১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৬ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পারিবারিক বিবাদ নিজেরা মেটান, লিয়েন্ডারকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 11, 2017 10:26 am|    Updated: April 11, 2017 10:26 am

come to mutually acceptable settlement, SC directs Leander Rhea

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শেষ মুহূর্তে তাঁকে ডেভিস কাপের দল থেকে বাদ দিয়েছেন ভারতের নন-প্লেয়িং অধিনায়ক মহেশ ভূপতি৷ এমন আচমকা খবরে বিস্মিত এবং ক্ষুব্ধ লিয়েন্ডার পেজ৷ ২৭ বছর পরে প্রথমবার ডেভিস কাপ দল থেকে বাদ পড়ায় এমনিই মনমড়া হয়ে আছেন টেনিস কিংবদন্তি৷ এবার ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও সুপ্রিম কোর্টের তরফ থেকে খুব একটা ভাল খবর পেলেন না পেজ৷ জানিয়ে দেওয়া হল, স্ত্রী রিয়া পিল্লাইয়ের সঙ্গে তাঁর যা বিবাদ রয়েছে, তা যেন আদালতের বাইরেই মিটিয়ে নেন তিনি৷

সোমবার শীর্ষ আদালত বলে, ব্যক্তি জীবনেও লি-এর স্পোর্টসম্যান স্পিরিট দেখানো উচিত৷ তাই তাঁদের মধ্যে সম্পর্কের যে ভাঙন ধরেছে, সেই আলোচনা যেন আদালতে না হয়৷ এভাবেই চলতে থাকা তিন বছরের আইনি লড়াইয়ে ইতি টানল সুপ্রিম কোর্ট৷ সোমবার আদালতে পেজ ও রিয়া দু’জনেই উপস্থিত ছিলেন৷ বিচারপতি অরুণ মিশ্র এবং অমিতাভ রায়ের বেঞ্চের তরফে বলা হয়, সমঝোতার মাধ্যমে তাঁরা যেন বৈবাহিক জীবনের সমস্যা মিটিয়ে ফেলেন৷ জানা গিয়েছে, এই প্রেক্ষিতে এর আগে সুপ্রিম কোর্টের মিডিয়েশন সেন্টারে হাজির হয়েছিলেন পেজ ও রিয়া৷ দীর্ঘ ছ’দিন ধরে সেখানে বিষয়টি মেটানোর চেষ্টা করা হলেও শেষমেশ কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছনো যায়নি৷

[সাহেব কোচের নালিশে ক্ষুব্ধ ইস্টবেঙ্গল কর্তারা, মর্গ্যানের বিদায় কি আসন্ন?]

সোমবার আদালতের নির্দেশ মেনে কোর্টের চেম্বারে গিয়ে সমঝোতার চেষ্টা করেন দম্পতি৷ তবে ফলাফল ইতিবাচক হয়নি৷ আদালতের থেকে আরও খানিকটা সময় চেয়ে নিয়েছেন তাঁরা৷ মে মাসের প্রথম সপ্তাহে ফের মামলার শুনানি৷ উল্লেখ্য, লি-এর বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ এনে ২০১৪ সালে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন রিয়া৷ ১১ বছরের মেয়েকে নিজের তত্ত্বাবধানে রাখার দাবিও জানান তিনি৷ সেই মামলাই এই পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে৷

[গাড়ি থামিয়ে যুবকদের হেলমেট পরার আর্জি শচীনের, VIRAL ভিডিও]

এদিকে, ভারতীয় টেনিসমহলের গরিষ্ঠ অংশ লি-হেশের বাদানুবাদে বিরক্ত৷ এআইটিএ মহাসচিব হিরণ্ময় চট্টোপাধ্যায় যদি মনে করেন, গোটা ঘটনায় লিয়েন্ডার পেজ ও মহেশ ভূপতি দু’জনেরই কথার্বাতায় অনেক বেশি পরিণতিবোধ দেখানো উচিত ছিল৷ তা হলে, আনন্দ অমৃতরাজের মনে হচ্ছে, পেজের তো দোষ আছেই, কিন্তু ভূপতিও পরিস্থিতিটা খারাপ ভাবে নিয়ন্ত্রণ করেছেন৷ সব মিলিয়ে কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন কলকাতার টেনিসতারকা৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে