১৭ চৈত্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

কাজে এল না শ্রেয়সের সেঞ্চুরি, টেলরের চওড়া ব্যাটে প্রথম ওয়ানডে-তে জয়ী নিউজিল্যান্ড

Published by: Sulaya Singha |    Posted: February 5, 2020 3:59 pm|    Updated: February 5, 2020 3:59 pm

An Images

ভারত: ৩৪৭/৪ (শ্রেয়স-১০৩, রাহুল-৮৮*)
নিউজিল্যান্ড: ৩৪৮/৬ (নিকোলস-৭৮, টেলর-১০৯*)
৪ উইকেটে জয়ী নিউজিল্যান্ড

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল। নিউজিল্যান্ডের কাছে অতি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে পরাস্ত হয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গিয়েছিল টিম ইন্ডিয়া। কাট টু, ২০২০ মাউন্ট মানগানুই। টি-টোয়েন্টিতে ব্ল্যাক ক্যাপসকে ক্লিন সুইপ করে সেই জ্বালা অনেকখানিই মেটায় কোহলি অ্যান্ড কোং। পাঁচ-পাঁচটি ম্যাচের একটিতেও জয়ের মুখ দেখতে পাননি উইলিয়ামসনরা। কিন্তু ওয়ানডের বাইশ গজে নামতেই ফিরল বিশ্বকাপের সেই স্মৃতি। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্স সত্ত্বেও জয় ছিনিয়ে নিল হোম ফেভরিটরা।

ভারতীয় ইনিংসে এক ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। অন্যজন ৮৮ রানে অপরাজিত থেকে দলকে পাহাড় প্রমাণ রানে পৌঁছে দিয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে বোলারদের কাজটা অনেকখানি সহজই হয়ে যাওয়ার কথা। তবে ঘা হওয়া কিউয়িবাহিনী তা হতে দিল না। ভারতীয় পেস ঝড়ের সামনে বুক চিতিয়ে দাঁড়ালেন নিকোলস, রস টেলররা। আর তাতেই পালটে গেল ছবিটা। ওয়ানডে সিরিজ কিউয়িদের কাছে ছিল হারানো সম্মান ফিরে পাওয়ার লড়াই। যে লড়াইয়ের সূচনাটা বেশ ভালই হল। জয়ে ফিরে হারানো আত্মবিশ্বাসও যেন ফিরে পেলেন লাথামরা। তবে হারলেও হ্যামিল্টনে জোড়া প্রাপ্তি ভারতের (Indian Cricket Team)।

[আরও পড়ুন: গনগনে যৌনজীবন থেকে মেসির সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা, ৩৫-এর রোনাল্ডো এক বর্ণময় চরিত্র]

কী কী? এক, শ্রেয়স আইয়ার। এবং দুই, কেএল রাহুল। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের আগে থেকেই চার নম্বর জায়গা নিয়ে সমস্যায় ভুগছিল ভারত। একাধিক ব্যাটসম্যানকে এই পজিশনে নামিয়ে চলেছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা। তবে শ্রেয়সই যে সে শূন্যস্থান পূরণ করে দিলেন, তাতে আর কোনও সন্দেহ রইল না। অনবদ্য ব্যাটিং করে প্রথমবার দেশের জার্সি গায়ে সেঞ্চুরি হাঁকালেন আইপিএলে দিল্লি দলের নেতা। অন্যদিকে, প্রায় সবরকম ভূমিকাতেই নিজেকে দুর্দান্তভাবে প্রমাণ করে চলেছেন রাহুল। পাঁচ নম্বরে নেমে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে লম্বা ইনিংস খেললেন। দল যে আর শুধুই রোহিত-কোহলি নির্ভরশীল নয়, এটাই স্বস্তির। তবে দুই ব্যাটসম্যানের আফসোস একটাই। এত ভাল ইনিংস খেলেও জয় অধরাই রয়ে গেল।

ওয়ানডে-তে এদিনই অভিষেক হয় দুই ওপেনার পৃথ্বী শ ও (২০) মায়াঙ্ক আগরওয়াল (৩২)। তাঁরা আউট হলে দলকে টেনে তোলে কোহলি-শ্রেয়স জুটি। ৫১ রানে কোহলি ফিরলে শ্রেয়স-রাহুলই ত্রাতার ভূমিকায় ধরা দেন। তবে জবাবে অনবদ্য ক্রিকেট উপহার দিল নিউজিল্যান্ড। কুলদীপ জোড়া উইকেট নিলেও দশ ওভারে ৮৪ রান দিয়ে দেন। বুমরাহও হাত ঘুরিয়ে ব্যর্থ। তবে কিউয়িরা জেতায় ওয়ানডে সিরিজ যে জমে উঠল, তা বলাই বাহুল্য।

[আরও পড়ুন: চরম দারিদ্রেও হার মানেনি, যশস্বীকে দেখে শেখার পরামর্শ শোয়েব আখতারের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement