BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

চোটের কারণে দেশে ফিরছেন ঋদ্ধি, দলে ঢুকছেন কার্তিক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 16, 2018 9:15 am|    Updated: January 16, 2018 9:15 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকা সফর এবারের মতো শেষ ঋদ্ধিমান সাহার। চোটের কারণে তৃতীয় টেস্টেও দলে ঠাঁই হল না তাঁর। বিসিসিআই এদিন জানিয়ে দিল, জোহানেসবার্গে তাঁর পরিবর্তে ঢুকছেন দীনেশ কার্তিক।

[আরও এক সাফল্যের শৃঙ্গে, বিশ্বের সর্বোচ্চ আগ্নেয়গিরির শিখরে সত্যরূপ]

প্রথম টেস্ট চারদিনেই শেষ হয়ে গিয়েছিল। যার মধ্যে আবার একদিন বৃষ্টির জন্য খেলাই হয়নি। তাই ঋদ্ধি ঠিক কখন চোট পেয়েছিলেন, বোঝা যায়নি। এমনকী নিউল্যান্ডস টেস্টের পরেও বাংলার উইকেটকিপারের চোটের কোনও সরকারি তথ্য দেওয়া হয়নি। পরে জানা যায়, ১১ জানুয়ারি প্র্যাকটিসের সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান তিনি। তাই সেঞ্চুরিয়ন টেস্ট শুরুর ঠিক আগে ঘোষণা করা হয়, তাঁর জায়গায় খেলবেন পার্থিব প্যাটেল। বোর্ডের তরফে আগে কেন ঋদ্ধির চোট নিয়ে কিছু জানানো হয়নি, সে নিয়েও ওঠে প্রশ্ন। ঋদ্ধিকে বাদ দেওয়ার জন্য বিরাট কোহলিকেও কটাক্ষ করেছিলেন প্রাক্তনরা। তাই এবার সমালোচনা এড়াতে সেঞ্চুরিয়ন টেস্ট চলাকালীনই বিসিসিআইয়ের নির্বাচন কমিটি জানিয়ে দিল, তৃতীয় তথা শেষ টেস্টে থাকছেন না ঋদ্ধি। কাল অথবা পরশু দেশে ফিরবেন ঋদ্ধি।

[যুব বিশ্বকাপে পাপুয়া নিউগিনিকে উড়িয়ে সহজ জয় দ্রাবিড়ের ছাত্রদের]

প্রথম ম্যাচে উইকেটের পিছনে দাঁড়িয়ে দশটি ক্যাচ নিয়ে নজির গড়েছিলেন বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম সেরা উইকেটকিপার। এক টেস্টে ক্যাচ নেওয়ার নিরিখে পিছনে ফেলেছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনিকেও। প্রোটিয়াদের স্বল্প রানে গুটিয়ে ফেলার নেপথ্যে অন্যতম ভূমিকা ছিল ঋদ্ধিরও। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত প্রোটিয়া চ্যালেঞ্জ মাঝপথেই ছাড়তে হচ্ছে তাঁকে। তিনি যাতে চোট সারিয়ে দ্রুত ম্যাচ ফিট হতে পারেন, তার দেখভাল করবে বোর্ডের মেডিক্যাল টিম। এদিকে আগামী ২৪ জানুয়ারি থেকে শুরু তৃতীয় টেস্ট। তার আগেই দক্ষিণ আফ্রিকা উড়ে যাবেন কার্তিক। ঋদ্ধির চোটের সুযোগে আট বছর পর টেস্ট দলে প্রত্যাবর্তন ঘটছে তাঁর। ২০০৪ সালে টেস্টে অভিষেক ঘটানো কার্তিক শেষবার বাংলাদেশের বিরুদ্ধে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে খেলেছিলেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement