BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘২০১৯ বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়ব, আগেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ধোনি’, অকপট যুবরাজ

Published by: Sulaya Singha |    Posted: August 4, 2020 11:56 am|    Updated: August 4, 2020 12:10 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বকাপের দলে কি সুযোগ মিলবে? টিম ইন্ডিয়ার সদস্য হয়েও এ প্রশ্নের উত্তর আগেভাগে পাওয়া কঠিন। তবে মহেন্দ্র সিং ধোনি পরিস্থিতিটা বুঝে গিয়েছিলেন আগেই। নির্বাচকরা যে যুবরাজ সিং দলে নেওয়ার কথা ভাবছেন না, সে আঁচ পেয়েছিলেন তিনি। অন্য কেউ নয়, এমন তথ্য ফাঁস করলেন খোদ ভারতীয় দলের যুবরাজ। জানালেন, ধোনিই তাঁকে ‘সঠিক ছবি’টা দেখিয়েছিলেন।

গত বছর ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছিল কোহলির টিম ইন্ডিয়া। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেই ম্যাচের পর আর বাইশ গজে দেখা যায়নি ধোনিকে। আর অন্যদিকে টুর্নামেন্ট চলাকালীনই একরাশ অভিমান নিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করেছিলেন যুবি। ২০১১ বিশ্বকাপের টুর্নামেন্ট সেরা সেই তারকা জানাচ্ছেন, ভারতীয় দলে তাঁর ভবিষ্যৎ নিয়ে আগেভাগেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ধোনি। এমনকী নির্বাচকরা যুবিকে নিয়ে কী ভাবনা-চিন্তা করছে বিশ্বকাপের আগেই তাঁকে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন তাঁর এককালের অধিনায়ক।

[আরও পড়ুন: মাস্কে লিখতে হবে নাম, ক্রিকেটারদের ট্রেনিংয়ের জন্য একাধিক নিয়ম আনল বোর্ড]

টিম ইন্ডিয়ার দ্বিতীয়বারের বিশ্বজয়ের পরই মারণ ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন যুবি। ক্রিকেট মহলের একাংশের মনে হয়েছিল, এখানেই হয়তো যুবরাজের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে ইতি পড়ল। কিন্তু সকলকে অবাক করে জাতীয় দলে কামব্যাক করেছিলেন পাঞ্জাব দা পুত্তর। কিন্তু ফিরলেও অনুভব করেছিলেন, পরিস্থিতি অনেকটা বদলে গিয়েছে। দলে তখন তরুণদের ভিড়। তাছাড়া আগের সেই ঝাঁঝও হারিয়েছিলেন যুবি। তা সত্ত্বেও পাঁচ বছর খেলা চালিয়ে গিয়েছিল।

২০১৭-য় দল থেকে বাদ পড়েন। তারপর যখন বোঝেন, নির্বাচকরা আর তাঁর নাম বিবেচনায় আনছেন না, তখন ২০১৯-এ অবসর নিয়ে নেন। তবে কেরিয়ারের শেষে অধিনায়ক বিরাট কোহলির সমর্থন পাওয়ায় তিনি খুশি। ২০০৩, ২০০৭ ও ২০১১ বিশ্বকাপ দলের তারকা বলেন, “কামব্যাক করার পর কোহলিকে পাশে পেয়েছিলাম। ওর সমর্থন না থাকলে ফিরতে পারতাম না। তবে ধোনিই আমায় সঠিক ছবিটা দেখা। জানায় ২০১৯ সালে নির্বাচকরা আমার কথা ভাবছে না। এককথায় আমার ভবিষ্যৎ স্পষ্ট করে দিয়েছিল ধোনিই।”

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে তিনিই ছিলেন পাকিস্তানের ‘সুপারফ্যান’ সেই ক্রিকেটপ্রেমী এখন বহু মানুষের ‘মসিহা’]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement