২ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

২ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৭ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপে এবার বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দু মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং তাঁর গ্লাভস। বিলেতে বিশ্বযুদ্ধের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে উইকেটকিপিংয়ের সময় ধোনির গ্লাভস নজর এড়ায়নি সংবাদমাধ্যমের। সেনার প্রতি এমএসডির শ্রদ্ধা আর ভালবাসার কথা কারও অজানা নয়। ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফে তাঁকে টেরিটোরিয়াল আর্মির লেফটেন্যান্ট কর্নেলের সাম্মানিক পদও দেওয়া হয়েছে। সেনার উর্দিতেই রাষ্ট্রপতির হাত থেকে পদ্মভূষণ সম্মান গ্রহণ করেছেন মাহি। কিন্তু, তিনি যে বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতীয় সেনার আত্মবলিদানকে এভাবে তুলে ধরবেন তা হয়তো অনেকেই ভাবেননি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ধোনির গ্লাভসে যে চিহ্নটি দেখা গিয়েছে সেটি আসলে Regimental Insignia- অর্থাৎ এক কথায় সেনা জওয়ানদের বলিদানের চিহ্ন। শহিদ জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানাতেই এই চিহ্নটি নিজের গ্লাভসে ধোনি এঁকেছেন বলে মনে করা হয়েছে। আর তাতেই আইসিসি-র রোষের মুখে পড়েছেন ধোনি। আইসিসি-র তরফে বিসিসিআইকে জানানোও হয়েছে যে, মাহি যেন এই গ্লাভস না পরেন। বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থার এই নির্দেশে যারপরনাই ক্ষুব্ধ নেটিজেন থেকে সমর্থকরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু নেটিজেন ধোনিকে ওই গ্লাভস পরেই খেলার অনুরোধ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে এভাবেই ভারতীয় সেনাকে সম্মান জানালেন ধোনি]

বুধবার সাউদাম্পটনের রোজ বোলে দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচের সময় ধোনির গ্লাভসে জ্বলজ্বল করছিল বলিদান চিহ্ন। সেই ছবি মূহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় নেটদুনিয়ায়। প্রাক্তন ক্রিকেটার থেকে শুরু করে অনেকেই ধোনির এই সেনাকে সম্মান জানানোর পদ্ধতিকে কুর্নিশ জানান। এর আগে পুলওয়ামা হামলার পর শহিদদের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য রাঁচিতে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেনার টুপি পরে নেমেছিল ভারত। পুলওয়ামা শহিদদের পরিবারকে সাহায্যের জন্যও এগিয়ে এসেছিল বিসিসিআই। তারপরই, ধোনির এই অভিনব শ্রদ্ধা। এই ছবিটি টেলিভিশনের ক্যামেরায় ধরা পড়ার পরই তা ভাইরাল হয়ে যায়। নেটিজেনরা ক্যাপ্টেন কুলের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। ধোনির দেশপ্রেম এবং ভারতীয় সেনার প্রতি দায়বদ্ধতাকে ধন্য ধন্য করেছেন তাঁরা। কিন্তু ছবি ভাইরাল হতেই নড়েচড়ে বসে আইসিসি। ধোনির এই বলিদান চিহ্ন লাগানো নিয়ে আপত্তি জানায় তারা। বিসিসিআইকে অনুরোধ করেছে, এই চিহ্নটি ধোনির গ্লাভস থেকে সরিয়ে দিতে। ক্রিকেট নিয়ামক সংস্থার নিয়ম অনুযায়ী, ম্যাচের মধ্যে কোনওভাবেই রাজনৈতিক, ধর্মীয় বা জাতিগত বার্তা বা চিহ্ন প্রদর্শন করা যায় না। কিন্তু সেনার বলিদান চিহ্ন কোনওভাবেই সেই নিয়মভঙ্গ করছে না বলে টুইট করেছেন কংগ্রেস নেতা অভিষেক মনু সিংভি থেকে শুরু করে অন্য বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা। আইসিসি-র আচরণে চটেছেন ভারতীয়রা।

[আরও পড়ুন: জানেন, কোন ছকে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ধ্বংস করলেন চাহাল?]

আইসিসি-র উপর ক্ষুব্ধ নেটিজেনরা সোশ্যাল মিডিয়ায় ধোনির কাছে আবেদন রেখেছেন, তিনি যেন এই গ্লাভস পরেই পরের ম্যাচে নামেন। ইতিমধ্যে #DhoniKeepTheGlove হ্যাশট্যাগ দিয়ে নেটিজেনদের বার্তায় ভরে গিয়েছে নেটদুনিয়া। অভিনেতা রীতেশ দেশমুখ টুইট করেছেন, ধোনির এই উদ্যোগ কোনওভাবেই কাউকে আঘাত করছে না। সুতরাং এই গ্লাভসে কোনও আপত্তি দেখছেন না তিনি। শুধু রীতেশই নন, অনেকেই ধোনির সমর্থনে সোশ্যাল মিডিয়ায় আইসিসিকে তুলোধোনা করেছেন। কেউ কেউ আবার ধোনির গ্লাভসের বদলে বিশ্বকাপে আম্পায়ারিংয়ের মান নিয়ে আইসিসিকে নজর দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। পাশাপাশি, ধোনির গ্লাভস বিতর্কে ভারতীয় মিডিয়াকে একহাত নিয়েছেন পাকিস্তানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরি। তিনি টুইট করেছেন, ‘ধোনি বিশ্বকাপ খেলতে গিয়েছে, মহাভারতের যুদ্ধ করতে নয়। ভারতীয় মিডিয়ার একাংশ যুদ্ধ নিয়ে এত উৎসাহিত যে তাদের সিরিয়া, আফগানিস্তান বা রোয়ান্ডায় পাঠানো উচিত ভাড়াটে সৈনিক হিসাবে।’ সবমিলিয়ে বিশ্বকাপে ভারতের প্রথম ম্যাচেই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে মহেন্দ্র সিং ধোনি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং