BREAKING NEWS

১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

চার ম্যাচেই মোহভঙ্গ! কেকেআর অধিনায়কের পদ থেকে কার্তিককে সরানোর দাবি সমর্থকদের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 4, 2020 10:22 am|    Updated: October 4, 2020 10:34 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মরশুমের প্রথম চার ম্যাচের মধ্যে দুই ম্যাচে জয়, দুটিতে হার। আপাত দৃষ্টিতে মনে হতে পারে, এখনই অধিনায়কের অপসারণ চাওয়াটা বোধ হয় বড্ড অসহিষ্ণুতার পরিচয় দেওয়া হবে। কিন্তু গত চার ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্সের (Kolkata Knight Riders) অধিনায়ক হিসেবে দীনেশ কার্তিকের (Dinesh Karthik ) পারফরম্যান্স তাঁর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে বাধ্য করছে সমর্থকদের। খাতায় কলমে টুর্নামেন্টের অন্যতম সেরা দল হাতে থাকা সত্বেও যেভাবে একের পর এক ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে কার্তিক দলকে ডুবিয়ে দিচ্ছেন, তা একেবারেই না-পসন্দ সমর্থকদের। আর সম্ভবত সেজন্যই সোশ্যাল মিডিয়ায় জোরাল দাবি উঠছে তাঁকে অপসারণের। ফেসবুক, টুইটারে চোখ রাখলেই দেখা যাচ্ছে, কেকেআর ম্যানেজমেন্টের কাছে সমর্থকরা একটাই দাবি জানাচ্ছেন, কার্তিককে সরিয়ে বিশ্বজয়ী অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যানকে অধিনায়ক করা হোক।গতকাল রাত থেকে টুইটার ট্রেন্ডিংয়ে উপরের দিকে #NotMyCaptain হ্যাশট্যাগটি। 

আসলে দীনেশ কার্তিকের পারফরম্যান্স নিয়ে গত মরশুমেও বিস্তর প্রশ্ন উঠেছিল। ভাল টিম থাকা সত্বেও নাইটরা গতবছর প্লে-অফে যেতে পারেনি। সেটা ঠিক মেনে নিতে পারছিলেন না সমর্থকরা। এবছর দল আরও শক্তিশালী হয়েছে। কিন্তু খেলার মাঠে কোনও পরিবর্তন হয়নি। বারবার মনে হচ্ছে, দল হিসেবে নিজেদের সেরাটা দিতে পারছে না কেকেআর। আর এসবের নেপথ্যে দায়ী ভুলভাল দল নির্বাচন এবং অবশ্যই ভুল ব্যাটিং লাইন-আপ। গতকাল দিল্লি ম্যাচ যার জলজ্যান্ত প্রমাণ। শনিবার ইয়ন মর্গ্যান (Eoin Morgan) যখন ব্যাট করতে নামলেন তখন ওভারে ১৫ রানের বেশি প্রয়োজন। একইভাবে রাহুল ত্রিপাঠি, যিনি কিনা একজন ওপেনার তাঁকে নামানো হল ৮ নম্বরে। প্যাট কামিন্সেরও পরে। ফল যা হওয়ার হল, প্রাণপন চেষ্টা করেও শেষপর্যন্ত হেরে মাঠ ছাড়তে হল নাইটদের।

[আরও পড়ুন: কাজে এল না মর্গ্যান–ত্রিপাঠির লড়াই, শারজায় দিল্লির কাছে হার কেকেআরের]

অধিনায়ক হিসেবে প্রায় সব ম্যাচেই কমবেশি ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কার্তিক, ব্যাটসম্যান হিসেবেও তাঁর পারফরম্যান্স জঘন্য। এখনও একটি ম্যাচেও সেভাবে রান পাননি। প্রথম ম্যাচে সামান্য রান পেলেও স্ট্রাইক রেটের জন্য দলকে এগিয়ে দেওয়ার থেকে আরও পিছিয়ে দিয়েছেন। দিল্লি ম্যাচেও তাই। সেকথা শনিবার স্বীকারও করে নিয়েছেন ডিকে। তিনি বলছিলেন, “১০ থেকে ১৩ ওভারের মধ্যে আর একটু বেশি বাউন্ডারি মারতে পারলে আমরা ঠিক ফিনিশিং লাইনে পৌঁছে যেতাম। সেই সময়টা কয়েকটা উইকেটও হারিয়েছি আমরা। যা দিনের শেষে এই হারের পিছনে অন্যতম কারণ।” মজার কথা হল, ওই সময় কার্তিক নিজেই ব্যাট করছিলেন। সার্বিকভাবে কার্তিকের পারফরম্যান্স এই মরশুমে একেবারেই সন্তোষজনক নয়। তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় সমর্থকরা দাবি তুলছেন, সময় এসেছে দীনেশকে বিদায় দিয়ে বিশ্বজয়ী মর্গ্যানকে অধিনায়ক করার। শুধু সমর্থকরা নন, একই দাবি তুলছেন শ্রীসন্থ, দ্বীপ দাশগুপ্তর মতো প্রাক্তনরাও। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement