Advertisement
Advertisement

Breaking News

কমনওয়েলথ গেমস শুরুর আগে আরও বিপাকে ভারত, শমন পাঠানো হল সংস্থাকে

'সূচ' কাণ্ডে চাপের মুখে চার ভারতীয় বক্সার।

CWG 2018: Indians summoned over doping row
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:April 2, 2018 6:27 pm
  • Updated:July 11, 2018 12:24 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বুধবারই অস্ট্রেলিয়ায় শুরু কমলওয়েলথ গেমস। আর তার দু’দিন আগেই জোর ধাক্কা ভারতীয় শিবিরে। গোল্ড কোস্ট গেমস ভিলেজে ভারতীয় বক্সারদের রুমের বাইরের ডাস্টবিন থেকে প্লাস্টিকের বোতলের মধ্যে রাখা ইঞ্জেকশন সিরিঞ্জ আবিষ্কৃত হয়েছিল। তারপর থেকেই হইহই শুরু হয়ে যায় অস্ট্রেলীয় মিডিয়ায়। তবে কি ডোপ কেলেঙ্কারিতে নাম জড়াতে চলেছে ভারতীয়দের? এমন প্রশ্নই তুলতে শুরু করে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলি। আর তার জেরেই সোমবার একটি জাতীয় সংস্থাকে শমন পাঠাল কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশন (সিজিএফ)। ভারতীয় সংস্থাকেই শমন পাঠানো হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। রুমের বাইরে থেকে সিরিঞ্জ আবিষ্কার নিয়ে মেডিক্যাল কমিশনের সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা সংস্থার আধিকারিকদের।

[চোর অপবাদে গণপিটুনিতে মৃত আদিবাসীর পরিবারকে অর্থ সাহায্য শেহবাগের]

সিজিএফ-এর তরফে যদিও সরকারিভাবে জাতীয় সংস্থার নাম জানানো হয়নি। ফেডারেশনের সিইও ডেভিড গ্রেভেমবার্গকে জিজ্ঞাসা করা হলে, তিনি কোনও দেশের নাম উল্লেখ করেননি। তবে ‘সূচ’ কাণ্ডের আলোচনা করতেই যে শমন পাঠানো হয়েছে, তা নিশ্চিত করেছেন তিনি। গ্রেভেমবার্গ বলেন, “মেডিক্যাল কমিশনের সঙ্গে বৈঠকের জন্যই একটি জাতীয় সংস্থাকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। সোমবার সন্ধেয় হবে আলোচনা। সেই বৈঠকের উপর ভিত্তি করে একটি রিপোর্ট তৈরি করবে মেডিক্যাল কমিশন। যা আমাদের ফেডারেশন আদালতে পাঠানো হবে। তারপর পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে।

Advertisement

[রাজ্যসভার বেতনের পুরোটাই প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দান করলেন শচীন]

গোল্ড কোস্ট গেমস ভিলেজে এক-একটি ঘরে চারজন থাকছেন। বক্সারদের ক্ষেত্রেও একই ব্যবস্থা। যাঁদের রুমের বাইরে সিরিঞ্জ পাওয়া গিয়েছে, সেই চার ভারতীয় বক্সার বারবার জানিয়েছেন, তাঁরা এমন কিছু করেননি যার সঙ্গে ডোপিংয়ের সম্পর্ক রয়েছে। তবে টিম ডক্টর বলেছেন, তিনিই সিরিঞ্জ ব্যবহার করেছেন। যদিও তা একান্তই ডাক্তারি কারণে। এর সঙ্গে ডোপিংয়ের যোগ নেই। তবে সমস্যা হল, ‘নো নিডল পলিসি’-তে চলে কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশন। তাই ভারতীয় বক্সাররা ডোপ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেও তাঁদের গেমসে নামতে না দেওয়া হতে পারে। কারণ নিয়ম অনুযায়ী, ভিলেজের ভিতর সিরিঞ্জ নিয়ে প্রবেশ নিষেধ। আর সেই নিয়মভঙ্গ করেছেন ভারতীয় বক্সাররা। তাই ডোপ পরীক্ষায় পাস করলেও ‘নিডল’ টেস্টে ফেল করে কমনওয়েলথে অংশ নেওয়ার সুযোগ খোয়াতে পারেন চার ভারতীয় বক্সার।

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ