২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

স্টাফ রিপোর্টার: মহেন্দ্র সিং ধোনি। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ পরবর্তী সময়ে ধোনিকে ভারতীয় দলের জার্সি গায়ে আর নামতে দেখা যায়নি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভারতীয় টিমের সঙ্গে যাননি ধোনি। দু’মাসের ছুটি নিয়ে সেই সময় সেনাবাহিনীর ট্রেনিং নিতে গিয়েছিলেন। দেশের মাঠে তার পর দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজেও ধোনিকে দেখা যায়নি। বলাবলি চলছিল, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজেও হয়তো তাঁকে দেখা যাবে না। খুব সহজে, গোটা দেশ জুড়ে ধোনির ক্রিকেটীয় ভবিষ্যৎ নিয়ে ধোঁয়াশা। বোর্ড জানে না তিনি কী করবেন। জাতীয় নির্বাচকরা জানেন না। ক্রিকেটপ্রেমীরাও জানেন না।

সব কিছু ঠিকঠাক চললে সেই ধোঁয়াশা এবার কাটতে চলেছে। আগামী ২৪ অক্টোবর বাংলাদেশ সিরিজের দল নির্বাচনী বৈঠক। ভারতীয় বোর্ড বার্ষিক সভার ঠিক পরের দিন। যেখানে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে প্রথম দেখা হবে নতুন বোর্ড প্রেসিডেন্টের সৌরভের। দেখা হবে, জাতীয় নির্বাচকদের সঙ্গেও। সেখানেই ধোনি নিয়ে জাতীয় নির্বাটকদের সঙ্গে ধোনি নিয়ে একপ্রস্থ কথা হবে সৌরভের। নতুন বোর্ড প্রেসিডেন্ট আগে দেখতে চান, টিম কী চায়। নির্বাচকরা কী চান। তার পর তিনি বসতে চান ধোনির সঙ্গে। যেখানে দু’বারের বিশ্বজয়ী ভারত অধিনায়কের কাছে জানতে চাওয়া হবে তাঁর ক্রিকেটীয় রোডম্যাপটা কী হবে?

“২৪ অক্টোবরের বৈঠকে আগে দেখি নির্বাচকরা কী বলছে। টিম কী বলছে, সেটাও জানতে হবে। তার পর নিজের মতামত দেব আমি। ধোনি কী চাইছে, সেটাও জানতে হবে,” এ দিন সিএবিতে নিজের ঘরে বসে বলছিলেন সৌরভ। সঙ্গে যোগ করলেন, “একটা জিনিস বুঝতে হবে। ধোনি কিন্তু গোটা দেশের সম্পত্তি।”

সিএবি প্রেসিডেন্ট হিসেবে তিন বছর আগে ইডেনে ভারত বনাম পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ম্যাচে তিনি অমিতাভ বচ্চনকে দিয়ে জাতীয় সঙ্গীত গাইয়েছিলেন। উপস্থিত করেছিলেন বর্তমান পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে। এবার ভারতীয় বোর্ড প্রেসিডেন্ট হিসেবে ইডেনে বাংলাদেশ টেস্ট উপলক্ষ্যে আরও বড় চমকের উদ্যোগ নিচ্ছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। আগামী ২২ নভেম্বর থেকে ইডেনে ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট। এই প্রথম বাংলাদেশ ইডেনে কোনও টেস্ট খেলতে আসছে। আর সেই ঐতিহাসিক মুহূর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে বেশ কয়েকটা অনুষ্ঠানের বন্দোবস্ত করা হচ্ছে। ভারত-বাংলাদেশের দুই প্রধানমন্ত্রীর কাছে যেমন আমন্ত্রণপত্র চলে গিয়েছে। বুধবার সিএবি থেকে বেরনোর সময় বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বলছিলেন, “আমরা দু’দেশের দুই প্রধানমন্ত্রীকেই নিমন্ত্রণপত্র পাঠিয়ে দিয়েছি। তবে সরকারি দফতর থেকে এখনও কনফার্মেশন পাইনি। দেখা যাক।” ভারতে ক্রিকেট যুদ্ধ উপলক্ষ্যে দু’দেশের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতি স্মরণকালে শেষ বারের মতো হয়েছিল ২০১১ ক্রিকেট বিশ্বকাপে। মোহালিতে ভারত বনাম পাকিস্তান সেমিফাইনাল ম্যাচ ঘিরে। যেখানে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি। মোদি-হাসিনা নতুন ভারতীয় বোর্ড প্রেসিডেন্টের নিমন্ত্রণ রক্ষা করে যদি আসেন ইডেন টেস্টে শেষ পর্যন্ত, নিঃসন্দেহে বড় ব্যাপার হবে। শুধু তাই নয়। ইডেনে বাংলাদেশ টেস্টের সময়ই জগমোহন ডালমিয়া স্মৃতি বক্তৃতার আয়োজন করছে সিএবি। আর তাতে মুখ্য বক্তৃতা সৌরভ স্বয়ং! দাঁড়ান, আরও আছে। ইডেনে যে আধুনিক ইন্ডোর তৈরি হচ্ছে, তার কাজ টেস্টের আগেই শেষ করে ফেলা হচ্ছে। যার শেষ সময়সীমা আগামী ২০ নভেম্বর। ইডেন টেস্টের সময়ই ইন্ডোরের উদ্বোধন হবে।

[আরও পড়ুন: স্বস্তি ফিরল জিম্বাবোয়ে ক্রিকেটে, নির্বাসন তুলে নিল আইসিসি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং