BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নতুন ভোরের অপেক্ষায় ভগ্নপ্রায় অ্যান্টিগা রিক্রিয়েশন গ্রাউন্ড

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 24, 2016 5:41 pm|    Updated: July 24, 2016 7:14 pm

An Images

দেবাশিস সেন, অ্যান্টিগা: এ মাঠের প্রতি ঘাস ঐতিহ্যের সাক্ষী৷ এ মাঠেই লেখা হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের সোনালি ক্রিকেট ইতিহাসের কয়েকটি অধ্যায়৷ স্যার ভিভ এখানেই করেছিলেন টেস্টে দ্রুততম শতরানের রেকর্ড৷ ব্রায়ান চার্লস লারা এ মাঠেই খেলেছিলেন ৩৭৫ ও ৪০০ রানের দুই স্মরণীয় ম্যারাথন ইনিংস৷ এহেন ঐতিহ্য যে মাঠের সঙ্গী, সেটির অবস্থা কিন্তু আজ সঙ্গিন৷ ভগ্নদশা প্রায়৷ অগাধ ঐতিহ্য ও ইতিহাস থাকা সত্ত্বেও কোহলির ভারতের সামনে পড়ে বর্তমান ওয়েস্ট ইন্ডিজ টিমটার কঙ্কালসার দশা যেমন বেরিয়ে আসেছে, বিখ্যাত অ্যান্টিগা রিক্রিয়েশন গ্রাউন্ডেরও হালও যেন অনেকটা সেরকমই৷

অ্যান্টিগা কার্ণিভাল
অ্যান্টিগা কার্নিভাল

কেন এই বেহাল দশা স্টেডিয়ামটির? এককালে শুধু ক্রিকেট ম্যাচই হত এই মাঠে৷ দর্শকের উন্মাদনায় একসময় গমগম করত এ মাঠ৷ তাহলে আজ এরকম মৃতপ্রায় দশা কেন? জানা যাচ্ছে, ২০০৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপের সময়, এই মাঠ বাতিল করে রাজধানীর অদূরেই আর একটি মাঠ তৈরি হয়৷ ক্রিকেট ম্যাচ কমে আসে এই মাঠে৷ বদলে নানা ধরনের কার্ণিভাল অনুষ্ঠিত হয়৷ যদিও ক্রিকেটপ্রেমীদের মতে, এই স্টেডিয়ামে ক্রিকেট যেভাবে উপভোগ করা সম্ভব হত, তা নতুন জায়গায় সম্ভব হয় না৷ তা সত্ত্বেও স্টেডিয়ামটি সারিয়ে তোলার কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি৷ ক্রিকেট ছেড়ে আপাতত অ্যান্টিগা-বারবুদা কার্নিভাল চলছে এ মাঠে৷ ঐতিহ্যবাহী এ কার্ণিভালেই দুধের স্বাদে ঘোলে মেটাচ্ছে ক্রিকেট পাগল জনতা৷
একদিন যেখানে ইতিহাস লেখা হয়েছে, আজ তা নতুন ইতিহাসের অপেক্ষায়৷ অপেক্ষা সংস্কারের৷ কিন্তু তা কবে হাতেকলমে বাস্তব হয়ে উঠবে, সে উত্তর নেই৷ আপাতত তাই পুরনো সোনালি ইতিহাসে মুখ ঢেকেই নতুন দিনের সোনালি রেখার অপেক্ষায় অ্যান্টিগা রিক্রিয়েশন গ্রাউন্ড৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement