BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ইউরোয় ক্রোটদের হাতে দুরমুশ গতবারের চ্যাম্পিয়নরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 22, 2016 12:04 pm|    Updated: June 22, 2016 12:20 pm

An Images

স্পেন: ১ (মোরাতা)

ক্রোয়েশিয়া: ২ (কাকালিনিচ, পেরিসিচ)

প্রসূন বন্দ্যেপাধ্যায়: মঙ্গলবার রাতে অঘটন ঘটালেন ক্রোটরা৷ গতবারের চ্যাম্পিয়নদের মাটি ধরিয়ে ফুটবল বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিল ক্রোয়েশিয়া৷ ম্যাচটা যে এভাবে ক্রোয়েশিয়া বের করে নেবে অন্তত প্রথমার্ধ দেখে সত্যিই বোঝা সম্ভব হয়নি৷ একটা সময় পর্যন্ত ক্রোয়েশিয়ার ফুটবল বলতেই ডাভর সুকেরকে বুঝতাম৷ এখনও পর্যন্ত ক্রোয়েশিয়ান ফুটবলে সেরা গোলদাতা সেই৷ কিন্তু এই ক্রোয়েশিয়াকে যেন সুকেরের সময়ের থেকেও ভাল লাগল৷ যেভাবে পিছিয়ে থেকে ম্যাচ করে নিল, মারাত্মক টিম স্পিরিট ছাড়া ভাবা যায় না৷

তবে স্পেনের জন্য সান্ত্বনা একটাই৷ হারলেও যে দেল বস্কের ছেলেরা খুব খারাপ খেলেছে তা বলা যাবে না৷ কিছুদিন আগে দেখছিলাম, ব্যারেটো লিখেছেন, ইউরো ফাইনালে যাবে স্পেন৷ আমিও ওঁর সঙ্গে একমত৷ মারাত্মক কিছু অঘটন না ঘটলে স্পেন ফাইনালে যাচ্ছেই, এখনই বলে দেওয়া যায়৷ তবে অনেকেই বলেন, স্পেনের নাকি সেই তিকি তাকা ফুটবল দেখতে পাওয়া যায় না৷ তাহলে এদিন মোরাতার গোলটাকে কী বলবেন? মোরাতা বলটা জালে পাঠানোর আগে এক সঙ্গে ছ’টা পাস খেলে ফেলেছে স্পেন৷ তবে এই গোলটার পিছনে সবচেয়ে বেশি কৃতিত্ব দাভিদ সিলভার৷ রাইট উইং থেকে কাট করে ভেতরে ঢুকে মোরাতার উদ্দেশ্যে যেভাবে ডিফেন্স চেরা থ্রুটা বাড়ালেন, এক কথায় অনবদ্য৷

crot

পর পর দু’টো ম্যাচ জিতে পুরো ৬ পয়েন্ট নিয়ে অনেক আগেই পরের রাউন্ডে চলে গিয়েছে স্পেন৷ তবুও গুরুত্বহীন ম্যাচেও উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতে চাননি দেল বস্কে৷ রেখে দিলেন এক দল৷ মিডফিল্ডে সেই বুস্কেট, ইনিয়েস্তা আর ফ্যাব্রিগাস৷ ডিফেন্সে আলবা, ব়্যামোস, পিকেরা এক সঙ্গেই অনেকদিন ধরে খেলছেন৷ তার উপর বস্কিও অনেকদিন ধরে জাতীয় দলের কোচ৷ তাই পুরো দলটার মধ্যে একটা দারুণ মারাত্মক বোঝা পড়া৷

সবই ঠিক ছিল৷ কিন্তু ক্রোয়েশিয়া এদিন ছিল অন্য মেজাজে কালিনিচের গোলটা অনবদ্য৷ নিখুঁত সেন্টারে আউট স্টেপ দিয়ে বলটা জালে জড়িয়ে দিল৷ আউটস্টেপ ব্যবহার করেছে বলেই স্প্যানিশ গোলকিপার ডিজিয়া বুঝতে পারেনি৷ তবে ব়্যামোসের পেনাল্টি নষ্টের জন্যই ফের খেলায় ফিরে আসে ক্রোয়েশিয়া৷ প্রথম পোস্ট দিয়ে গোল করে চলে যান পেরিসিচ৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement