৬ শ্রাবণ  ১৪২৬  সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অস্ট্রেলিয়া:  ৩৮১-৫ (ওয়ার্নার ১৬৬, খোয়াজা ৮৯)

বাংলাদেশ:(রহিম ১০২, মহম্মদউল্লাহ ৬৯)

অস্ট্রেলিয়া ৪৮ রানে জয়ী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্যাচ মিস.. তো ম্যাচ মিস। ক্রিকেটের এক অতি জনপ্রিয় প্রবাদ। এই জনপ্রিয় প্রবাদটি আরও একবার সত্যি প্রমাণিত হল বাংলাদেশ বনাম অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে। সাব্বির রহমানের একটা ভুলই কার্যত শেষ করে দিল বাংলাদেশের বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল খেলার আশা। ডেভিড ওয়ার্নার তখনও সেট হননি, সেসময় পয়েন্টে তাঁকে তালুবন্দি করার সুযোগ পেয়েছিলেন সাব্বির। কিন্তু, সেই সুযোগ তিনি কাজে লাগাতে পারেননি। সেই ক্যাচ মিসটাই কাল হল বাংলাদেশের। ১৬৬ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেললেন ওয়ার্নার। তাঁর রেকর্ড-ভাঙা ইনিংসই শেষ পর্যন্ত হারিয়ে দিল বাংলাদেশকে। দ্বিতীয় ইনিংসে প্রাণপন চেষ্টা করেও, অজিদের দেওয়া ৩৮২ রানের লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারল না বাংলার টাইগাররা। বাংলাদেশকে হারতে হল ৪৮ রানে।

[আরও পড়ুন: ফের ধাক্কা ভারতীয় শিবিরে, ধাওয়ান-ভুবির পর চোটের কবলে আরও এক তারকা]

ট্রেন্ট ব্রিজের ব্যাটিং সহায়ক পিচে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। তাঁর সেই সিদ্ধান্ত সঠিক প্রমাণিত হয়। দুই ওপেনার ওয়ার্নার এবং স্বয়ং ফিঞ্চ প্রথম উইকেটের জুটিতেই ১২১ রান তুলে দেন। ফিঞ্চ ৫৩ রানে আউট হলেও ওয়ার্নার বাংলাদেশি বোলারদের একের পর এক চার-ছক্কা হাঁকাতে থাকেন। তিন নম্বরে ব্যাটিং করতে আসা উসমান খোয়াজাও দুর্দান্ত অর্ধশতরান করেন। শেষ বেলায় মাত্র ১০ বলে ৩২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন ম্যাক্সওয়েল। তবে, ট্রেন্ট ব্রিজে জীবনের অন্যতম সেরা ইনিংস খেলে একাধিক রেকর্ড গড়লেন ওয়ার্নার। প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপের ইতিহাসে দুটি দেড়শো বেশি রানের(১৫০+) ইনিংস খেললেন তিনি। প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৬ টি আলাদা আলাদা প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে দেড়শোর বেশি রান করলেন ওয়ার্নার। এটিই বিশ্বকাপে তাঁর সর্বোচ্চ স্কোর। তাঁর সেই বিধ্বংসী ইনিংসের জেরে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ৩৮১ রান করে অজিরা।

[আরও পড়ুন: অনবদ্য শাকিব, ক্যারিবিয়ানদের দুরমুশ করে সেমিফাইনালের দৌড়ে বাংলাদেশ]

৩৮২ রানের বিশাল লক্ষ্যমাত্র নিয়ে খেলতে নেমেও দুর্দান্ত লড়াই দিল বাংলা টাইগাররা। এক মুহূর্তের জন্যও অজিদের স্বস্তির নিশ্বাস ফেলতে দিলেন না তামিম, মুশফিক, মহম্মদউল্লাহরা। শুরুটা করেছিলেন তামিম। তিনি খেলেন ৬২ রানের ইনিংস। দুর্দান্ত শতরান করেন মুশফিক। তাঁর সংগ্রহ ১০২ রান। ৬৯ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন মহম্মদউল্লাহও। কিন্তু, এসবের পরেও শেষরক্ষা হল না টাইগারদের। তাদের ইনিংস শেষ হল ৩৩৩ রানে। যা বাংলাদেশ ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। হারের ফলে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের লড়াই থেকে কার্যত ছিটকে গেল বাংলাদেশ। অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়া পৌঁছে গেল পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং