেশে চলে যান লাল-হলুদ খেলোয়াড়রা। বহুদিন পর ফের ডার্বিতে নামতে চলেছেন রবিন সিং। পুরনো বন্ধু টোলগে ওজবে নেই, তাঁর জায়গায় এসেছেন প্লাজা। তবুও জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী রবিন। বলেন, ‘এটা প্রত্যাবর্তনের ম্যাচ নয়। এই ম্যাচটি ভীষনভাবে জিততে চাইছি। জিততে পারলে চ্যাম্পিয়নশিপের আরও কাছে চলে আসা যাবে।’

মুশফিকরের আজব রিভিউ কল দেখে হেসে গড়াগড়ি কোহলি

এদিকে, টিকিট বিভ্রাটের পর সেটি সংশোধন করে ফের সেটি বিক্রি শুরু করেছেন ইস্টবেঙ্গল কর্মকর্তারা। এথন দেখার শিলিগুড়িতে রবিবাসরীয় ডার্বিতে শেষ হাসি কে হাসেন?

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে