৪ মাঘ  ১৪২৫  শনিবার ১৯ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মোহনবাগানের অচলাবস্থা কাটাতে দ্রুত নির্বাচনের নির্দেশ আদালতের। শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাবে দ্রুত নির্বাচন চেয়ে আদালতে মামলা করেছিলেন মোহনবাগানের পদত্যাগী অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত ও কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মহেশ টেকরিওয়াল। সেই মামলার ভিত্তিতেই এদিন বিচারপতি শেখর ববি সরাফ নির্দেশ দেন হয় দু’পক্ষ আপসে সমস্যা মিটিয়ে নিন, নাহলে দ্রুত নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন।

[রাশিয়া বিশ্বকাপে ঢুকে পড়ল ইস্টবেঙ্গল, লাল-হলুদে সই তারকা ডিফেন্ডারের]

এর আগে বার্ষিক সাধারণ সভার দিন মোহনবাগান কর্তাদের দুই শিবিরের দ্বন্দ্ব চরমে ওঠে। রীতিমতো ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয় এজিএমে। প্রকাশ্যেই দুই শিবিরের কর্তাদের হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়তে দেখা যায়। শেষ পর্যন্ত অবশ্য টুটু বোসকে মোহনবাগান সভাপতি হিসেবে মেনে নিতে বাধ্য হন সচিব অঞ্জন মিত্র। কিন্তু শুনানির প্রথম দিনেই আবার ভোলবদল করেন সচিব। গতকাল সচিবের আইনজীবী দাবি করেন, “যেহেতু টুটু বোস ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটিকে তাঁর পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন তাই তিনি আর ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত নন।” তাঁর সেই দাবি খারিজ করে দেন বিচারপতি শেখর ববি সরাফ। আজ শুনানির শুরুতেই নির্বাচন ইস্যুতে সরব হন মামলাকারীরা।

[ফ্রান্সের হাত ধরে বিশ্বকাপে স্বপ্নপূর্ণ আফ্রিকার! অপেক্ষা ফাইনালের]

সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও কেন নির্বাচন করানো হয়নি, তা নিয়ে আদালতের ক্ষোভের মুখে আগেও পড়তে হয়েছিল ক্লাবের সচিবকে। আজ আরও একবার বিচারপতির রোষের মুখে পড়েন সচিবের আইনজীবী প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়। শেষপর্যন্ত শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাবে দ্রুত নির্বাচনের নির্দেশ দেন বিচারপতি। মামলাকারী দেবাশিস দত্তের দাবি ছিল, ২০০৫-এর মতোই বিশেষ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করে মোহনবাগানে নির্বাচন করানো হোক। সেই দাবি মতোই তিনজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির তত্ত্বাবধানে নির্বাচনের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তবে, অঞ্জন মিত্র শিবিরকে আংশিক স্বস্তি দিয়ে আদালত জানিয়ে দিয়েছে, কোন কোন বিচারপতির তত্ত্বাবধানে নির্বাচন হবে তা ঠিক করবে বর্তমানে ক্ষমতাসীন কর্তারাই। আগামিকাল বিকেল ৩টের মধ্যে নিজেদের পছন্দের তিন বিচারপতির তালিকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সচিব পক্ষের আইনজীবী প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে। আগামিকাল ফের মামলার শুনানি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং