২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কনিষ্ঠতম ভারতীয় অ্যাথলিট হিসাবে শুটিংয়ে সোনা জিতে ইতিহাস অনীশের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 13, 2018 3:11 pm|    Updated: July 11, 2018 12:21 pm

CWG 2018: Shooter Anish Bhanwala, wrestler Bajrang Punia win gold

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বয়স মোটে ১৫। কিন্তু একাগ্রতা ও আত্মবিশ্বাস অটুট। তাতে ভর করেই এমন অল্প বয়সে বিশ্বকে চমকে দিলেন ভারতীয় শুটার অনীশ ভানওয়ালা। গোল্ড কোস্টের মঞ্চে শুধু সোনাই জিতলেন না, কনিষ্ঠতম ভারতীয় অ্যাথলিট হিসেবে ইতিহাস গড়লেন তিনি। শুটিংয়ের পাশাপাশি এদিন সোনা এল কুস্তিতেও। সুশীল কুমার, রাহুল আওয়ারের পর ৬৫ কেজি বিভাগে সোনা জিতলেন বজরঙ্গি পুনিয়া।

[সাহস থাকলে শাস্তি দিক সিস্টেম, কাঠুয়া গণধর্ষণে বিস্ফোরক গৌতম]

শুক্রবার কমনওয়েলথ গেমসে ২৫ মিটার ব়্যাপিড ফায়ার পিস্তল বিভাগের ফাইনালে সোনা জিতে নজির গড়লেন অনীশ। তাঁর স্কোর ৩০। হারালেন হোম ফেভরিট সের্গেই এভগেলভস্কিকে। এর আগে চলতি গেমসেই মহিলাদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেল বিভাগে কনিষ্ঠতম অ্যাথলিট হিসেবে সোনা জিতেছিলেন মনু ভাকর (১৬)। এবার তাঁকেও পিছনে ফেললেন কিশোর অনীশ। শুটিং, টেবল টেনিস, ব্যাডমিন্টনের পর কুস্তিতেও পদক জয়ের খাতা হয়েছেন ববিতা কুমারীরা। রুপো এনিছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার দেশকে সোনা এনে দেন রাহুল আওয়ারে ও সুশীল কুমার। এদিনও গোল্ড কোস্টের মঞ্চে অব্যাহত ভারতীয়দের জয়জয়কার। ভারতীয় কুস্তিগিরদের পদক জয়ের পালা চলছেই। বজরঙ্গ পুনিয়া যেখানে ৬৫ কেজি বিভাগে জিতলেন সোনা, সেখানে পিছিয়ে নেই মহিলা কুস্তিগিররাও। পূজা ধন্দ ঝুলিতে ভরলেন রুপো। ৬৮ কেজি বিভাগে দিব্যা কাকরান পেলেন ব্রোঞ্জ পদক। আবার পুরুষদের ৯৭ কেজি বিভাগের ফাইনালে দ্বিতীয় স্থানে শেষ করে মৌসম ক্ষত্রী পেলেন রুপো। ৯১ কেজি বক্সিংয়ের ফাইনালে নমন তানওয়ারের হাত ধরে এল ব্রোঞ্জ।

শুক্রবার অনীশ ও বজরঙ্গের পদক জয়ের পর ভারতের ঝুলিতে এখন সোনার সংখ্যা ১৭। ২০১০ দিল্লি কমনওয়েলথ গেমসে সর্বোচ্চ ৩৮টি সোনা ভারতের ঘরে এসেছিল। এবার যেভাবে গেমসের মঞ্চে ভারতের পদক সংখ্যা বাড়ছে, তাতে ক্রীড়ামহলের আশা, সেই সংখ্যা এবার ছুঁয়ে ফেলা যেতেই পারে।

[ব্যাডমিন্টন বিশ্বের শিখরে শ্রীকান্ত, গর্বিত গুরু গোপীচাঁদ]

এদিকে সূচ কাণ্ডের জন্য ভারতে ফেরানো হল ভারতীয় ট্রিপল জাম্পার রাকেশ বাবু এবং রেস ওয়াকার ইরফান কোলোথুম টোডিকে। জানা গিয়েছে গেমস ভিলেজে তাঁরা যেখানে ছিলেন, সেখান থেকে সিরিঞ্জ পাওয়া গিয়েছে। পাশাপাশি সূচ মেলে রাকেশের ব্যাগ থেকেও। সেই কারণেই তাঁদের দেশে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেয় কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশন। তবে ইরফানকে কেন নির্বাসনে পাঠানো হল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে ভারত। ইরফানের পাশে দাঁড়িয়ে এমন সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আইনি পথে এগোনোর ইঙ্গিতও মিলেছে।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে