৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঝড়ের গতিতে উত্থান। বাইশ গজে ঝোড়ো সুইং। তারপর ফের ঝড়ের গতিতেই প্রস্থান। চোটবিধ্বস্ত কেরিয়ারের এটাই সংক্ষিপ্তসার। দক্ষিণ আফ্রিকা তথা আধুনিক ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম বিধ্বংসী বোলার ডেল স্টেইন সোমবার কিছুটা নীরবেই অবসর নিলেন টেস্ট ক্রিকেটের আঙিনা থেকে। এখন থেকে তিনি সীমিত ওভারের ক্রিকেটেই বেশি করে মনোনিবেশ করতে চান, তাই এমন সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন প্রোটিয়া বোলার। ২০০৪ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে অভিষেকের পর গত ফেব্রুয়ারিতে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে শেষবার টেস্ট ম্যাচে বল করতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। কিন্তু ১৫ বছরের কেরিয়ারে একাধিক সময়ে চোট-আঘাতে ছন্দপতন হয়েছে। বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে দলের বাইরে থাকতে হয়েছে। তাই লাল বলকে বিদায় জানিয়ে ওয়ানডে ও কুড়ি-বিশের ক্রিকেটকেই প্রাধান্য দিলেন স্টেইন।

[আরও পড়ুন: সেনা বেশে গানের পর ভাইরাল ধোনির ভলিবল খেলা, প্রশংসায় ভাসছেন ক্যাপ্টেন কুল]

অবসরের দিন আবেগ ধরা দিয়েছে তাঁর গলায়। বলেছেন, ‘আজ এমন একটা ফরম্যাট থেকে দূরে চলে যাচ্ছি যেটাকে সবচেয়ে বেশি ভালবাসি। আমার মতে, টেস্ট ক্রিকেটই হলে সব ফরম্যাটের সেরা। এটা মানসিকভাবে, শারীরিকভাবে এবং আবেগ দিয়ে তোমার পরীক্ষা নেয়। পরের টেস্ট ম্যাচ না খেলার থেকেও বেশি ভয়াবহ আর কোনও টেস্টই না খেলা। সেই চিন্তাটাই বড় কষ্টদায়ক।’ দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি স্টেইন ৯৩ টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। নিয়েছেন ৪৩৯টি উইকেট। ঈর্ষণীয় ২২.৯৫ গড়ে। ২০০৮ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত রেকর্ড ২৬৩ সপ্তাহ আইসিসির টেস্ট বোলার ব়্যাঙ্কিংয়ে একনম্বরে ছিলেন স্টেইন।

কিন্তু কথায় আছে, চিরদিন কাহারও সমান নাহি যায়। টেস্ট ক্রিকেট যেমন তাঁকে এত সম্মান দিয়েছে, তেমনই নিয়েছেও। একটা সময় চোট-আঘাতে তাঁর কেরিয়ারই শেষ হতে বসেছিল। বিশ্বের অন্যতম ভয়ংকর এই বোলারকে দীর্ঘদিন মাঠের বাইরে কাটাতে হয়েছে এই চোটের জন্য। মূলত কাঁধের চোট তাঁকে সবচেয়ে বেশি ভুগিয়েছে। তাই এই সিদ্ধান্ত প্রোটিয়া বোলারের। টেস্ট ক্রিকেটকে আলবিদা জানিয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটেই এখন ফোকাস করতে চান তিনি, জানিয়েছেন নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে।

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং