Advertisement
Advertisement
ICC T20 World Cup 2024

বাংলাদেশকে হারাতে চোটের ‘অভিনয়’! বিতর্কের মধ্যে ফিল্মি স্টাইলে সাফাই গুলবদিনের

গোটা ঘটনা নিয়ে মুখ খুলেছেন আফগানিস্তান অধিনায়ক রশিদ খান।

ICC T20 World Cup 2024: Rashid Khan and Gulbadin Naib opens up on injury controversy

ছবি: সংগৃহীত।

Published by: Anwesha Adhikary
  • Posted:June 25, 2024 5:36 pm
  • Updated:June 25, 2024 7:02 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচে কি চোট লাগার অভিনয় করেছিলেন গুলবদিন নাইব? নাকি সত্যিই সেই সময়ে আফগান তারকার চোট লেগেছিল? খেলা শেষ হওয়ার পরে এই প্রশ্নে উত্তাল সোশাল মিডিয়া। অভিযোগ উঠছে, কোচের নির্দেশেই খেলা সাময়িকভাবে থামিয়ে দেওয়ার জন্য চোট পাওয়ার ‘নাটক’ করেছিলেন গুলবদিন। বিতর্কের মধ্যে এবার গোটা ঘটনা নিয়ে মুখ খুললেন আফগানিস্তান অধিনায়ক রশিদ খান। সাফাই দিয়েছেন গুলবদিন নিজেও। 

টি-২০ বিশ্বকাপের (ICC T20 World Cup 2024) সেমিফাইনালে উঠতে গেলে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে জিততেই হত আফগানিস্তানকে। কিন্তু সেই ম্যাচে বারবার বাধা হয়ে দাঁড়ায় বৃষ্টি। শেষ পর্যন্ত সাহায্য নিতে হয় DLS পদ্ধতির। বাংলাদেশের রান তখন ৭ উইকেট হারিয়ে ৮১। DLS-এর হিসেবে মাত্র ২ রান পিছিয়ে ছিল বাংলাদেশ। ঠিক সেই সময়েই হ্যামস্ট্রিংয়ের ‘চোট’-এ আহত হয়ে বসে পড়েন আফগান ক্রিকেটার গুলবদিন নাইব। খেলা বন্ধ রেখে তাঁর চিকিৎসা শুরু করেন দলের ফিজিওরা। এদিকে ফের সজোরে বৃষ্টি নামে। ফলে ড্রেসিংরুমে ফিরে যেতে বাধ্য হন দুদলকেই।

Advertisement

[আরও পড়ুন: পর্বতারোহণে ইতিহাস ভারতের, রহস্যময় গুপ্ত পর্বত জয় সোনারপুরের অভিযাত্রীদের

কিন্তু ক্রিকেটভক্তদের নজরে পড়েছে অন্য বিষয়। স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা নাইব ‘আহত’ হওয়ার আগে আফগান (Afghanistan) কোচ জোনাথন ট্রট খেলা থামানোর ‘বার্তা’ পাঠান। আর তার পরই শুয়ে পড়েন গুলবদিন। নেটিজেনদের মতে, ট্রট চাইছিলেন যেন ওই সময়ে খেলা বন্ধ হয়ে যাক। কারণ বাংলাদেশ চার-ছক্কা হাঁকিয়ে দিলে সেমির রাস্তা বন্ধ হয়ে যেত আফগানদের জন্য। এই ঘটনা নিয়ে মুখ খোলেন একাধিক তারকাও। আফগানিস্তানের এই আচরণের সমালোচনা করেন তাঁরা।

Advertisement

বিতর্কের আবহে মুখ খুলেছেন রশিদ খান (Rashid Khan) নিজেই। তিনি বলেন, “গুলবদিনের ওই সময়ে পেশিতে টান ধরেছিল। আমি ঠিক জানি না কী হয়েছিল। ওই ঘটনা নিয়ে সোশাল মিডিয়ায় কী হয়েছে সেটাও জানি না, তা নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাই না। গুলবদিনের চোট লেগেছিল, খেলার মধ্যে এরকম হতেই পারে। তার পরে বৃষ্টি এলেও মিনিটপাঁচেকের মধ্যেই আবার খেলা শুরু হয়েছে। আমার মতে, এমন ছোটখাটো চোট লাগতেই পারে তার জন্য খানিকটা সময় দেওয়া যায়।” তবে রশিদের ‘সাফাই’য়ের পরেও থামছে না বিতর্ক। সোশাল মিডিয়ায় এই নিয়ে মুখ খুলেছেন গুলবদিন নিজেও। মজার ছলে তাঁর দাবি, খুশি বা দুঃখ-দুই কারণেই হ্যামস্ট্রিং হতে পারে। 

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে ইতিহাস রশিদ খানদের, আফগান রাজপথে আবেগের বিস্ফোরণ

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ