BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘ইমরান খান পাক সেনার পুতুল, ১৫ মিনিটেই বোঝা গিয়েছে চরিত্র’, তোপ গম্ভীরের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: September 29, 2019 10:53 am|    Updated: September 29, 2019 10:53 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানে কার ক্ষমতা বেশি? জনতার দ্বারা নির্বাচিত সরকারের না সেনার? এ নিয়ে দীর্ঘ বিতর্ক রয়েছে। বার বার প্রমাণিত হয়েছে, সরকারের চেয়ে বেশি শক্তিশালী পাক সেনা। প্রধানমন্ত্রীর থেকে ক্ষমতা বেশি সেনাপ্রধানের। জেনারেল মুশারফ কীভাবে পাকিস্তানের ক্ষমতা দখল করেছিলেন সেকথা সকলেরই জানা। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী সেনার যাবতীয় সিদ্ধান্ত একপ্রকার মানতে বাধ্য হন। এদিন সেকথাই মনে করালেন প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার তথা বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর। তিনি বললেন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী আসলে সেনার হাতের পুতুল। রাষ্ট্রসংঘে ইমরানের ১৫ মিনিটের বক্তব্যেই তা প্রমাণিত।

[আরও পড়ুন: রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চে ভারতবিদ্বেষী বক্তব্য ইমরানের, ফের পরমাণু যুদ্ধের হুঁশিয়ারি ]

রাষ্ট্রসংঘে পাক প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য সম্পর্কে টুইটারে গম্ভীর বলেন, “প্রত্যেক দেশকে সময় দেওয়া হয়েছিল ১৫ মিনিট করে। ওই ১৫ মিনিটেই তাঁদের বক্তব্যের মাধ্যমে বুদ্ধি ও ব্যক্তিত্বের পরিচয় মেলে। একদিকে যখন আমাদের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজি শান্তি ও উন্নয়নের কথা বললেন, সেখানে পাক সেনার পুতুল(পড়ুন ইমরান খান) পরমাণু যুদ্ধের কথা বললেন। অথচ, এই ব্যক্তিই সেই ব্যক্তি যিনি কিনা কাশ্মীরে শান্তি ফেরানোর কথা বলছিলেন।”

[আরও পড়ুন: উন্নাওয়ে ধর্ষণের দিন কোথায় ছিল কুলদীপ? ফোন কোম্পানির কাছে জানতে চাইল আদালত]

উল্লেখ্য, শুক্রবার রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় ভারতের প্রতি বিদ্বেষ এবং ঘৃণা উগরে দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ইমরান ব্যক্তিগত স্তরে আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং আরএসএসকে। নির্ধারিত সময় ১৫ মিনিট পেরিয়ে আধ ঘণ্টা ধরে শুধু ভারত বিদ্বেষ ছড়ান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। পরোক্ষে পরমাণু যুদ্ধের হুঁশিয়ারি দেন পাক প্রধানমন্ত্রী। রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় দাঁড়িয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর স্পষ্ট হুঁশিয়ারি, “আমি কোনও হুমকি দিচ্ছি না। কিন্তু আন্তর্জাতিক মহলকে ভাবতে হবে তাঁরা ১৩০ কোটির বাজারকে তোষণ করবেন, না নিরীহ নিরপরাধ নাগরিকদের পাশে থাকবেন। দুটি পরমাণু শক্তিধর দেশ যদি যুদ্ধ করে তাঁর প্রভাব কিন্তু গোটা বিশ্বেই পড়বে।” ইমরানেই এই ভারতবিদ্বেষকেই এদিন টার্গেট করলেন বিজেপি সাংসদ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement