BREAKING NEWS

২ মাঘ  ১৪২৭  শনিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ইসিজি রিপোর্ট সন্তোষজনক, সৌরভকে দেখতে হাসপাতালে অশোক ভট্টাচার্য

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 3, 2021 12:23 pm|    Updated: January 3, 2021 1:50 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভাল আছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। আজ সকালে তাঁর ইসিজি করা হয়েছে। সেই রিপোর্ট সন্তোষজনক। সকালে তাঁর অক্সিজেন সাপোর্টও খুলে দেওয়া হয়েছে। এখন অনেকটাই স্বাভাবিক বিসিসিআই (BCCI) প্রেসিডেন্ট। আজ সকালে বাড়ি থেকে আনা চিনি ছাড়া চা খেয়েছেন তিনি। ছানা, টোস্ট, কর্নফ্লেক্স দিয়ে সেরেছেন ব্রেকফাস্ট। স্ত্রী ডোনা গঙ্গোপাধ্যায় সৌরভের কেবিনেই আছেন। তাঁর সঙ্গেও কথা বলছেন সৌরভ।

গতকাল অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টির পর থেকেই দ্রুত সুস্থতার পথে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। হাসপাতালে শনিবার রাতটা নির্বিঘ্নেই কাটিয়েছেন সৌরভ (Sourav Ganguly)। হাসপাতাল সূত্রের খবর, রাতে ভাল ঘুম হয়েছে মহারাজের। গভীর রাতে একবার ঘুম ভেঙেছিল। তাঁকে আবার বেশ কিছু ওষুধপত্র দেওয়া হয়। কিছুক্ষণ পরই ফের ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। সারারাত একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তাঁকে পর্যবেক্ষণে রেখেছিলেন। স্ত্রী ডোনা রাতে সৌরভের পাশের কেবিনেই ছিলেন। আজ সকালে তাঁর রুটিন চেকআপ করা হয়। হাসপাতাল সূত্রের খবর, শরীরের প্রায় সব প্যারামিটার স্বাভাবিক। পালস রেট এবং রক্তচাপ এখন কার্যত পুরোপুরি স্বাভাবিক। শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা ১০০ শতাংশ। মানসিকভাবেও খুব চনমনে মহারাজ।

[আরও পড়ুন: স্বাভাবিক পালস রেট এবং রক্তচাপ, রাতে ঘুম হয়েছে নির্বিঘ্নে, দ্রুত সুস্থতার পথে সৌরভ]

এদিকে আজ সকালেই শিলিগুড়ি থেকে সৌরভকে দেখতে এসেছেন অশোক ভট্টাচার্য (Ashok Bhattacharya)। কেবিনে গিয়ে বেশ কিছুক্ষণ বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথা বলেন অশোক। শিলিগুড়ির বিদায়ী মেয়রের ইঙ্গিত, রাজনীতিতে যাওয়ার জল্পনা তৈরি হওয়ায় সৌরভের উপর মানসিক চাপ তৈরি হচ্ছিল। সেটাই সমস্যার কারণ হতে পারে। তিনি বলেন,”ডা. দেবী শেঠির সঙ্গে কথা হয়েছে। ওঁর উপর অহেতুক মানসিক চাপ যেন না দেওয়া হয়। আমি প্রথম থেকেই ওকে বলেছি, আমি চাই না যে তুমি রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হও। রাজনীতি তোমাকে কিছু দিতে পারবে না। পরশু রাতেও যখন সৌরভের সঙ্গে কথা হল, তখনও বলেছিলাম। আজও মনে করিয়ে দিলাম।” অশোক ভট্টাচার্যের পাশাপাশি কংগ্রেস সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য এবং রাজ্যের মন্ত্রী তাপস রায়ও এদিন হাসপাতালে যান। বালির বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়াও হাসপাতালে যান। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement