৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ২২ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আপনি আইপিএল প্রেমী হলে গত আইপিএল এবং তাতে নো বল নিয়ে একের পর এক বিতর্ক মনে থাকা উচিত। যা নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি স্বয়ং। তবে এবার ছবিটা বদলাতে চলেছে। সব কিছু ঠিকঠাক চললে, আগামী আইপিএলে শুধুমাত্র নো বল দেখার জন‌্যই একজন আম্পায়ার বরাদ্দ করার কথা ভাবছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড।

মঙ্গলবার মুম্বইয়ে ব্রিজেশ প‌্যাটেলের নেতৃত্বে আইপিএল গর্ভনিং কাউন্সিল বৈঠক বসে। সেখানে আলোচনায় আইপিএলে শুধুমাত্র নো বলের জন‌্যই একজন আম্পায়ার রাখার বিষয়টা উঠে আসে। বলা হয়, সব কিছু ঠিকঠাক চললে আগামী আইপিএল থেকেই নো বলের জন‌্য বিশেষ আম্পায়ার রাখা চালু হয়ে যাবে। মাঠের আম্পায়ারদের মতো যাঁকে সার্বিকভাবে সব কিছু দেখতে হবে না। দেখতে হবে শুধু ‌‘নো বল’ হল কি হল না? বলা হচ্ছে, বিষয়টা অদ্ভুত শোনাতে পারে। কিন্তু একেবারে যে অসম্ভব তা নয়।

[আরও পড়ুন: ইডেন টেস্টে আমন্ত্রিত দেশের সব টেস্ট অধিনায়ক, বিশেষ ভূমিকায় দেখা যাবে ধোনিকে!]

যা খবর, তাতে আগামী আইপিএল থেকে প্রযুক্তিকে আরও ভালভাবে ব‌্যবহার করতে চাইছে ভারতীয় বোর্ড। সেই কারণেই শুধুমাত্র নো বলের জন‌্য বিশেষ আম্পায়ার রাখার ভাবনা। তবে আইপিএলে ‘পাওয়ার প্লেয়ার’ আমদানির সিদ্ধান্ত এখনই হচ্ছে না। ঠিক ছিল, পাওয়ার প্লেয়ার থিওরি (প্রয়োজন মতো ম্যাচ চলাকালীনই খেলোয়াড় বদলে নেওয়া) রাখলে সেটা কতটা কার্যকর হয়, তা সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে দেখে নেওয়া হবে। যে কারণে প্লেয়িং টার্মস অ‌্যান্ড কন্ডিশনস (শর্তাবলি) প্রকাশ করা হয়নি এতদিন। কিন্তু আগামী ৮ নভেম্বর থেকে সৈয়দ মুস্তাক আলি টুর্নামেন্ট শুরু হয়ে যাচ্ছে। বোর্ড মনে করছে, এত কম সময়ে মুস্তাক আলিতে পাওয়ার প্লেয়ারের থিওরি ঝালিয়ে দেখার সময় আর নেই।

পাশাপাশি আইপিএল গর্ভনিং কাউন্সিল বৈঠকে এদিন ঠিক হয়ে যায় যে, আগামী ১৯ ডিসেম্বর কলকাতায় আইপিএল নিলাম হবে। এতদিন বেঙ্গালুরুতে হত আইপিএল নিলাম। কিন্তু এবারই প্রথম কলকাতায় সেটা করা হচ্ছে। এবং নিলামের আগে সবচেয়ে বেশি টাকা দিল্লি ক‌্যাপিটালসের হাতে। ৮.২ কোটি টাকা ব্যয় করতে পারবে তারা। রাজস্থান রয়‌্যালসের হাতে ৭.১৫ কোটি টাকা। কেকআরের হাতে রয়েছে ৬.০৫ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার বৈঠকে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়। ঠিক হয়েছে, এবার থেকে আইপিএলে আর জাঁকজমক করে কোনও উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে না। বিসিসিআইয়ের এক কর্তার মতে, এতে অকারণ অর্থ খরচ হয়। দর্শকরা অনুষ্ঠান নিয়ে খুব একটা আগ্রহ দেখান না। অথচ তারকাদের মোটা অঙ্কের অর্থ দিতে হয়। অর্থাৎ আগামী বছর আইপিএল উদ্বোধনের দিন আর বলিউড তারকাদের নিয়ে জমজমাট অনুষ্ঠান হবে না।

[আরও পড়ুন: ‘শুধু পরিবারই নিঃস্বার্থে ভালবাসে’, জন্মদিনে ১৫ বছরের চিকুকে আবেগঘন চিঠি কোহলির]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং