BREAKING NEWS

০৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  সোমবার ২৩ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

একদিকে ইতিহাস গড়ার হাতছানি, অন্যদিকে জবাব দেওয়ার ম্যাচ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 15, 2016 1:01 pm|    Updated: September 15, 2016 1:40 pm

East Bengal vs Mohammedan and Mohunbagan vs Tollygunge match preview

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টানা সাতবার লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার হাতছানির প্রথম সলতেটা তো তিনিই পাকিয়েছিলেন৷ সাতবারের এই দীর্ঘ পথের শুরুতেও তিনি৷ বলা বাহুল্য, শেষেও তিনি৷ অস্ট্রেলিয়াতে বসে থাকলেও তাঁর মন তো সেই কল্যাণীতেই পড়ে থাকার কথা৷ তাই মহামেডানের বিরুদ্ধে মাঠে লাল-হলুদের কোচের ভূমিকায় ড্রাইডেন থাকলেও, মগজাস্ত্র সেই ট্রেভর জেমস মরগ্যানেরই৷

বুধবার অস্ট্রেলিয়া থেকে ফোনেই ড্রাইডেনের সঙ্গে শলা-পরামর্শ করেন মরগ্যান৷ তবে বৃহস্পতিবার মৃদুল বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে হারালেও চ্যাম্পিয়নের তমকা পাওয়া হচ্ছে না৷ কারণ ডার্বির পয়েন্ট নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি আইএফএ৷ মেহতাব ও গুরবিন্দর সিংই টানা সাতবার লিগ জয়ী ইস্টবেঙ্গল দলের সদস্য হয়ে যেতে পারেন৷ অর্ণব মণ্ডলের ক্ষেত্রে সংখ্যাটা হতে পারে পাঁচবার, টানা৷ বললেন, গত চারবারের তুলনায় এবারের লিগটা সবচেয়ে বেশি কঠিন৷

ইস্টবেঙ্গল টানা সাতটা লিগ জয়ের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে রয়েছে ঠিকই৷ কিন্তু এবার কি সেই পারফরম্যান্সটা হল? যা চোখ ধাঁধিয়ে দেয়৷ যা সমর্থকদের মাঠমুখি করে! চলতি লিগে একটি ম্যাচও হারেনি ইস্টবেঙ্গল৷ কিন্তু তুলনামূলক ছোট দলের কাছে অনেক গোল হজম করতে হয়েছে৷ ড্রাইডেন একটু বিরক্ত হয়েই বললেন, “দেখুন, সমর্থকরা সবসময় চায় ট্রফি আর চ্যাম্পিয়নশিপের স্বাদ৷ সেখানে ম্যাচগুলিতে ১-০ অথবা ২-১ গোলে জিতলেও কোনও সমস্যা নেই৷ রেকর্ডে শুধু থাকবে, টানা সাতবার লিগ জয়ী ইস্টবেঙ্গল৷”

এদিকে, চলতি মরশুমে বেশ ভাল অবস্থায় রয়েছে মহামেডান৷ অনুশীলন ম্যাচেও ইস্টবেঙ্গলকে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছিল তারা৷ সাদা কালো ব্রিগেডকে তাই বাড়তি গুরুত্ব দিচ্ছেন মেহতাবরা৷

মিনি ডার্বির আগে ময়দানের এক প্রধানের যখন ট্রফি জয়ের অপেক্ষা তখন অন্য প্রধান প্রস্তুত হচ্ছে যোগ্য জবাব দিতে৷ “সেই ম্যাচে কী ঘটেছিল সবাই জানে৷ ছেলেদের একটা কথাই বলেছি, তোমরা প্রমাণ করার ফের সুযোগ পেয়েছ৷ দেখিয়ে দাও, তোমরা জেতার জায়গায় ছিলে৷ তাই বলতে পারি, আমাদের কাছে তাই বৃহস্পতিবারের ম্যাচটা চ্যালেঞ্জের৷” ক্লাব তাঁবুতে দাঁড়িয়ে কথাগুলো একটানা বলে গেলেন বাগান কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী৷ সেদিন বাগানের ঘরের মাঠে সেই চরম উত্তেজনা এখন অতীত৷ টালিগঞ্জ-মোহনবাগান ম্যাচের রিপ্লে নিয়ে নানা জলঘোলার পর অবশেষে জট কেটেছে৷ নিজেদের প্রমাণ করার দ্বিতীয় সুযোগ পেয়েছেন ডাফিরা৷ আর এই সুযোগ কোনওভাবেই হাতছাড়া করতে চান না তাঁরা৷

মোহনবাগানিরা যদি ম্যাচটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়ে থাকেন, তাহলে টালিগঞ্জও উচিত শিক্ষা দিতে প্রস্তুত৷ বোঝাতে চাইবে, তাদের ন্যায্য এক পয়েন্ট পাওয়া থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে৷ তবে দু’টি দলই আজ প্রথম একাদশ পাচ্ছে না৷ মোহনবাগানের সঞ্জয় বালমুচু, রাজু গায়কোয়াড় ও প্রবীর দাস চলে গিয়েছেন আইএসএল খেলতে৷ ফলে রক্ষণ ভেঙে চৌচির৷ একই হাল টালিগঞ্জেরও৷ সুরাবুদ্দিন, সন্তোষ, রাম, বিজয় মান্ডি নেই৷ তবে দু’টো দলেই প্রতিশোধের আগুন জ্বলছে৷ তাই এদিনের ম্যাচ ঘিরে দর্শকদের উন্মাদনাও চরমে৷ দুপুর আড়াইটেয় কল্যাণীতে মুখোমুখি ইস্টবেঙ্গল ও মহামেডান৷ টালিগঞ্জ বনাম মোহনবাগান ম্যাচ শুরু বিকেল সাড়ে ৫ টায়৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে